জার্মানিতে প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক সংকট | বিশ্ব | DW | 01.02.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি

জার্মানিতে প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক সংকট

২০২৫ সাল নাগাদ জার্মানিতে শিক্ষকের সংকট প্রকট আকার ধারণ করবে৷ ক্যারিয়ার পরিবর্তনকারীরা বা অন্য শিক্ষাগত যোগ্যতার মানুষরা শিক্ষকের ঘাটতি পূরণের চেষ্টা করছে, তাসত্ত্বেও অনেক জায়গা খালি থাকবে৷ এক গবেষণায় জানা গেছে এই তথ্য৷

জার্মানি দক্ষতা এবং সঠিকতার জন্য বিশেষভাবে পরিচিত৷ আর পরিচিত একটি ভালো স্কুল সিস্টেমের জন্য, যা বুদ্ধিমান, যোগ্য এবং সুশিক্ষিত শিক্ষার্থী তৈরি করতে পারে৷ তবে সাম্প্রতিক এক গবেষণা জার্মানির স্কুল সিস্টেম সম্পর্কে অশনিসংকেত দিচ্ছে৷

ব্রেটেলসমান স্টিফটুংয়ের এক গবেষণা জানিয়েছে,  জার্মানিতে প্রাথমিক স্কুলের জন্য ৩৫,০০০ শিক্ষকের ঘাটতি রয়েছে৷ ২০২৫ সাল নাগাদ ১০৫,০০০ নতুন প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষকের প্রয়োজন হবে৷ অথচ সেই সময়ে এই পদগুলো পূরণের জন্য উপযুক্ত প্রার্থীর সংখ্যা হবে ৭০,০০০৷

জার্মানির শিক্ষক ইউনিয়ন জিইডাব্লিউ-র প্রধান ইলকা হফমান এই বিষয়ে বলেন, ‘‘এরকম এক উল্লেখযোগ্য ঘাটতি উঠতি বয়সি শিক্ষার্থীদের অর্জনে প্রভাব ফেলবে৷ এই বিপর্যয় গত কয়েকবছর ধরে তৈরি হচ্ছিলো, এখন সেটা আমাদের আঘাত করছে৷'' 

শিক্ষকদের ঘাটতি তৈরির কারণ কী?

শিক্ষকদের এই বড় ঘাটতির পেছনে বেশ কয়েকটি কারণ কাজ করছে বলে জানিয়েছেন ব্রেটেলসমানের গবেষকরা৷ একটি কারণ হচ্ছে, আগামী সাত বছরে অনেক শিক্ষক অবসরে যাবেন৷ ফলে তাঁদের পদগুলোতে নতুন নিয়োগ দিতে হবে৷ পাশাপাশি গত কয়েক বছরে জার্মানিতে সন্তান জন্মহার বেড়ে গেছে৷ এ কারণে স্কুলগুলোতেও বাড়তি শিক্ষকের প্রয়োজন দেখা দিয়েছে৷

মোটের উপর, জার্মানির স্কুল সিস্টেমে একটি পরিবর্তন এসেছে, যার ফলে শিক্ষার্থীরা চাইলে এখন সারাদিন স্কুলে কাটাতে পারে৷ অর্থাৎ দুপুর বারোটা বা একটা নাগাদ ক্লাস শেষে বাড়ি রওয়ানা হওয়ার বদলে চাইলে তারা ক্লাসে আরো বেশি সময় থাকতে পারে৷ এই বাড়তি সময়ের জন্য প্রয়োজনীয় শিক্ষকেরও ঘাটতি রয়েছে৷

Ilka Hoffmann, GEW Vorstand

জার্মানির শিক্ষক ইউনিয়নের প্রধান ইলকা হফমান

এই ঘাটতি কাটানোর একটি উপায় হচ্ছে, অন্য বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শেষ করা স্নাতকদের শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দেওয়া৷ কিছু স্কুল ইতোমধ্যে এমন মানুষদের শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দিচ্ছে বটে, তবে সেটাও সংখ্যায় বেশ সীমিত৷ আর অন্য পেশার বা শিক্ষায় শিক্ষিতদের স্কুল শিক্ষক হিসেবে কাজ করাটাও সহজ ব্যাপার নয়৷  

তবে বাচ্চাদের শেখানো সহজ কাজ নয়

ইলকা হফমান মনে করেন, অন্য পেশা থেকে  শিক্ষকতায় আসতে আগ্রহীদের জন্য নিবিড় প্রশিক্ষণ কর্মসূচির প্রয়োজন আছে৷ তিনি বলেন, ‘‘ক্যারিয়ার পরিবর্তনকারীদের শিশুদের বেড়ে ওঠার সময়কার মানসিকতা সম্পর্কে জানতে হবে৷ ক্লাসরুমে বিভিন্ন ব্যাকগ্রাউন্ডের শিক্ষার্থীদের মোকাবিলার জন্য তাঁদের প্রস্তুত হতে হবে৷ ক্লাসের সবচেয়ে ‘দুর্বল' এবং সবচেয়ে ‘সবল' শিক্ষার্থীর মধ্যে দুই থেকে চার বছরের ব্যবধান থাকতে পারে৷''

ক্যারিয়ার পরিবর্তন করে শিক্ষকতা পেশায় আগতরাও স্বীকার করেছেন যে, কাজটি সহজ নয়৷ এজন্য প্রস্তুতির প্রয়োজন রয়েছে৷ আর বিশেষজ্ঞরাও মনে করেন, আপাতত ঘাটতি কিছুটা মোকাবিলায় অন্য পেশার মানুষদের শিক্ষক হিসেবে প্রস্তুত করার পাশাপাশি ভবিষ্যতে শিক্ষকের ঘাটতি কাটাতে আরো কার্যকর উদ্যোগ নিতে হবে৷

কার্লা ব্লাইকার/এআই

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন