জার্মানিতে টিকা বাধ্য়তামূলক করা ঠিক হবে না  | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 13.01.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

সংবাদভাষ্য

জার্মানিতে টিকা বাধ্য়তামূলক করা ঠিক হবে না 

জার্মানির বাভারিয়া রাজ্য়ের মুখ্য়মন্ত্রী মার্কুস শ্য়োডার করোনার টিকা নেয়া বাধ্য়তামূলক করার চেষ্টা চালাচ্ছেন- বিশেষ করে নার্সদের জন্য়৷ ভুল সময়ে শ্য়োডার এই চেষ্টা করছেন বলে মনে করেন ডয়চে ভেলের ইয়েন্স থুরাও৷

করোনা মহামারির সময়ে নিজেকে অন্য়তম গুরুত্বপূর্ণ নেতা হিসেবে তুলে ধরতে সমর্থ হয়েছেন শ্য়োডার৷ স্বাস্থ্য় ও সেবাখাতে কাজ করা কর্মীদের জন্য় টিকা বাধ্য়তামূলক করার কথা তিনিই সবচেয়ে বেশি বলছেন৷ এক্ষেত্রে বয়স্ক রোগী ও বাসায় থাকা রোগীদের নিরাপত্তার বিষয়টি তিনি সামনে নিয়ে আসছেন৷

করোনার শুরু থেকেই জার্মানির রাজনীতিকরা বলে আসছেন,টিকা আসলেও সেটা নেয়া বাধ্য়তামূলক করা হবে না৷ কারণ অনেকে মনে করছেন, করোনা মোকাবিলা করতে গিয়ে মানুষের চলাফেরা সীমিত করাসহ অন্য়ান্য় যে ব্য়বস্থা নেয়া হচ্ছে, সেগুলো মৌলিক অধিকারের পরিপন্থি৷ মানুষ মনে করছে, অনেকদিন ধরে তারা নিজেদের জীবনের গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিজেরা নিতে পারছে না৷

সম্প্রতি জরিপে দেখা গেছে, নার্স ও ডাক্তারদের অনেকে টিকা নিতে চান না৷ এই সংখ্য়াটা ধারনার চেয়েও বেশি হওয়ায় শঙ্কিত হয়ে শ্য়োডার টিকা বাধ্য়তামূলক করার চেষ্টা শুরু করেছেন৷

Thurau Jens Kommentarbild App

ইয়েন্স থুরাও, ডয়চে ভেলে

জার্মানিতে অতীতেও কিছু টিকা নেয়া বাধ্য়তামূলক ছিল৷ যেমন প্রবীণরা পোলিও টিকার কথা মনে করতে পারেন৷ এছাড়া করোনা শুরু হওয়ার কয়েকমাস আগে জার্মান সংসদ শিশু এবং ডে-কেয়ার সেন্টার ও স্কুলসহ স্বাস্থ্য়সেবা প্রতিষ্ঠানে কাজ করা কর্মীদের জন্য় হামের টিকা বাধ্য়তামূলক করেছে৷ সাংবিধানিক আদালতও সবসময় বাধ্য়তামূলক টিকার বিরোধিতা খারিজ করে দিয়েছেন৷ করোনার টিকা বাধ্য়তামূলক করলে আইনত কোনো সমস্য়া হবে না৷

অনেক স্বাস্থ্য়কর্মী মনে করছেন, রেকর্ড সময়ে টিকা তৈরি ও তা ব্য়বহারের অনুমোদন দেয়া হয়েছে৷ এছাড়া যারা টিকা নিচ্ছেন তারা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়তে পারছেন কিনা, তা এখনও স্পষ্ট নয়৷

জার্মানিতে করোনা সংক্রমণের সংখ্য়া অনেক বেশি৷ কড়া লকডাউন চলছে, যদিও ফ্রান্স ও স্পেনের মতো ততটা কড়া নয়৷ মানুষকে নিয়মের মধ্য়ে থাকতে বাধ্য় করার মতো পুলিশ জার্মানির নেই৷ তাই নাগরিকরা যেন স্বেচ্ছায় সরকারকে করোনার বিরুদ্ধে লড়তে সহায়তা করে, তার উপর রাজনীতিবিদদের নির্ভর করতে হবে৷ এবং আশা করতে হবে যেন নাগরিকরা ক্রমে টিকার গুরুত্ব বুঝতে পারেন৷

টিকা বাধ্য়তামূলক করতে চাওয়ার আলোচনা তোলার সবচেয়ে বাজে সময় এখন৷ শ্য়োডার সেটাই বেছে নিয়েছেন৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন