জার্মানিতে অর্থপাচার ও জঙ্গিবাদে অর্থায়ন রেকর্ড হারে বেড়েছে | বিশ্ব | DW | 21.08.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

জার্মানি

জার্মানিতে অর্থপাচার ও জঙ্গিবাদে অর্থায়ন রেকর্ড হারে বেড়েছে

জার্মানিতে অর্থ পাচার এবং সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে অর্থায়নের সন্দেহজনক ঘটনা ২০১৯ সালে ৫০ ভাগ বেড়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির অর্থ সংক্রান্ত গোয়েন্দা সংস্থা৷ তারা বলছে, আবাসন খাতে সবচেয়ে বেশি সন্দেহজনক অর্থ লেনদেন হয়েছে৷

জার্মানির অর্থপাচারবিরোধী কেন্দ্রীয় সংস্থা অর্থপাচার ও সন্ত্রাসবাদে অর্থায়নের ১ লাখ ১৪ হাজার ৯১৪টি ঘটনা নথিভুক্ত করেছে গত বছর, যা ২০১৮ সালের চেয়ে ৫০ ভাগ বেশি৷ মঙ্গলবার তাদের একটি প্রতিবেদনে এ তথ্য প্রকাশ করেছে বার্লিনের সংবাদপত্র টাগেসস্পিগেল৷ জার্মানির বিভিন্ন ব্যাংক এবং অন্যান্য আর্থিক প্রতিষ্ঠান, নোটারি ও আবাসন সংস্থার এজেন্টের কাছ থেকে পাওয়া গেছে এসব তথ্য৷ এসব ঘটনায় ৩ লাখ ৫৫ হাজার সন্দেহজনক অর্থ লেনদেন হয়েছে৷ ফিনেন্সিয়াল ইনটেলিজেন্স ইউনিটের প্রধান টাগেসস্পিগেলকে জানিয়েছেন, একটা সমস্যা হল জার্মানিতে অর্থ পাচারের মামলাগুলোর আইনি ফাঁকফোকর রয়েছে৷

অর্থপাচারের ৭৭ হাজার ঘটনার মধ্যে বেশিরভাগই আবাসন মার্কেটে৷ এই সমস্যা সমাধানে গত বছরের নভেম্বরে জার্মান আইনজীবীরা অর্থপাচার রোধে খসড়া আইন পাস করেন৷ আবাসন খাতে সন্দেহভাজন এজেন্টদের বিরুদ্ধে কড়াকড়ি ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলা হয়েছে ওই আইনে৷

আবাসন খাতের মাধ্যমে অর্থপাচারের কারণে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল জার্মান আইন সংস্কারের আহ্বান জানিয়েছিল ২০১৭ সালে৷ সেসময় তিন হাজার কোটি ইউরো অবৈধভাবে জার্মান আবাসন মার্কেটে ব্যবহার হয়েছিল বলে রিপোর্ট ছিলো তাদের কাছে৷ এসব বেশিরভাগ ঘটনার সঙ্গে জড়িত ইটালির মাফিয়া চক্রগুলো৷ তারা জার্মানিতে ভবন নির্মাণ, ভবন সংস্কার, বাড়ি কেনা, বিক্রি বা ভাড়া নেয়ার মাধ্যমে আবাসন খাতে অর্থ বিনিয়োগ করে৷

২০১৭ সালের মে মাসের ছবিঘরটি দেখুন...

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন