1. কন্টেন্টে যান
  2. মূল মেন্যুতে যান
  3. আরো ডয়চে ভেলে সাইটে যান
ছবি: dapd

ভারতে নির্বাচন

অনিল চট্টোপাধ্যায়, নতুন দিল্লি
২০ ডিসেম্বর ২০১২

ভারতের গুজরাট রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে জিতেছে মোদীর নেতৃত্বাধীন বিজেপি৷ ১৮২টি আসনের মধ্যে বিজেপি পেয়েছে ১২২টি, কংগ্রেস ৬০টি আসন৷ হিমাচল প্রদেশে বিজেপিকে হারিয়ে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্টতা পেয়েছে কংগ্রেস৷

https://www.dw.com/bn/%E0%A6%97%E0%A7%81%E0%A6%9C%E0%A6%B0%E0%A6%BE%E0%A6%9F%E0%A7%87-%E0%A6%9C%E0%A6%BF%E0%A6%A4%E0%A7%87%E0%A6%9B%E0%A7%87-%E0%A6%AC%E0%A6%BF%E0%A6%9C%E0%A7%87%E0%A6%AA%E0%A6%BF-%E0%A6%B9%E0%A6%BF%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%9A%E0%A6%B2-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%A6%E0%A7%87%E0%A6%B6%E0%A7%87-%E0%A6%95%E0%A6%82%E0%A6%97%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A7%87%E0%A6%B8/a-16468599

প্রত্যাশিতভাবেই গুজরাট নির্বাচনে ‘হ্যাট্রিক' করলেন নরেন্দ্র মোদী৷ গুজরাট নির্বাচনে কার্যত দলের হাল ধরেছিলেন মোদী একাই৷ বিধানসভার ১৮২টি আসনের মধ্যে ১২২টি আসন বিজেপির ঝুলিতে৷ প্রতিপক্ষ কংগ্রেস পেয়েছে ৬০টি আসন৷ গুজরাটের বর্ষিয়ান রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব কেশুভাই প্যাটেলের পরিবর্তন দল সুবিধা করতে পারেনি৷ এই নিয়ে পর পর পাঁচবার বিজেপি ক্ষমতায় এলো গুজরাটে৷

মোদীর এই সাফল্য জাতীয় রাজনীতিতে তাঁর আসন পাকা করে দিল বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা৷ আগামী সাধারণ নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী হবার স্বপ্নটা আবার উস্কে দিল মোদীর৷ কিন্তু পথ অনেক বাকি৷ দলের মধ্যেই এই নিয়ে রয়েছে বিভাজন৷ বিজেপি মুখপাত্র বলেন, মোদীর মতো যোগ্য ব্যক্তির অভাব নেই দলে৷ কাজেই সময় এলে প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থীর নাম জাননো হবে৷ তবে মোদীর সুশাসনের প্রতি জনগণের যে আস্থা আছে – এই ফলাফল তারই প্রমাণ৷

মোদীর জয় সম্পর্কে রাজনৈতিক বিশ্লেষক ড. পার্থ চট্টোপাধ্যায় ডয়চে ভেলেকে বললেন, এই জয় প্রত্যাশিতই ছিল৷ কারণ কোনো বিরোধীদল গুজরাটে জনগণের মনে দাগ কাটতে পারেনি৷ একমাত্র ইস্যু ছিল সাম্প্রদায়িকতা৷ ভেবেছিল এই ইস্যুতেই বুঝি মোদীকে কাত করা যাবে৷ সেটা সম্ভব হয়নি৷ কারণ, মোদীর একটা ‘ইমেজ' তৈরি হয়েছে দক্ষ প্রশাসক হিসেবে৷

মোদীর জয়ের পেছনে যেসব ফ্যাক্টর কাজ করেছে তা হলো, গুজরাটিরা মূলত ব্যবসাদার৷ তাঁরা রাজনৈতিক মতাদর্শ নিয়ে এত মাথা ঘামায় না৷ মোদীর কাছ থেকে ব্যবসায়িক সুযোগ-সুবিধার আশ্বাস পাওয়ায় কোনো সংঘাতের পরিস্থিতি তৈরি হয়নি৷

কীভাবে পৌঁছালেন মোদী আজকের শিখরে? দেশে-বিদেশে এক বিতর্কিত ব্যক্তির নাম নরেন্দ্র দামোদর দাস মোদী৷ জন্ম ১৯৫০ সালে৷ রাষ্ট্রবিজ্ঞানে এমএ৷ ছেলেবেলা থেকেই হিন্দু মৌলবাদী সংগঠন আরএসএস করতেন৷ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হন ২০০১ সালে৷ ২০০২ সালের গুজরাট সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা তাঁকে দাঁড় করিয়েছিল খাদের কিনারে৷ ইস্তফা দিয়েছিলেন তিনি মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে৷ কিন্তু পরের নির্বাচনে জিতে আবারো ফিরে আসেন মোদী৷

ওদিকে, হিমাচল প্রদেশে কংগ্রেস পেয়েছে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা৷ ৬৮টি আসনের মধ্যে ৩৬টি আসন কংগ্রেসের ঝুলিতে৷ শাসক দল বিজেপি পেয়েছে ২৪টি ৷

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে মিয়ানমারে ফেরার কথা বললেই বিপদ!

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

প্রথম পাতায় যান