চার বছরেও রেইনট্রি হোটেলে ধর্ষণের রায় হয়নি | বিশ্ব | DW | 12.10.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

চার বছরেও রেইনট্রি হোটেলে ধর্ষণের রায় হয়নি

ঢাকার রেইনট্রি হোটেলে চার বছর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়৷ আলোচিত মামলাটির রায় ঘোষণার তারিখ মঙ্গলবার থাকলেও তা পিছিয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী৷

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

ট্রাইবুনালের পিপি আফরোজা ফারহানা আহমেদ অরেঞ্জ ডয়চে ভেলের কন্টেন্ট পার্টনার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘‘ ২ নম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালের বিচারক মোছা. কামরুন্নাহার ছুটিতে আছেন, রায় প্রস্তুত হয়নি৷ রায়ের তারিখ পরে জানিয়ে দেওয়া হবে৷''

২০১৭ সালের ২৮ মার্চ বনানীর রেইনট্রি হোটেলে আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদের ছেলে সাফাতের জন্মদিনের অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানিয়ে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয় বলে মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে৷ ধর্ষিতা দুই তরুণীর অভিযোগ, ওই হোটেলে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে রাতভর আটকে রেখে সাফাত ও নাঈম তাদের ধর্ষণ করেন৷ অন্য আসামিরা তাদের সহায়তা করেন৷ 

বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রীকে ধর্ষণের আলোচিত মামলার আসামি পাঁচজনের মধ্যে রয়েছেন আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদের ছেলে সাফাত আহমেদ, তার বন্ধু সাদমান সাকিফ ও নাঈম আশরাফ ওরফে এইচএম হালিম, সাফাতের দেহরক্ষী রহমত আলী ও গাড়িচালক বিল্লাল৷ আসামিদের জামিন বাতিল করে তাদের কারাগারে পাঠানো হয় ৩ অক্টোবর৷ রাষ্ট্রপক্ষে মোট ২২ জনের সাক্ষ্য নেওয়ার পর চার বছর আগের এই মামলাটি রায়ের পর্যায়ে আসে৷

ধর্ষণের  মামলাটি করার কয়েকদিনের মধ্যে সিলেট থেকে ১১ মে সাফাতকে গ্রেপ্তার করা হয়৷ গ্রেপ্তার হন অন্য আসামিরাও৷ এই ধর্ষণের ঘটনায় তুমুল আলোচনার মধ্যে আপন জুয়েলার্সের বিভিন্ন শাখায় শুল্ক গোয়েন্দাদের অভিযান শুরু হয় এবং বেআইনি সোনা পাওয়ায় দিলদারের বিরুদ্ধে মামলা হয়৷

আসামি পক্ষের আইনজীবীদের মতে, ধর্ষণের মামলাটি সাফাতের সাবেক স্ত্রী ফারিয়া মাহবুব পিয়াসার ইন্ধনে হয়েছে৷ মামলা হওয়ার কয়েক মাস আগে সাফাতের সঙ্গে পিয়াসার বিচ্ছেদ হয়৷ মামলা হয় পিয়াসা এবং তার সাবেক শ্বশুর দিলদারের মধ্যেও৷

সাফাতের সাবেক স্ত্রী পিয়াসা সম্প্রতি মাদকের মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে এখন কারাগারে৷

এনএস/কেএম (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)  

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়