জার্মানিতে পুরুষ নির্যাতন বন্ধের উদ্যোগ | বিশ্ব | DW | 19.06.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

জার্মানি

জার্মানিতে পুরুষ নির্যাতন বন্ধের উদ্যোগ

নির্যাতন শুধু নারী বা শিশুরই হয় না, অনেক ঘরে পুরুষরাও হন নির্যাতনের শিকার৷ এমন নির্যাতন বন্ধের উদ্যোগ নিয়ে এবার পুরুষদের পাশে দাঁড়াচ্ছে জার্মানির দু'টি রাজ্য৷

জার্মানির ফেডারেল ক্রিমিনাল পুলিশ অফিস বিকেএ ২০১৮ সালে দেশজুড়ে হওয়া গৃহনির্যাতনের একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে৷ সেখানে ঘরে ঘরে পুরুষ নির্যাতনের তথ্যও উঠে আসে৷ প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০১৭ সালে জার্মানিতে মোট গৃহনির্যাতনের শিকারদের ১৭.৯ ভাগ পুরুষ৷ সব মিলিয়ে এক লাখ ২৭ হাজার ২৩৬টি গৃহনির্যাতনের অভিযোগ আসে পুলিশের কাছে৷ তার মধ্যে ২৩ হাজার ৮৭২টি অভিযোগ পুরুষদের৷ তবে পুলিশ মনে করে, প্রকৃত সংখ্যা তার চেয়ে অনেক বেশি হবে৷

মঙ্গলবার জার্মানির দু'টি রাজ্য বাভারিয়া এবং নর্থরাইন ওয়েস্টফালিয়া এমন পুরুষ নির্যাতন বন্ধের উদ্যোগ নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে৷ রাজ্য দু'টির পক্ষ থেকে জানানো হয়, তিন ধাপে চলবে এই প্রয়াস৷প্রথম ধাপে নির্যাতিত পুরুষদের হটলাইন এবং একটি অনলাইন কাউনসেলিং প্লাটফর্ম থেকে পরামর্শ দেয়া হবে৷ দ্বিতীয় ধাপে নেয়া হবে আশ্রয় ও পরামর্শ কেন্দ্র গড়ার উদ্যোগ৷ তৃতীয় ধাপে গুরুত্ব পাবে পুরুষ নির্যাতনের বাস্তবতাকে সামনে এনে টাবু ভাঙার বিষয়টি৷

জার্মানির ঘরে ঘরে পুরুষ নির্যাতন বন্ধের প্রথম উদ্যোগটির কথা ঘোষণা করতে গিয়ে বাভারিয়ার পরিবার, কাজ এবং সমাজ বিষয়ক মন্ত্রী কের্স্টিন শ্রেয়ার বলেন, ‘‘পুরুষরাও ঘরে নির্যাতিত হচ্ছেন৷ এতদিন তাদের সহযোগিতা করার ব্যবস্থা ছিল না বললেই চলে৷ হটলাইন এবং অনলাইন কাউন্সেলিংয়ের মাধ্যমে এক্ষেত্রে সব রাজ্য মিলে কাজ করার সুযোগ রয়েছে৷'' তিনি আরো বলেন, ‘‘কোনো সমস্যায় পড়লে কেউ কথা বলার জন্য কাউকে পাশে পাবে, এ বিষয়টি নিশ্চিত করা খুব দরকার৷ নর্থ রাইন ওয়েস্টফালিয়ার সঙ্গে মিলে আমরা সে কাজটা শুরু করতে পারায়, সারা জার্মানির জন্য একটা দৃষ্টান্ত রাখতে পারায় আমি আনন্দিত৷''

ডার্কো ইয়ানেভিচ/এসিবি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন