জাতিসংঘের বর্ণবৈষম্য বিরোধী সম্মেলনে অংশ নিচ্ছে না জার্মানি | বিশ্ব | DW | 20.04.2009
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

জাতিসংঘের বর্ণবৈষম্য বিরোধী সম্মেলনে অংশ নিচ্ছে না জার্মানি

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও নেদারল্যান্ডসের পর, এবার জার্মানিও জাতিসংঘের বর্ণবৈষম্য বিরোধী সম্মেলনে অংশ নেবে না বলে জানিয়েছে৷ বার্লিনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তরফ থেকে জানা গেছে এ তথ্য৷

জেনেভায় শুরু হচ্ছে বর্ণবাদ বিষয়ক সম্মেলন

জেনেভায় শুরু হচ্ছে বর্ণবাদ বিষয়ক সম্মেলন

জার্মানির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, সম্মেলনের ঘোষণাপত্রের খসড়ায় এখনো এমন কিছু অংশ রয়েছে, যাতে একতরফাভাবে ইসরায়েলের সমালোচনা করা হয়েছে৷ প্রসঙ্গত, খসড়া ঘোষণাপত্রের ভাষা আপত্তিজনক অভিযোগ করে যুক্তরাষ্ট্র এই বর্ণবাদ বিষয়ক সম্মেলন বর্জনের ঘোষণা দেওয়ার পর, রবিবার অস্ট্রেলিয়া এবং নেদারল্যান্ডসও জাতিসংঘের এই সম্মেলনটি বয়কটের ঘোষণা করে৷ তাদের ধারণা, এবারের সম্মেলনটিও ২০০১ সালের মতো ইসরায়েলের অন্যায় সমালোচনার প্লাটফর্ম হিসাবে ব্যবহৃত হতে পারে৷ এছাড়া, মুসলিম দেশগুলি 'ধর্মীয় উস্কানি' এবং 'ধর্মের মানহানি' নিষিদ্ধ করার লক্ষ্যে জাতিসংঘের এই ফোরামকে কাজে লাগাতে পারে বলে উদ্বেগ প্রকাশ করেন ডাচ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ম্যাক্সিম ভেরাগেন৷

অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী স্টিফেন স্মিথ এক বিবৃতিতে ইসরায়েল কিংবা মধ্যপ্রাচ্যের কথা উল্লেখ না করেই বলেন, এই সম্মেলন যে আবারও আক্রমণাত্মক দৃষ্টিভঙ্গির প্লাটফর্ম হিসাবে ব্যবহৃত হবে না - সে ব্যাপারে অস্ট্রেলিয়া আস্থাশীল নয়৷

Rassismus Konferenz in Genf

ইসরায়েল সম্মেলনে অংশ নিচ্ছে না - এই ফিলিস্তিনি মহিলাটির ধরা কাগজটিও বলছে সেই কথা

মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রবার্ট উড জানান, যে অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গেই যুক্তরাষ্ট্রকে এই পর্যালোচনা সম্মেলনে যোগ দেওয়া থেকে বিরত থাকতে হচ্ছে৷ তাঁর কথায়, সম্মেলনের নথিতে তাৎপর্যপূর্ণ অগ্রগতি এলেও, ঘোষণায় এখনও ডারবানে যুক্তরাষ্ট্রের যে যে আপত্তি ছিল - সেগুলি বহুলাংশেই রয়ে গেছে৷ এছাড়া, নতুন সংযোজিত কিছু শব্দও বাক স্বাধীনতার মার্কিন অঙ্গীকারের পরিপন্থি৷ দৃশ্যত, মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে বারাক ওবামার ক্ষমতা গ্রহণের তিনমাস পরেই জাতিসংঘের বর্ণবৈষম্য বিষয়ক সম্মেলনটি বর্জনের ঘোষণা দিল দেশটি৷ কানাডাও এ সম্মেলন বর্জনের ঘোষণা দিয়েছে ইতিমধ্যে৷

উল্লেখ্য, ৮ বছর আগে ২০০১ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার ডারবান শহরে বর্ণবৈষম্য বিরোধী প্রথম সম্মেলন ইহুদি বিদ্বেষের অভিযোগের ফলে প্রবল বিতর্কের মুখে পড়ে৷ তাই সেসময় কোনো রকম মতৈক্য ছাড়াই শেষ হয়েছিল ঐ সম্মেলন৷ ডারবানে আরব দেশগুলি ইহুদিবাদকে বর্ণবাদ হিসেবে আখ্যার চেষ্টা করলে, যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরায়েল সম্মেলন থেকে বেরিয়ে যায়৷

এদিকে, ইউরোপীয় ইউনিয়নের বর্তমান সভাপতি দেশ চেক প্রজাতন্ত্র জানিয়েছে, যে জার্মানি ও হল্যান্ড না নিলেও, ই.ইউ.-ভুক্ত অন্যান্য দেশ - যেমন ফ্রান্স এবং সুইৎজারল্যান্ড সম্মেলনে অংশ নেবে৷ দৃশ্যত, সোমবার থেকে জেনিভায় ঐ সম্মেলন শুরু হচ্ছে৷ ইসরায়েল আগেই সম্মেলনে অংশ নেবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন