চীনের বিনিয়োগে ইইউ-র নিষেধাজ্ঞা | বিশ্ব | DW | 21.05.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ইউরোপীয় ইউনিয়ন

চীনের বিনিয়োগে ইইউ-র নিষেধাজ্ঞা

ইউরোপীয় ইউনিয়নের কর্মকর্তাদের উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা না তুললে ইউরোপে চীন বিনিয়োগ করতে পারবে না। সিদ্ধান্ত ইইউ-র বৈঠকে।

আলোচনা চলছিল। বৃহস্পতিবার কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলল ইউরোপীয় ইউনিয়ন। ইইউ-র কর্মকর্তাদের উপর থেকে চীন নিষেধাজ্ঞা না তুললে চীনের সঙ্গে যে বিনিয়োগ চুক্তি হয়েছে, তা কার্যকর হবে না। চীনের বিনিয়োগে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হলো।

২০২০ সালের ডিসেম্বর মাসে চীনের সঙ্গে ঐতিহাসিক চুক্তি হয়েছিল ইইউ-র। ঠিক হয়েছিল, ইউরোপের বিভিন্ন দেশে চীন বিনিয়োগ করতে পারবে। প্রায় সাত বছর ধরে এই চুক্তিটি নিয়ে চীন এবং ইইউ-র মধ্যে আলোচনা হয়েছে। শেষপর্যন্ত ২০২০ সালের ডিসেম্বর মাসে দুই পক্ষ ঐতিহাসিক সিদ্ধান্তে পৌঁছায়।

২০২১ সালের মার্চ মাসে চীনের সঙ্গে সম্পর্ক খারাপ হয় ইইউ-র। উইঘুর মুসলিমদের সঙ্গে চীনের আচরণ নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়। মানবাধিকার লঙ্ঘন হচ্ছে, এই অভিযোগে চীনের চার কূটনীতিকের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে ইইউ। চীনও পাল্টা ইইউ-র একাধিক কূটনীতিক, গবেষক, স্কলারের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে।

বৃহস্পতিবারের বৈঠকে সে প্রসঙ্গটিই সামনে আসে। সিদ্ধান্ত হয়, চীন নিষেধাজ্ঞা না তুললে বিনিয়োগ করতে দেওয়া হবে না। তবে বৈঠকে জার্মানি চীনের বিনিয়োগের পক্ষে ছিল। চীনের সঙ্গে চুক্তিতে গুরুত্বপূর্ণ অবস্থান নিয়েছিল জার্মানি। ইউরোপে জার্মানি চীনের সব চেয়ে বড় বাজার।

এসজি/জিএইচ (রয়টার্স, এপি, এএফপি)