চাপের মুখে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের গ্রহণ ইন্দোনেশিয়ার | বিশ্ব | DW | 30.12.2021

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ইন্দোনেশিয়া

চাপের মুখে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের গ্রহণ ইন্দোনেশিয়ার

২৮ দিন ধরে ইন্দোনেশিয়ার সমুদ্রে ছিলেন ওই শরণার্থীরা। বহু শিশু ও নারী আছেন সেখানে।

বুধবার জাকার্তা জানিয়েছে, সমুদ্রে আটকে থাকা ১২০ জন রোহিঙ্গা শরণার্থীকে গ্রহণ করবে ইন্দোনেশিয়া। তাদের মূল ভূখণ্ডে থাকতে দেওয়া হবে। এর আগে তাদের নিতে চায়নি ইন্দোনেশিয়ার সরকার। সমুদ্রেই তাদের খাবার, পোশাক এবং জল দিয়ে দায় এড়াতে চাইছিল তারা। কিন্তু আন্তর্জাতিক এবং দেশের ভিতরে একাধিক এনজিও চাপ সৃষ্টি করার পর শরণার্থীদের গ্রহণ করতে বাধ্য হয়েছে সরকার।

দিনকয়েক আগে মাছ ধরতে গিয়ে সমুদ্রে একটি নৌকা দেখতে পান ইন্দোনেশিয়ার জেলেরা। নৌকাটির কাছে গিয়ে তারা দেখেন, তার মধ্যে বহু মানুষ বসে আছেন। যার অধিকাংশই নারী এবং শিশু। জেলেদেরা জানান, নৌকার ব্যক্তিদের শারীরিকভাবে দুর্বল বলে মনে হচ্ছিল। তারা ওই জেলেদের জানান, মিয়ানমার থেকে ২৮ দিন আগে তারা নৌকা নিয়ে পালিয়েছেন। জেলেরা ওই শরণার্থীদের ভিডিয়ো তোলেন। পরে যা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়।

ওই ভিডিও দেখে একদিকে সরকার এবং অন্যদিকে মানবাধিকার সংগঠনগুলি নড়েচড়ে বসে। সরকার জানিয়ে দেয়, ওই শরণার্থীদের খাবার, পোশাক এবং জল দিয়ে সাহায্য করা হবে। তাদের আন্তর্জাতিক সীমান্তও দেখিয়ে দেওয়া হবে। ইন্দোনেশিয়ায় তাদের জায়গা দেওয়া হবে না। কিন্তু অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল সহ দেশ এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ের একাধিক এনজিও এর বিরোধিতা করে। অবলিম্বে ওই শরণার্থাীদের দেশে জায়গা জায়গা করে দেওয়ার কথা বলা হয়। চাপের মুখে শেষপর্যন্ত জাকার্তা তা মেনে নেয়।

বৃহস্পতিবারই ওই শরণার্থীদের মূল ভূখণ্ডে নিয়ে আসা হয়েছে। রোহিঙ্গারা জানিয়েছেন, নৌকাতে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে।

এসজি/জিএইচ (রয়টার্স, এপি)