ছেলেদের জন্য চারশ খেলা, মেয়েদের নিয়ে চুপ তালেবান | বিশ্ব | DW | 15.09.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

আফগানিস্তান

ছেলেদের জন্য চারশ খেলা, মেয়েদের নিয়ে চুপ তালেবান

আফগানিস্তানে ছেলেরা চারশর মতো খেলায় অংশ নিতে পারবেন। জানিয়ে দিল তালেবান। কিন্তু মেয়েদের নিয়ে চুপ তারা।

আফগনস্তানে ক্রিকেট সহ চারশ খেলা খেলতে পারবেন পুরুষরা।

আফগনস্তানে ক্রিকেট সহ চারশ খেলা খেলতে পারবেন পুরুষরা।

সাঁতার থেকে ফুটবল, অশ্বারোহন থেকে ক্রিকেট, আফগনিস্তানে সব খেলাই খেলতে পারবে পুরুষরা। তালেবান জানিয়ে দিয়েছে, পুরুষরা চারশর মতো খেলায় অংশ নিতে পারবেন। কোনো বাধা নেই। কিন্তু মেয়েরা? ডিরেক্টর জেনারেল অফ স্পোর্টস বসির আহমেদ রুস্তমজাই সংবাদসংস্থা এএফপি-কে বলেছেন, ''মেয়েদের খেলার ব্যাপারে আমাকে দয়া করে প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করবেন না।''

তিনি নিজে আগে আফগানিস্তানের কুংফু ও কুস্তি চ্যাম্পিয়ন ছিলেন। কিন্তু মেয়েদের খেলা নিয়ে তিনি চুপ থাকাই শ্রেয় মনে করেছেন। এব্যাপারে যাবতীয় প্রশ্ন তিনি এড়িয়ে গিয়েছেন।

ছেলেদের খেলায় বাধা নেই

রুস্তমজাই বলেছেন, ''ছেলেদের খেলার ক্ষেত্রে কোনো বাধা নেই। তারা যে কোনো খেলাতেই অংশ নিতে পারে। আমরা কোনো খেলাকেই নিষিদ্ধ ঘোষণা করব না। যদি না সেটা শরিয়া আইনের বিরোধী হয়। আমরা চারশ ধরনের খেলাধুলো অনুমোদন করি।''

তিনি জানিয়েছেন, ফুটবলারদের বা থাই বক্সিং যারা করবেন, তাদের একটু বড় ঝুলের শর্টস পরলেই হবে। শর্টস হাঁটুর নীচে পর্যন্ত থাকলেই হলো।

ভিডিও দেখুন 01:15

তরুণ আফগানদের উৎসাহ জোগাচ্ছে ক্রিকেট বিশ্বকাপ

মেয়েদের খেলা নিয়ে বারবার প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ''আমি সর্বোচ্চ তালেবান নেতাদর রায়ের অপেক্ষায় আছি।''

তার এক পরামর্শদাতা বলেছেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে ছেলেদের মতো মেয়েরা সব খেলায় অংশ নেবে, এটা ভাবা যায় না। তবে অল্প কিছু খেলায় মেয়েরা আলাদাভাবে অংশ নিতেও পারে। তবে রুস্তমজাই তার পরামর্শদাতার এই বক্তব্য সমর্থন করেননি।

নতুন আইনে বলা হয়েছে, বিশ্ববিদ্যালয়ে মেয়েরা পড়তে পারবে, তবে ছেলেদের থেকে সম্পূর্ণভাবে আলাদা হয়ে। তবে তাদের আবায়া ও নাকাব পরতে হবে।

মেয়েদের খেলা নিয়ে

এখনো পর্যন্ত আফগানিস্তানে মেয়েরা কোনো খেলাতে অংশ নিতে পারবেন কি না, তা বলা যাচ্ছে না।

গত সপ্তাহে তালেবানের সাংস্কৃতিক কমিশনের উপ প্রধান আহমদুল্লাহ .ওয়াসিক বলেছেন, ''মেয়েদের জন্য খেলা জরুরি নয়। ক্রিকেট খেলতে হলে, তাদের মুখ ও সারা শরীর ঢেকে রাখা সম্ভব নয়।''  

তবে মেয়েদের ক্রিকেট খেলা নিয়ে তালেবানের উপর চাপ বাড়ছে। কারণ, আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে বিধি হলো, প্রতিটি দেশ যারা পুরুষদের ক্রিকেট খেলে, তাদের মেয়েদের দলও বাধ্যতামূলকভাবে রাখতে হবে।  তাদের টেস্ট ম্যাচ খেলতে হবে। আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের প্রেসিডেন্ট আজিজুল্লাহ ফজলি বলেছেন, মেয়েদের ক্রিকেট খেলার ব্যাপারে তিনি এখনো আশাবাদী।

কিন্তু রুস্তমজাই জানিয়ে দিয়েছেন, ''এই বিষয়ে তালেবান শীর্ষ নেতাদের সিদ্ধান্তই শেষ কথা বলবে। তারা যদি বলেন, আমরা মেয়েদের খেলার অনুমতি দিতে পারি, তা হলে দেব। তারা যদি নিষেধ করেন, তাহলে মেয়েরা খেলতে পারবেন না।''

জিএইচ/এসজি(এএফপি)