চুরি করা শিল্পকর্ম ফিরিয়ে নিতে ঐক্য চাই আফ্রিকায় | বিশ্ব | DW | 22.12.2020

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

সংবাদভাষ্য

চুরি করা শিল্পকর্ম ফিরিয়ে নিতে ঐক্য চাই আফ্রিকায়

দুই বছর আগের এক গবেষণা বলছে, উপনিবেশ আমলে আফ্রিকার ৯০ ভাগ শিল্পকর্মই লুটে নেয়া হয়েছিল৷ শিল্পকর্মগুলো ফেরত দেবার দাবি উঠছে৷ ডয়চে ভেলের হ্যারিসন মভিলিমা মনে করেন, ফেরত পেতে হলে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে আফ্রিকাকে৷

শিল্পকর্মগুলো আফ্রিকা থেকে কিভাবে এলো তা এখনো অজানা৷

শিল্পকর্মগুলো আফ্রিকা থেকে কিভাবে এলো তা এখনো অজানা৷

গত সপ্তাহে হুমবোল্ট ফোরাম মিউজিয়ামের উদ্বোধন হলো জার্মানির রাজধানী বার্লিনে৷ বিশাল এক কমপ্লেক্সে গড়ে তোলা জাদুঘরটিতে আফ্রিকার ৭৫ হাজারের মতো শিল্পকর্ম রয়েছে৷ শিল্পকর্মগুলো আফ্রিকা থেকে কিভাবে এলো তা এখনো অজানা৷

জানা যায়, ১৮৯৭ সালে ব্রিটিশ সেনাবাহিনী কয়েক হাজার শিল্পকর্ম লুটে নিয়েছিল কিংডম অব বেনিন (এখন নাইজেরিয়া) থেকে৷ ২০০ শিল্পকর্ম স্থান পায় লন্ডনের ব্রিটিশ মিউজিয়ামে, বাকিগুলো চলে যায় জার্মানিসহ পাশ্চাত্যের বিভিন্ন দেশে৷

২০২১ সালের তৃতীয়াংশে আফ্রিকার শিল্পকর্মের প্রদর্শন শুরু করবে হুমবোল্ট ফোরাম৷ গত সপ্তাহে ফোরামের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়েছে৷ তখন লুটের শিল্পকর্ম প্রদর্শনে জাদুঘরের ভূমিকার সমালোচনাও করেছেন কয়েকজন বক্তা৷ ব্যস ওইটুকুই৷ তারপর খুব দ্রুতই যেন শেষ হয়ে গেল আলোচনা৷ বেশ কিছু অধ্যায় লেখার আগেই একটা বই শেষ করে দেয়ার মতো ছিল ব্যাপারটা৷

চুরি করা শিল্পকর্ম ফেরত দেয়ার দাবি

হুমবোল্ট ফোরামের উদ্বোধনের দুই সপ্তাহ আগে জার্মানিতে নাইজেরিয়ার রাষ্ট্রদূত ইউসুফ টুগার বেনিন ব্রোঞ্জের তৈরি শিল্পকর্মগুলো ফেরত চেয়ে জার্মান সরকারের কাছে চিঠি লিখেছেন৷ এটি তার দ্বিতীয় চিঠি৷ টুগার জানিয়েছেন, প্রথম চিঠিটি লিখেছিলেন ২০১৯ সালের আগস্ট মাসে, কিন্তু জার্মান সরকারের তরফ থেকে এখনো কোনো সাড়া পাননি৷

হুমবোল্ট ফোরাম মিউজিয়ামে আফ্রিকার ৭৫ হাজারের মতো শিল্পকর্ম রয়েছে৷

হুমবোল্ট ফোরাম মিউজিয়ামে আফ্রিকার ৭৫ হাজারের মতো শিল্পকর্ম রয়েছে৷

আফ্রিকার আরো কয়েকটি দেশ আনুষ্ঠানিকভাবে উপনিবেশ আমলে চুরি করে আনা শিল্পকর্ম ফেরত চেয়েছে৷

ফেরত পাওয়ার নজিরও আছে৷

২০১৭ সালের এক অনুরোধের প্রেক্ষিতে গত বছর নামিবিয়াকে ৫০০ বছর আগের পাথরের তৈরি একটা ক্রস ফেরত দিয়েছে জার্মানি৷

ব্রিটেনের কাছ থেকে প্রাচীন শিল্পকর্ম ফেরত চেয়েছে ইথিওপিয়া৷ কয়েক দফা চেয়েও এখনো অবশ্য কোনো কাজ হয়নি৷ ওদিকে বেনিন, সেনেগাল আর আইভরি কোস্ট সরকার উপনিবেশ আমলে খোয়া যাওয়া শিল্পকর্ম ফেরত চেয়েছে ফ্রান্সের কাছে৷

বেশিরভাগ অনুরোধে দৃশ্যত কানই দেয়া হয়নি৷

সাবেক উপনিবেশিক প্রভুরা উন্নয়ন সহায়তা বন্ধ করে দিতে পারে- এই আশঙ্কায় আফ্রিকার বাকি দেশগুলো চুরি করে নিয়ে যাওয়া শিল্পকর্ম এখনো ফেরত চায়নি৷

তাই সেসব দেশে শুধু এনজিও, অ্যাক্টিভিস্ট বা অন্য কোনো ব্যক্তি পর্যায় থেকেই শুধু এমন দাবি উঠতে দেখা যাচ্ছে৷

কিন্তু শিল্পকর্মগুলো ফেরত পেতে হলে ঐক্যবদ্ধ হতেই হবে আফ্রিকাকে৷

হ্যারিসন মভিলিমা/এসিবি

সংশ্লিষ্ট বিষয়