1. কন্টেন্টে যান
  2. মূল মেন্যুতে যান
  3. আরো ডয়চে ভেলে সাইটে যান
Libanon | Libanesische Streitkräfte
ছবি: Ahmed Saleh/AA/picture alliance
সমাজলেবানন

চুরি করা বার্লি নিয়ে লেবাননে সিরীয় জাহাজ!

২৯ জুলাই ২০২২

যুক্তরাষ্ট্র অনুমোদিত একটি সিরীয় জাহাজ উত্তর লেবাননের ত্রিপোলি বন্দরে নোঙর ফেলেছে৷ অনেক বার্লি এবং গম রয়েছে জাহাজটিতে৷ বৈরুতে ইউক্রেনীয় দূতাবাস বৃহস্পতিবার জানিয়েছে, ইউক্রেনের গুদাম থেকে রাশিয়া এসব লুট করে এনেছে৷

https://p.dw.com/p/4Et89

শিপিং ডেটা ওয়েবসাইট মেরিন ট্র্যাফিক জানিয়েছে, বুধবার ত্রিপোলিতে নোঙর ফেলে লাওডিসিয়া নামের এই জাহাজটি৷

বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে ইউক্রেনীয় দূতাবাস জানিয়েছে, জাহাজটি ক্রিমিয়া বন্দর থেকে যাত্রা শুরু করেছে এটিতে আন্তর্জাতিক নৌ চলাচল বন্ধ৷ জাহাজে পাঁচ হাজার টন বার্লি এবং পাঁচ হাজার টন ময়দা রয়েছে৷ আমাদের সন্দেহ, ইউক্রেনের গুদাম থেকে এগুলি নেয়া হয়েছিল৷

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, এই প্রথম চুরি করা শস্য ও আটার চালান লেবাননে পৌঁছেছে৷ বৈরুতে রুশ দূতাবাস বলেছে, সিরিয়ার জাহাজ বা বেসরকারি কোম্পানিচালিত পণ্যবাহী জাহাজ লেবাননে পৌঁছানো নিয়ে কোনো তথ্য তাদের কাছে নেই৷

এর আগেও ইউক্রেন শস্য চুরির অভিযোগ এনেছিল রাশিয়ার বিরুদ্ধে৷ সেগুলি অস্বীকার করেছিল রাশিয়া৷

কোম্পানির কর্মকর্তা জানান, জাহাজ থেকে জিনিস নামানো হয়নি৷ লেবাননের শুল্ক বিভাগ এখনো আমদানি সংক্রান্ত কাগজ দেয়নি৷ইউক্রেনের কাছ থেকে রাশিয়া এই বিপুল পরিমাণ বার্লি চুরি করেছে,এ অভিযোগ পাওয়ার পর সবদিক খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷ যদিও শুল্কবিভাগ রয়টার্সকে নথি দেখাতে অস্বীকার করেছে৷

শুল্ক বিভাগের কর্মকর্তা এবং বন্দরের সূত্র রয়টার্সকে জানিয়েছে, চুরির অভিযোগের কারণে বৃহস্পতিবার জাহাজটি থেকে পণ্য নামানো হয়নি৷ শুক্রবার পর্যন্ত এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করেনি লেবাননের শুল্ক বিভাগ৷

কোম্পানির কর্মকর্তা জানান,  জাহাজটিতে প্রাথমিকভাবে প্রায় আট হাজার টন ময়দা এবং এক হাজার ৭০০ টন বার্লি ছিল৷

সিরিয়ার যাওয়ার কথা ছিল জাহাজটির৷ কিন্তু কোম্পানি পাঁচ হাজার টন ময়দা লেবাননে নামানোর সিদ্ধান্ত নেয়৷ তিন বছরেরও বেশি সময় ধরে অর্থনৈতিক সংকটে ভুছে লেবানন৷ রুটির ঘাটতিও রয়েছে৷

বন্দরের এক কর্মী বলেন, জাহাজটির বাকি পণ্য সিরিয়ায় নামানোর কথা ছিল৷ লেবাননে প্রতি টন আটা ৫৯ হাজার থেকে ৬১ হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে৷ সিরিয়ায় এক টন আটার দাম প্রায় ৫৬ হাজার টাকা৷ লেবাননের বেকারিগুলিতে এই সপ্তাহে মারাত্মক ভিড় দেখা গেছে৷ বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির মতে, লেবাননের অর্ধেক মানুষের কোনো খাদ্য নিরাপত্তা নেই৷

লেবানন বেশিরভাগ গম আমদানি করত ইউক্রেন থেকে কিন্তু রুশ আগ্রাসনের ফলে ওই চালানগুলো ব্যাহত হয়েছে৷

কৃষ্ণসাগরের মূল বন্দরগুলিতে আমদানি-রপ্তানি বন্ধই রয়েছে বলা চলে ৷ ইউক্রেনের দূতাবাস এবং লেবাননের মিলস অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান জানিয়েছেন, জুলাইয়ের মাঝামাঝি সময় থেকে নতুনভাবে লেবাননে গম রপ্তানি শুরু করেছে ইউক্রেন৷

আরকেসি/এসিবি (রয়টার্স)

স্কিপ নেক্সট সেকশন এই বিষয়ে আরো তথ্য

এই বিষয়ে আরো তথ্য

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

Kongo | Gedenken an die Zivilisten in Goma

কঙ্গোতে নিহতের সংখ্যা ২৭০ ছাড়িয়েছে

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

প্রথম পাতায় যান