জার্মানিতে আবার মহাজোট সরকার? | বিশ্ব | DW | 22.11.2017
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি

জার্মানিতে আবার মহাজোট সরকার?

নতুন নির্বাচনের বিকল্প হিসেবে জোট সরকার গঠন করতে রাজনৈতিক দলগুলিকে রাজি করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন জার্মান প্রেসিডেন্ট৷ এদিকে আবার মহাজোট সরকার গড়ার জন্য চাপ বাড়ছে এসপিডি দলের উপর৷

জার্মান প্রেসিডেন্ট ফ্রাংক-ভাল্টার স্টাইনমায়ার মঙ্গলবার সবুজ দল ও এফডিপি-র নেতাদের সঙ্গে পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেছেন৷ এবার তিনি এসপিডি ও বাভেরিয়ার সিএসইউ দলের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করবেন৷

‘জামাইকা' জোট গঠনের প্রাথমিক প্রচেষ্টা ব্যর্থ হবার পরেআবার নতুন করে আলোচনার সম্ভাবনা উড়িয়ে দিচ্ছেন না অনেক নেতা৷ সংবাদমাধ্যমের সামনে ম্যার্কেলের ইউনিয়ন শিবির ও সবুজ দলের নেতারা এই লক্ষ্যে আলোচনা চালিয়ে যাবার আগ্রহ দেখিয়েছেন৷ কিন্তু যে এফডিপি দল আলোচনা ভেঙে বেরিয়ে এসেছিল, তারা এ বিষয়ে কোনো আগ্রহ দেখাচ্ছে না৷ দলের শীর্ষ নেতা ক্রিস্টিয়ান লিন্ডনার সরাসরি চ্যান্সেলর ম্যার্কেলকে দায়ী করে বলেছেন, ‘জামাইকা' জোট সংক্রান্ত প্রাথমিক আলোচনায় তিনি এফডিপি দলের প্রতি প্রায় কোনো সমর্থন দেখান নি৷

এই অবস্থায় এসপিডি দলের উপর জোট গঠন সংক্রান্ত আলোচনা শুরু করার জন্য চাপ বাড়ছে৷ কারণ সংসদে একমাত্র ইউনিয়ন শিবিরের সঙ্গে এসপিডি-র আসনসংখ্যা যোগ করলে স্থিতিশীল সরকার গড়া সম্ভব৷ দলের মধ্যেও কয়েকজন নেতা এ বিষয়ে কিছু নমনীয় মনোভাব দেখাতে শুরু করেছেন৷ বিশেষ করে প্রেসিডেন্টের সঙ্গে আলোচনায় আপোশহীন মনোভাব না দেখানোর পক্ষে সওয়াল করছেন তাঁরা৷ তাছাড়া এই সুযোগে ইউনিয়ন শিবিরের কাছ থেকে বড় ছাড় আদায় করার কৌশলগত প্রচেষ্টার পক্ষেও সওয়াল করছে দলের একাংশ৷

জার্মানির বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতির প্রেক্ষাপটে বিভিন্ন জনমত সমীক্ষায় ভোটারদের মনোভাব উঠে আসছে৷ প্রায় অর্ধেক মানুষ নতুন নির্বাচনের পক্ষে রায় দিয়েছেন৷ তবে বর্তমান রাজনৈতিক অচলাবস্থা সত্ত্বেও জার্মানিতে কোনো অর্থনৈতিক অসুবিধার আশঙ্কা দেখছেন না প্রায় ৫৫ শতাংশ মানুষ৷

রাজনৈতিক দলগুলির প্রতি সমর্থনের ক্ষেত্রেও কিছুটা পরিবর্তন লক্ষ্য করা যাচ্ছে৷ ‘জামাইকা' জোট সংক্রান্ত আলোচনা ত্যাগ করা সত্ত্বেও সমর্থন হারায়নি উদারপন্থি এফডিপি দল৷ বরং তাদের প্রতি ভোটারদের সমর্থন সামান্য হলেও বেড়েছে৷ অন্যদিকে ম্যার্কেলের ইউনিয়ন শিবির বেশ কিছুটা সমর্থন হারিয়েছে৷

এসবি/ডিজি (ডিপিএ, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়