জার্মানির ইউরো-বিরোধী দল এগিয়ে চলেছে | জার্মানি ইউরোপ | DW | 27.04.2013
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

জার্মানি ইউরোপ

জার্মানির ইউরো-বিরোধী দল এগিয়ে চলেছে

জনপ্রিয় ‘‘বিল্ড’’ পত্রিকার দেওয়া একটি জরিপে এএফডি বা ‘জার্মানির জন্য বিকল্প’ দল এই প্রথম পাঁচ শতাংশ ন্যূনতম ভোটের বেড়া পার হতে পেরেছে৷ সেক্ষেত্রে পাঁচমাস পরের সংসদীয় নির্বাচনে প্রতিষ্ঠিত দলগুলির অনিশ্চয়তা আরো বাড়বে৷

হঠাৎই গজিয়ে উঠেছে এই এএফডি দল৷ গত ১৪ই এপ্রিল ছিল তাদের প্রথম দলীয় সম্মেলন৷ একদল মাঝবয়সি ভোটার, বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষক এবং মাঝারি আকারের শিল্পব্যবসায়ের মালিকরা মিলে দলটি সৃষ্টি করেন৷ দলের দাবি হলো একটাই: ইউরো বাতিল করো, দরকার হলে ডয়েচ মার্ক ফিরিয়ে আনো৷

ইউরো সংকটের ধাক্কায় যে দেশ এবং জাতি সবচেয়ে কম প্রভাবিত হয়েছে ও সবচেয়ে তাড়াতাড়ি ধাক্কা সামলে উঠেছে, সেটি হলো জার্মানি৷ অপরদিকে ইউরো ত্রাণে যে দেশের মানুষদের সবচেয়ে বেশি গুনোগার দিতে হতে পারে, সে দেশও হলো জার্মানি৷ সাধারণ জার্মানদের একাংশের মধ্যে ইউরোর স্থিতি নিয়ে আশঙ্কা যেমন, ইউরো ত্রাণে টাকা ঢালা নিয়ে বিরক্তিও তেমন৷ ঠিক সেই আশঙ্কা ও বিরক্তির সুযোগ নিয়েই সৃষ্টি হয়েছে এএফডি৷

এ কেমন দল, যাদের কর্মসূচি ঠিক হওয়ার আগেই কর্মকর্তা নির্বাচন সংক্রান্ত ভোটাভুটি হয়? পরে যাদের সেই কর্মসূচি চার পাতাও ছাড়ায় না – চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেলের সিডিইউ দলের সাধারণ সম্পাদক হেরমান গ্রোহে যেমন ঠাট্টা করে বলেছেন৷ তেমন একটি দল কিন্তু এক অর্থনীতির অধ্যাপককে পুরোধা করে মাত্র কয়েক সপ্তাহের মধ্যে জার্মান ভোটারদের তিন শতাংশের সমর্থন যোগাড় করে ফেলে৷

এবার বিল্ড পত্রিকার ফরমায়েশে ইনসা ইনস্টিটিউট যে জরিপ করেছে, তা-তে দেখা যাচ্ছে, এএফডি দল ভোটারদের পাঁচ শতাংশের সমর্থন পাবার আশা করতে পারে৷ বিল্ড নিজে তার শীর্ষক করেছে ‘ইউরো-বিরোধী পার্টির অভিযান'৷ ইনসার জরিপ অনুযায়ী, সংসদীয় নির্বাচনে ম্যার্কেলের রক্ষণশীল খ্রিষ্টীয় গণতন্ত্রীরা পাবে ৩৮ শতাংশ, তাদের জোট সহযোগী মুক্ত গণতন্ত্রীরা পাঁচ শতাংশ৷ বিরোধী সামাজিক গণতন্ত্রীরা দাঁড়িয়েছে ২৬ শতাংশে, সবুজরা ১৫ শতাংশে এবং বামদল ছয় শতাংশে৷

অর্থাৎ ম্যার্কেলের শাসকজোট ৪৩ বনাম ৪১ শতাংশের নামমাত্র ব্যবধানে জেতার প্রত্যাশা করতে পারে – কিংবা পারতো, যদি না এএফডির তরফ থেকে তাদের ভোট ভাঙানোর সমূহ বিপদ থাকতো৷ সিডিইউ দলের সাধারণ সম্পাদক গ্রোহে বলেছেন, তিনি সে বিপদ খুবই আন্তরিকভাবে নিচ্ছেন, এবং ধরে নিচ্ছেন, সংসদীয় নির্বাচনের ফলাফল খুব কাছাকাছি হবে৷

এসি/ডিজি (ডিপিএ, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন