জার্মানিতে নারী জঙ্গি নেটওয়ার্কের সন্ধান পেয়েছে পুলিশ | বিশ্ব | DW | 27.12.2017
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি

জার্মানিতে নারী জঙ্গি নেটওয়ার্কের সন্ধান পেয়েছে পুলিশ

জার্মানির গোয়েন্দারা মঙ্গলবার জানান, তাঁরা দেশটির সবচেয়ে জনবহুল রাজ্যে নারী জঙ্গিদের একটি নেটওয়ার্কের সন্ধান পেয়েছেন৷ প্রায় ৪০ জন নারী এই নেটওয়ার্কের সদস্য বলে জানা গেছে৷

নর্থ রাইন ওয়েস্টফালিয়া রাজ্যের ‘প্রোটেকশন অফ দ্য কন্সটিটিউশন' বা বিএফভি-র প্রধান বুর্খার্ড ফ্রায়ার ‘ফ্রাংকফুর্টার আলগেমাইনে সাইটুং' পত্রিকাকে জানিয়েছেন, ঐ নেটওয়ার্ক সালাফি মতবাদের কঠোর অনুসারী৷ সালাফি এ সব শিক্ষার মধ্যে আছে, কীভাবে সন্তান পালন করতে হবে, ইসলামের নিয়মকানুন কীভাবে ব্যাখ্যা করতে হবে এবং তথাকথিত ‘অবিশ্বাসীদের' বিরুদ্ধে কীভাবে ঘৃণা ছড়াতে হবে৷ এছাড়া নেটওয়ার্কের সদস্যরা ইন্টারনেটে সালাফি মতবাদের প্রচার ও প্রসারে সক্রিয়ভাবে জড়িত বলে জানান ফ্রায়ার৷ তিনি বলেন, সালাফিদের সঙ্গে সন্ত্রাসীদের মিলিয়ে ফেলা ঠিক না হলেও এটা ঠিক যে, সাম্প্রতিক সময়ে ইউরোপের প্রত্যেক জিহাদি সালাফি মতবাদের অনুসারী ছিলেন৷

ফ্রায়ার বলেন, এই নারীরা তাঁদের সন্তানদের মধ্যেও সালাফি মতবাদ ঢুকিয়ে দিচ্ছেন৷ অর্থাৎ ‘এটি একটি পারিবারিক বিষয়' হয়ে দাঁড়িয়েছে বলে মন্তব্য করেন তিনি৷

নেটওয়ার্কের সদস্যদের এ ধরনের কাজের প্রতি তাঁদের স্বামীদের সমর্থন আছে৷ ‘‘পুরুষরা দেখেছে যে, নারীরা ভালো নেটওয়ার্ক করতে পারে৷ ফলে সালাফি মতবাদের প্রসারে তাঁরা বেশ কার্যকর হতে পারে,'' বলেন ফ্রায়ার৷

ফ্রায়ারের এসব মন্তব্যের সঙ্গে মধ্য-ডিসেম্বরে জার্মান বার্তা সংস্থা ডিপিএ-তে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনের মিল পাওয়া যায়৷ ঐ প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, জার্মান কর্তৃপক্ষ কয়েক ডজন মুসলিম নারী ও তরুণকে অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তার জন্য হুমকি হিসেবে চিহ্নিত করেছে৷

জার্মানির বিএফভি সংস্থা আরও সতর্ক করে বলেছে, মধ্যপ্রাচ্যে তথাকথিতইসলামিক স্টেট বা আইএস-এর দাপট কমে যাওয়ায় জিহাদিদের সিরিয়া ও ইরাকে যাওয়ার সংখ্যা কমেছে৷ তবে জিহাদিদের ফিরে আসার ঘটনা বেড়েছে৷ ফিরে আসাদের মধ্যে অনেক নারীও আছেন বলে জানিয়েছেন ফ্রায়ার৷

জেডএইচ/ডিজি (ডিপিএ, এএফপি, কেএনএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়