জজ মিয়ার কথা | বিশ্ব | DW | 21.08.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

জজ মিয়ার কথা

২০০৪ সালের ২১ আগস্ট বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামী লীগের সমাবেশে গ্রেনেড হামলার ঘটনাকে ভিন্ন খাতে নিতে চেয়েছিল বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার৷ তারই অংশ হিসেবে সাজানো হয়েছিল ‘জজ মিয়া নাটক'৷

নোয়াখালীর সেনবাগের  জজ মিয়ার পুরো নাম জালাল আহমেদ৷ তখন তিনি মতিঝিলের শাপলা চত্বর এলাকায় হকারের কাজ করতেন৷ গ্রেনেড হামলার দিন তিনি গ্রামের বাড়িতে ছিলেন৷ ২০০৫ সালের ৯ জুন গ্রামের বাড়ি থেকে সিআইডির সদস্যরা তাকে আটক করে ঢাকায় নিয়ে আসেন৷ তারা গ্রেনেড হামলায় তাকে জড়িত দেখিয়ে  ক্রসফায়ারের ভয় দেখিয়ে স্বীকারোক্তি আদায় করে৷ আর তাতে আওয়ামী লীগের পরিকল্পনায়ই আওয়ামী লীগের সমাবেশে হামলার কথিত জবাবন্দি দিতে তাকে বাধ্য করে সিআইডি৷ জজ মিয়া জানিয়েছেন তাকে পুরো জবানবন্দি সিআইডির তদন্ত কর্মকর্তারা শিখিয়ে দেয়৷

ডয়চে ভেলের ফেসবুক লাইভে জজ মিয়ার বলা কথা শুনতে ক্লিক করুন এখানে৷

জজ মিয়া দীর্ঘদিন জেলে ছিলেন৷ ওয়ান ইলেভেনের তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় তদন্তে আসল ঘটনা প্রকাশ পেলে ছাড়া পান জজ মিয়া৷ জানা যায় বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের ছত্রছায়ায় জঙ্গিদের গ্রেনেড হামলার মূল কাহিনী৷ তখনকার বিরোধী দলীয় নেতা এবং বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যেই ওই হামলা চালানো হয়েছিল। শেখ হাসিনা প্রাণে বেঁচে গেলেও নিহত হন ২৪ জন৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন