চরম ইসলামপন্থিদের হামলায় নিহত শিক্ষক ‘শহিদ’ | বিশ্ব | DW | 21.10.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ফ্রান্স

চরম ইসলামপন্থিদের হামলায় নিহত শিক্ষক ‘শহিদ’

ক্লাসে মহানবি হযরত মোহাম্মদ (সা.) এর কার্টুন দেখানোয় হামলায় নিহত শিক্ষককে ‘শহিদ’ বলে তার জন্য শুক্রবার সব মসজিদে প্রার্থনার আহ্বান জানিয়েছেন ফ্রান্সের এক ইমাম৷

ফ্রান্সের ইমাম সম্মেলনের সভাপতি হাসেন চালগুমি

ফ্রান্সের ইমাম সম্মেলনের সভাপতি হাসেন চালগুমি

প্যারিসের উপকণ্ঠ দ্রান্সির এক মসজিদের ইমাম হাসেন চালগুমি বলেন, ইতিহাস শিক্ষক স্যামুয়েল প্যাটি মত প্রকাশের স্বাধীনতা চর্চা করতে গিয়ে শহিদ হয়েছেন৷ যে স্কুলে ইতিহাসের ওই শিক্ষককে চেচেন বংশোদ্ভূত ১৮ বছর বয়সি এক সন্দেহভাজন হত্যা করে, সোমবার সেখানে ফুল দিয়ে নিহত শিক্ষকের প্রতি শ্রদ্ধা জানান তিনি৷  এ সময় ফ্রান্সে চরম ইসলামপন্থিদের সম্পর্কে সবাইকে সতর্ক করে সকল বাবা-মায়ের প্রতি সন্তানদের মনে ফ্রান্স সম্পর্কে ঘৃণার বীজ যাতে বপন করা না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখার আহ্বান জানান তিনি৷

সাংবাদিকদের ইমাম হাসেন চালগুমি বলেন, ফ্রান্সে বসবাসরত মুসলমানদের ক্রমশ বিপজ্জনক হয়ে ওঠা ইসলামি চরমপন্থির বিষয়ে সজাগ হওয়ার এখনই সময়৷ তিনি মনে করেন, ‘‘তিনি (নিহত শিক্ষক) মত প্রকাশের স্বাধীনতার শহিদ এবং এমন এক জ্ঞানী ব্যক্তি যিনি সহিষ্ণুতা, সভ্যতা এবং অন্যকে সম্মান করতে শেখাতেন৷’’

ফ্রান্সের ইমাম সম্মেলনের সভাপতি হিসেবে হাসেন চালগুমি নিয়মিতই পরস্পরের বিশ্বাসের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থাকার পক্ষে কথা বলেন৷ শিক্ষককে জবাই করে হত্যার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ইমাম সমাজ, বাবা-মা, সুধি সমাজ সবাই জেগে উঠুন, কারণ, আপনার ভবিষ্যত এখন হুমকির মুখে৷

ফ্রান্সে ইসলামি চরমপন্থিরা খুব সংগঠিত এবং দেশের প্রচলিত আইনকে ব্যবহার করে কতদূর যাওয়া সম্ভব তা তারা জানে-  এ কথা উল্লেখ করে ফ্রান্সের আলোচিত এই ইমাম বলেন, ‘‘ভিন্নমতের কারণে কাউকে লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করা বন্ধ করতে হবে৷ ফ্রান্সে সবার অধিকার আছে৷ এই প্রজাতন্ত্রে যা যা ভালো আছে সেসব সম্পর্কে সন্তানদের জানানো উচিত বাবা-মায়েদের৷’’

২০১০ সালে ফ্রান্সে মুসলিম নারীদের হিজাব পরা নিয়ে বিতর্ক চলার সময় হত্যার হুমকি দেয়ায় বিশেষ নিরাপত্তা নিতে হয়েছিল তাকে৷

এসিবি/কেএম (রয়টার্স)

২০১৮ সালের নভেম্বরের ছবিঘরটি দেখুন...

বিজ্ঞাপন