জার্মানিতে পিছিয়ে পড়লো সবুজ দল | বিশ্ব | DW | 10.06.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

জার্মানি

জার্মানিতে পিছিয়ে পড়লো সবুজ দল

তরুণ ও অনভিজ্ঞ হলেও জার্মানির আগামী চ্যান্সেলর হিসেবে সবুজ দলের প্রার্থী বেয়ারবকের সম্ভাবনা এতদিন উজ্জ্বল ছিল৷ জনমত সমীক্ষায় দলের খারাপ ফলের কারণে ম্যার্কেলের শিবিরের লাভ হচ্ছে৷

জাতীয় নির্বাচনের তিন মাস আগে জার্মানির রাজনীতি জগতে আবার নতুন মোড়৷ কিছুদিন আগে পর্যন্ত সবুজ দলের বিস্ময়কর উত্থান বাকি দলগুলিকে ম্লান করে দিচ্ছিল৷ এমনকি আঙ্গেলা ম্যার্কেলের বিদায়ের পর জার্মানির আগামী চ্যান্সেলর হিসেবে সবুজ দলের নেতা আনালেনা বেয়ারবকের নাম উঠে আসছিল৷ তার নেতৃত্বে কোন জোট সরকার গঠন করা হতে পারে, সে বিষয়ে জল্পনাকল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছিল৷ অথচ এই মুহূর্তে জনমত সমীক্ষায় এক ধাক্কায় অনেকটা পিছিয়ে পড়েছে সবুজ দল৷ তিন মাসের মধ্যে ভাবমূর্তির উন্নতি না হলে প্রথম বার সরকার গড়ার স্বপ্ন ত্যাগ করতে হবে সবুজ দলকে৷

সবুজ দলের প্রতি পড়ন্ত জনসমর্থনের পাশাপাশি ম্যার্কেলের ইউনিয়ন শিবিরের পুনরুত্থানও নজর কাড়ার মতো৷ চ্যান্সেলর পদপ্রার্থী আরমিন লাশেট নিজের প্রাথমিক দুর্বলতা কাটিয়ে তুলে দলের মধ্যে ঐক্য ও ভোটারদের সমর্থন আনতে অনেকটাই সফল হয়েছেন৷ যদিও সব কৃতিত্ব তার একার নয়৷ পূবের স্যাক্সনি-আনহাল্ট রাজ্যে নির্বাচনি জয়ের জন্য সে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর ব্যক্তিগত জনপ্রিয়তা উল্লেখযোগ্য অবদান রেখেছে৷ তবে সেই জয় গোটা দেশে দলকে অনেকটা চাঙ্গা করে তুলেছে৷ সেপ্টেম্বরের নির্বাচনের পর আবার সরকারের নেতৃত্বের আশা বাড়ছে৷

নিজস্ব দুর্বলতা ও কিছু বিতর্কিত নীতি সবুজ দলের লাগাতার জনপ্রিয়তা কিছুটা কমিয়ে দিয়েছে৷ যদিও জনপ্রিয়তার বিচারে দ্বিতীয় স্থানেই রয়েছে দলটি৷ মূলত দেশের পশ্চিমে শহরাঞ্চলে সবুজ দলের জনপ্রিয়তা সবচেয়ে বেশি৷ দলের পরিবেশ সংরক্ষণ ও টেকসই উন্নয়নের নীতি পূবে তেমন সাড়া জাগায় নি৷ ফলে সাধারণ নির্বাচনের আগে স্যাক্সনি-আনহাল্টের রাজ্য নির্বাচনে সবচেয়ে কম আসন পেয়েছে সবুজ দল৷

পরিবেশ সংরক্ষণের লক্ষ্যে কিছু ‘সাহসি' ও অজনপ্রিয় নীতিও সবুজ দলের সমর্থনে চিড় ধরাচ্ছে৷ করোনা সংকট ধীরে ধীরে কেটে যাবার কারণে এমনিতেই পেট্রোল ও ডিজেলের দাম বাড়ছে৷ সবুজ দল পেট্রোলিয়ামের উপর আরও কর চাপিয়ে সেই অর্থ দিয়ে পরিবেশ উন্নয়নের প্রস্তাব দিয়েছে৷ ফলে অনেক মানুষ বিষয়টি ভালো চোখে দেখছেন না৷ হাইওয়ে ও শহরের মধ্যে গাড়ির গতি কমানোর প্রস্তাবও মোটেই জনপ্রিয় নয়৷

সবুজ দলের নেতা বেয়ারবক জনমত সমীক্ষার এমন ফল সম্পর্কে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন৷ তাঁর মতে পরিবেশ সংরক্ষণ সংক্রান্ত প্রস্তাবগুলি ভোটারদের কাছে ঠিকমতো পৌঁছাচ্ছে না৷ পরিবেশ সংরক্ষণের পাশাপাশি অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলির প্রতি আরও মনোযোগ দেওয়া উচিত বলে দলের একটা বড় অংশ মনে করছে৷ যেমন গ্রামাঞ্চলের দৈন্যদশার সঙ্গে শহরাঞ্চলের সমৃদ্ধির ফারাক মেটাতে আরও উদ্যোগ নেওয়া উচিত বলে কিছু নেতা মনে করছেন৷ গ্রামাঞ্চলে কর্মসংস্থান ও আরও উন্নত গণপরিবহণ ব্যবস্থা গড়ে তোলার লক্ষ্যে কাজ করা উচিত বলে মনে করেন তাঁরা৷ চ্যান্সেলর পদপ্রার্থী হিসেবে বেয়ারবকের ব্যক্তিগত কিছু ‘গাফিলতি' কিছু ভোটারদের মনে বিরক্তি সৃষ্টি করছে বলেও অনেকে মনে করছে৷ বাড়তি আয়ের হিসাব দিতে এবং নিজের অতীত জীবনের কিছু বিষয়ে অস্পষ্টতা দূর করতে বিলম্বের কারণে তাকে ঘিরে কিছুটা অস্বস্তি সৃষ্টি হয়েছিল৷ শুক্রবার দলীয় সম্মেলনে সাধারণ নির্বাচনের আগে দলকে আরও চাঙ্গা করার লক্ষ্যে তর্কবিতর্ক হবে বলে ধরে নেওয়া হচ্ছে৷

এসবি/কেএম (ডিপিএ, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়