জার্মানিতে আবার সিনাগগের সামনে হামলা | বিশ্ব | DW | 05.10.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

জার্মানি

জার্মানিতে আবার সিনাগগের সামনে হামলা

হামবুর্গ শহরে রবিবার এক সিনাগগের সামনে হামলায় এক ইহুদি ছাত্র গুরুতরভাবে আহত হয়েছে৷ পুলিশ ঘটনার তদন্ত করছে৷ এই হামলার বিরুদ্ধে নিন্দার ঝড় উঠেছে৷

জার্মানির ভূখণ্ডে আবার ইহুদি উপাসনালয়ের উপর বড় হামলার ষড়যন্ত্র সম্ভবত বানচাল হয়ে গেল৷ কিন্তু ২৬ বছর বয়সি এক ইহুদি ছাত্রী আততায়ীর হামলায় গুরুতরভাবে আহত হলেন৷ রবিবার হামবুর্গ শহরে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ইহুদি-বিদ্বেষের বিষয়টি আবার নতুন করে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে এসে পড়লো৷ 

বার্লিনবাসী ২৯ বছর বয়সি হামলাকারীর আসল উদ্দেশ্য নিয়ে জল্পনাকল্পনা চলছে৷ জঙ্গলে লড়াইয়ের সময়ে সৈন্যরা যেমন ক্যামোফ্লাজ পোশাক পরে, সেই ব্যক্তির পরনেও তেমন পোশাক ছিল৷ তার পকেটে একটি কাগজে নাৎসিদের স্বস্তিকা চিহ্নও পাওয়া গেছে৷ সেই ব্যক্তি কাজাক বংশোদ্ভূত জার্মান নাগরিক৷ গ্রেপ্তারের সময় অত্যন্ত বিভ্রান্ত থাকায় পুলিশ তাকে প্রাথমিক জেরা করতে পারেনি৷ একটি বেলচা দিয়ে সে ইহুদি ছাত্রীটির মাথায় আঘাত করে৷ তিনি পালিয়ে গিয়ে রক্ষা পেয়েছেন৷ পথচারীরা তাঁর প্রাথমিক চিকিৎসা দেবার পর তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷ তাঁর অবস্থা স্থিতিশীল বলে জানা গেছে৷ 

ঘটনাস্থলে উপস্থিত পুলিশ দ্রুত হামলাকারীকে গ্রেপ্তার করায় সম্ভবত আরও বড় আকারের হামলা এড়ানো সম্ভব হয়েছে বলে অনুমান করা হচ্ছে৷ রবিবার ইহুদি সম্প্রদায়ের সুকোট উৎসব পালিত হচ্ছিল৷ পুলিশের সূত্র অনুযায়ী, হামলাকারী সেই অনুষ্ঠানে যোগ দিতে সিনাগগের ভেতরে প্রবেশ করতে চেয়েছিল৷ বাইরে ইহুদি ছাত্রের উপর হামলার পরেই সিনাগগের ভেতরে উপস্থিত ব্যক্তিদের নিরাপদে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়৷ উল্লেখ্য, জার্মানিতে ইহুদি উপাসনালয়ের উপর একাধিক হামলার ঘটনার ফলে পুলিশ পাহারার ব্যবস্থা রয়েছে৷ 

এই ঘটনার পর জার্মানিতে সমালোচনার ঝড় উঠেছে৷ জার্মানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাইকো মাস এক টুইট বার্তায় ইহুদি বিদ্বেষের তীব্র নিন্দা করে লেখেন, এটি মোটেই বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়৷ গত মাসেই জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল জার্মানিতে বেড়ে চলা ইহুদি বিদ্বেষের জন্য লজ্জা প্রকাশ করেছিলেন৷ 


২০১৯ সালে জার্মানিতে মোট ২.০৩২টি ইহুদি বিদ্বেষের ঘটনা নথিভুক্ত হয়েছিল, যা তার আগের বছরের তুলনায় ১৩ শতাংশ বেশি৷ গত বছর ৯ই অক্টোবর হালে শহরে একটি সিনাগগের উপর মারাত্মক হামলা প্রতিহত করা সম্ভব হয়েছিল৷ ইহুদিদের সবচেয়ে পবিত্র উৎসব ইয়োম কিপুরের সময় এক ব্যক্তি সেখানে হামলার ষড়যন্ত্র করেছিল৷ হামলা চালাতে ব্যর্থ হয়ে সে গুলি চালিয়ে আশেপাশে দুই ব্যক্তিকে হত্যা করে৷ হামবুর্গে ইহুদি সম্প্রদায়ের স্থানীয় ধর্মীয় প্রধান শ্লোমো বিসত্রিৎকি বলেন, ‘‘প্রশ্ন হলো হালে থেকে আমরা কী শিখি নি! সবাই খুবই মর্মাহত৷’’

বিশ্ব ইহুদি কংগ্রেসের প্রধান রোনাল্ড লডার হামলার নিন্দা করে এক বছর আগে হালে শহরের হামলার কথাও স্মরণ করেন৷ তিনি বলেন, হামবুর্গের হামলাকারীসহ যে সব মানুষ ঘৃণা ও অসহিষ্ণুতা প্রকাশ করে থাকে, তারা সবাই এর জন্য দায়ী৷ 

এসবি/এসিবি (ডিপিএ, এএফপি)

গতবছর ১০ অক্টোবরের ছবিঘরটি দেখুন...

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন