গুজব এবং ভুল খবর থেকে সাবধান | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 07.04.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

সংবাদভাষ্য

গুজব এবং ভুল খবর থেকে সাবধান

সারা বিশ্ব যখন করোনা ভাইরাসের সঙ্গে লড়ছে, কিছু মানুষ তখনো গুজব ছড়াচ্ছে৷ তড়িঘড়ি করতে গিয়ে সংবাদমাধ্যমের একটা অংশও পা দিচ্ছে ভুলের ফাঁদে৷

মিরপুরের টোলারবাগ মসজিদের ইমাম মুফতি মোজাফ্ফার আহমেদ জানিয়েছেন তিনি বেঁচে আছেন, সুস্থ আছেন। না জানালে বিভ্রান্তি থেকে হয়তো অনেক বড় অশান্তি জন্ম নিতো৷ সে আশঙ্কা জাগিয়েছিল একটি গুজব৷ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়া হয়েছিল করোনায় সংক্রমিত হয়ে মুফতি সাহেবের মৃত্যুর খবর৷

তার ঠিক একদিন আগে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীকেও ‘‘আমি বেঁচে আছি, সুস্থ আছি’’ বলে সবাইকে আশ্বস্ত করতে হয়েছে৷ একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের দুটো স্ক্রল জোড়া দিয়ে কে বা কারা যেন ছড়িয়েছিল নিউ ইয়র্কে করোনা ভাইরাস সংক্রমণে আইভীর মৃত্যুর গুজব৷

গুজব দুটো শুধু গুজব থাকেনি সংবাদমাধ্যমের একাংশের সবার আগে সব খবর প্রচারের ‘অসুস্থ’ প্রতিযোগিতায় নেমে পড়ার কারণে৷ 

Ashish Chakraborty

আশীষ চক্রবর্ত্তী, ডয়চে ভেলে

গুজব খুব বিপদজনক৷ গুজব রোধে সবাইকেই ভূমিকা রাখতে হবে৷ 

তবে এটাও মনে রাখতে হবে যে, সব খাবার যেমন স্বাস্থ্যের জন্য ভাল নয়, সব খবরও মানুষের জন্য উপকারী নয়৷ বিপদের সময় ভুল খবর তো আগুনে ঘি-এর মতো!

গুজবের পক্ষে, ভুল খবরের পক্ষে কিছু যুক্তিও আছে৷ কিছু যে খুব বাস্তবসম্মত এবং সুযুক্তি হিসেবে মেনে নেয়ার মতো তা- ও অস্বীকার করার জো নেই৷

সরকারের সব দপ্তরের মধ্যে যে সমন্বয়ের অভাব আছে, সব তথ্য যে এখনো সহজলভ্য বা সবার কাছে বিশ্বাসযোগ্য হয়ে ওঠেনি তা-ও অনস্বীকার্য৷

সব পর্যায়েই স্বচ্ছতা, সততা, আন্তরিকতা এবং দায়িত্বশীলতা এই মুহূর্তে খুব দরকার৷

গুজব এবং ভুল খবরও স্বচ্ছতা, ‘সততা’ বা প্রশ্নাতীত দায়িত্বশীলতা নয়৷

দেশে, বিদেশে যার যেখানে যতটুকু সুযোগ বা সামর্থ্য আছে, গুজব এবং ভুল খবর রোধে তা কাজে লাগালে করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইটা সহজ হবে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন