জার্মানিতে পারিবারিক সহিংসতা: প্রতি তিনদিনে একজন নারীর মৃত্যু | বিশ্ব | DW | 22.11.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

জার্মানি

জার্মানিতে পারিবারিক সহিংসতা: প্রতি তিনদিনে একজন নারীর মৃত্যু

জার্মানিতে পারিবারিক সহিংসতার ঘটনা ভয়ংকর মাত্রায় বেড়েছে বলে জানিয়েছেন পরিবার মন্ত্রী৷ প্রতি তিনদিনে নিজের সঙ্গী বা পুরোনো সঙ্গীর দ্বারা অন্তত একজন নারীর মৃত্যুর ঘটনা ঘটছে৷

জার্মানিতে নারী বিষয়ক মন্ত্রী ফ্রান্সিসকা গিফে মঙ্গলবার ২০১৭ সালের পারিবারিক সহিংসতার পরিসংখ্যান তুলে ধরে তা নিরসনে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন৷ গত তিন বছরে জার্মানিতে পারিবারিক সহিংসতার ঘটনা বেড়েছে ১০ ভাগ৷ তবে এগুলো কেবল তাদের ঘটনা, যারা এ সম্পর্কে থানায় রিপোর্ট করেছেন৷ বাস্তবিক সংখ্যাটা আরও বেশি বলে আশংকা করছেন মন্ত্রী৷

২০১৭ সালে ১ লাখ ৪০ হাজার নারী-পুরুষ তাদের সঙ্গীদের দ্বারা সহিংসতার শিকার হয়েছেন বলে রিপোর্ট করেছেন৷ গড়ে প্রতিদিন অন্তত একজন তার প্রেমিক, স্বামী, প্রেমিকা বা স্ত্রীকে হত্যার চেষ্টা করেছেন৷ এদের ১৪৭ জনের ক্ষেত্রে তাদের সঙ্গীরা সফল হয়েছেন, অর্থাৎ তাদের হত্যা করা হয়েছে৷ এছাড়া ধর্ষণ, শারীরিক নির্যাতন, শ্বাসরুদ্ধ করা এবং যৌন হয়রানির অসংখ্য রিপোর্ট রয়েছে৷ এদের মধ্যে ৮২ শতাংশ মামলায় নারীরা সহিংসতার শিকার হয়েছেন৷ আর গত বছর নারীদের হাতে খুন হয়েছেন ৩২ জন প্রেমিক বা স্বামী৷ এদের মধ্যে দুই তৃতীয়াংশই জার্মান নাগরিক৷

ওয়ার্কার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন-এর চেয়ারম্যান ভল্ফগাং স্টাডলের বলেছেন, তিনি এই পরিসংখ্যান দেখে আতঙ্কিত এবং এ সমস্যা সমাধানের আহ্বান জানাচ্ছেন, যাতে সবাই এ ব্যাপারে সহযোগিতা করে৷ 

পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, সহিংসতা চালানো পুরুষদের বেশিরভাগই জার্মান এবং তারা সব শ্রেণি-পেশার৷ ৩০ থেকে ৩৯ বছর বয়সের পুরুষরা বেশি সহিংস৷ মদ্যপানও একটি ‘ফ্যাক্টর' হিসেবে কাজ করেছে অনেকক্ষেত্রে৷

জার্মানিতে পারিবারিক সহিংসতা ও নির্যাতনের শিকার নারীদের জন্য ‘নারী আশ্রয়কেন্দ্র' রয়েছে ৩৫০টি, আছে ৬০০টি বিশেষ পরামর্শ কেন্দ্র, যারা প্রতিবছর ৩০ হাজার নারীকে সহায়তা দিয়ে থাকেন৷ এছাড়া ১৭টি ভাষায় ২৪ ঘণ্টা ফোনে সহায়তা দেয়ার ব্যবস্থা রয়েছে৷

নতুন পরিসংখ্যান প্রকাশের পর নারী বিষয়ক মন্ত্রী গিফে এ খাতে অর্থ সহযোগিতা বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন৷ এছাড়া নতুন এক ধরনের ফোন লাইন সুবিধা চালু করার কথা জানিয়েছেন তিনি৷ ২০২০ সাল নাগাদ নারীর বিরুদ্ধে সহিংসতা নির্মূলে প্রচারণা চালাতে সাড়ে তিন কোটি ইউরো ব্যয় করা হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি৷

এপিবি/ডিজি (এপি, এএফপি, রয়টার্স, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন