চট্টগ্রামে গ্যাস লাইন বিস্ফোরণে সাত জনের মৃত্যু | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 17.11.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

চট্টগ্রামে গ্যাস লাইন বিস্ফোরণে সাত জনের মৃত্যু

চট্টগ্রামে গ্যাস লাইন বিস্ফোরণে অন্তত সাত জনের মৃত্যু হয়েছে, আহত হয়েছেন ২৫ জন৷ বিস্ফোরণের কারণ খতিয়ে দেখতে গঠন করা হয়েছে তদন্ত কমিটি৷

চট্টগ্রামের পাথরঘাটায় রোববার সকালে একটি পাঁচতলা ভবনের সামনে গ্যাস লাইন বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে৷ এতে বাড়িটির সীমানা প্রাচীরের এক অংশ ধ্বসে পড়ে৷ দেয়াল চাপা পড়ে মৃত্যু হয়েছে সাত পথচারীর৷ স্থানীয় থানার ওসি মোহাম্মদ মহসিনের বরাত দিয়ে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স ও এপি৷

ঘটনাস্থল থেকে আহত অন্তত পঁচিশজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলেও জানান মহসিন৷ ঘটনার পর উদ্ধারকাজে অংশ নেয় ফায়ার সার্ভিস৷ কী কারণে এই বিস্ফোরণ ঘটেছে তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি৷

ডয়চে ভেলের কনটেন্ট পার্টনার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম তাদের প্রতিবেদনে জানিয়েছে ১৭ জনকে আহত অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানোর পর সেখানে সাতজনকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা৷

চট্টগ্রাম ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের উপসহকারী পরিচালক পূর্ণচন্দ্র মুৎসুদ্দী সংবাদ মাধ্যমটিকে জানান, বিল্ডিংয়ের নিচতলায় সীমানা প্রাচীরের পাশেই ওই বাড়ির গ্যাস রাইজার ছিল৷ সেখানেই বিস্ফোরণ হয়েছে৷

তিনি বলেন. ‘‘হয়ত রাইজারে কোনো সমস্যা ছিল, হয়ত লিকেজ থেকে গ্যাস বের হয়ে জমে গিয়েছিল৷ সকালে বাসায় কেউ আগুন ধরালে তাতে বিস্ফোরণ ঘটে থাকতে পারে৷''

৩৪ নম্বর পাথরঘাটা ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ইসমাইল বালি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোরকে বলেন,‘‘বিস্ফোরণের পর ভবনের সীমানা প্রাচীর ভেঙে রাস্তায় মানুষের ওপর পড়ে৷ আমরা পিকআপ ভ্যানে করে বেশ কয়েকজনকে হাসপাতালে পাঠিয়েছি, তাদের মধ্যে পথচারীও ছিল৷ ক্ষতিগ্রস্ত রিকশা এখনও রাস্তায় পড়ে আছে৷''

খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন৷ আহতদের চিকিৎসার ব্যয়ভার সিটি করপোরেশন থেকে বহন করা হবে জানান তিনি৷

নিহতদের প্রত্যেকের পরিবারকে ২০ হাজার টাকা করে সহায়তা দেয়ার কথা বলেছেন জেলা প্রশাসক মো. ইলিয়াস হোসেন৷ বিস্ফোরণের কারণ খতিয়ে দেখতে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এ জে এম শরিফুল হাসানকে প্রধান করে পাঁচ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে৷

এফএস/এআই (এপি, রয়টার্স, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডট কম)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন