জঙ্গি কয়েদিদের শ্রেণিবিন্যাস করার উদ্যোগ | বিশ্ব | DW | 05.04.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বাংলাদেশ

জঙ্গি কয়েদিদের শ্রেণিবিন্যাস করার উদ্যোগ

কারাগারে থাকা ৫৭৭ জঙ্গিকে তাদের এখনকার সক্রিয়তার ভিত্তিতে আলাদা করা হচ্ছে৷ কারাগারে থেকেও অনেক জঙ্গি উগ্র মতাদর্শের তৎপরতা চালাচ্ছে বলে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনির সতর্কতার পর কারাগার কর্তৃপক্ষ এ পরিকল্পনার কথা জানিয়েছে৷

সক্রিয়তার উপর ভিত্তি করে কারাগারে থাকা ৫৭৭ জঙ্গির শ্রেণিবিন্যাসের উদ্যোগ নিয়েছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনি৷ কারাগার কর্তৃপক্ষ বলছে, নিজেদের আদর্শে উদ্বুদ্ধ করতে এ সব জঙ্গিদের কেউ কেউ এখনো পুরোমাত্রায় সক্রিয় রয়েছেন৷

পুলিশ সদর দপ্তরের এক কর্মকর্তা বাংলাদেশের অনলাইন পত্রিকা ঢাকা ট্রিবিউনকে জানান, বিভিন্ন ঘটনা ও মামলায় গ্রেপ্তার হওয়া জঙ্গিরা কারাগারে থেকেও তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে বলে তাদের কাছে গোয়েন্দা তথ্য রয়েছে৷ এ ব্যাপারে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, কারা কর্তৃপক্ষ এবং সংশ্লিষ্ট সবাইকে জানানো হয়েছে৷ কারা কর্তৃপক্ষ সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবে বলে আশ্বস্ত করেছে৷

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে কারা মহাপরিদর্শক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দিন ওই পত্রিকাকে বলেন, ‘‘কারাগারে বর্তমানে বিভিন্ন পর্যায়ের ৫৭৭ জঙ্গি বন্দি আছে৷ সংগঠনভিত্তিক বন্দি জঙ্গিদের ক্লাসিফাইড করার চেষ্টা চলছে৷ একইসঙ্গে বেশি র‌্যাডিকালাইজড জঙ্গিদের কাছ থেকে তুলনামূলক কম র‌্যাডিকালাইজডদের আলাদা করার কাজও এগিয়ে নিচ্ছি আমরা৷''

আটক জঙ্গিদের উগ্রপন্থা থেকে ফিরিয়ে আনতে কারাগার পুলিশ ‘প্রাথমিক পর্যায়ে' রয়েছেন বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘‘তাদেরকে জঙ্গিবাদ থেকে ফিরিয়ে আনার প্রক্রিয়ায়  আমরা প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছি৷

জঙ্গিরা একটা আদর্শে বিশ্বাস করে৷ সেখান থেকে তাদের সরিয়ে নিতে আমাদের আরও বেশি জানতে হবে৷ ইতিমধ্যে আমাদের ২০ জন কর্মকর্তাকে আমেরিকান দূতাবাসের সহায়তায় ডির‌্যাডিকালাইজেশন বিষয়ক প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে৷''

এছাড়া সরকারি একটি সংস্থার তত্ত্বাবধানে আরও ২০ জন কারা কর্মকর্তাকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হলেও সেগুলো প্রয়োগ করতে সময় লাগবে বলেও জানিয়েছেন ইফতেখার উদ্দিন৷

জামাতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশ (জেএমবি), নব্য জেএমবি, আনসারুল্লাহ বাংলা টিম (এবিটি), আনসার আল ইসলাম, হিযবুত তাহরির, হিযবুত তাওহীদ ও হরকাতুল জিহাদ বাংলাদেশসহ (হুজিবি) বিভিন্ন জঙ্গি সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের পাঁচশ'রও বেশি জঙ্গি কারাগারে বন্দি আছে৷

জঙ্গি তৎপরতার জন্য আটকদের অন্য বন্দিদের থেকে আলাদা করে রাখা হয় বলে এর আগে কারা প্রধান ইফতেখার এ বছরের শুরুতে একটি আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছিলেন৷

তখন তিনি জানিয়েছিলেন, একই সাথে একটি জঙ্গি সংগঠনের সাথে জড়িত কয়েদিদেরও একই ধরনের অন্য সংগঠনের কয়েদিদের থেকে আলাদা রাখা হয়, যাতে তারা কারাগারের ভেতরে বসে নিজেদের মধ্যে নেটওয়ার্ক তৈরি না করতে পারে৷

এইচআই/ডিজি

এই উদ্যোগকে কি আপনি স্বাগত জানাবেন? লিখুন আপনার মন্তব্য, নীচের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন