গির্জার আশ্রয়কেন্দ্রে হাজারো শিশুর মৃত্যু | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 13.01.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

আয়ারল্যান্ড

গির্জার আশ্রয়কেন্দ্রে হাজারো শিশুর মৃত্যু

আয়ারল্যান্ডে গির্জা পরিচালিত মা ও শিশু আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে শুধু গত শতব্দীতেই নয় হাজার শিশু মারা যায় ৷ আইরিশ ইতিহাসের এমনই এক কলঙ্কের অধ্যায় উঠে এসেছে সাম্প্রতিক এক গবেষণায়৷

বিংশ শতাব্দিতে আয়ারল্যান্ডে চার্চ পরিচালিত অবিবাহিত নারী ও শিশুদের আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে হাজার হাজার শিশু মারা গেছে৷ গোপন থাকা এই তথ্য ইনডিপেনডেন্ট কমিশন মঙ্গলবার  এক প্রতিবেদনে প্রকাশ করেছে ৷ এতে জানানো হয় তদন্ত কমিশন নয় হাজার শিশু মারা যাওয়ার  প্রমাণ পেয়েছে৷  ১৯৯৮ সাল পর্যন্ত মা ও শিশুদের আশ্রয়কেন্দ্রগুলো ধর্মীয় সংস্থা বিশেষ করে ক্যাথলিকদের দ্বারা পরিচালিত হতো৷ আশ্রয়কেন্দ্রের শিশুদের শ্বাসজনিত এবং পেটের নানা সমস্যাই মৃত্যুর প্রধান কারণ৷

এ বিষয়ে আয়ারল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী মাইকেল মার্টিন বলেন, " অনুসন্ধানমূলক এই প্রতিবেদন আইরিশ ইতিহাসের লজ্জা ও অন্ধকার দিক প্রকাশ পেয়েছে৷ আমাদের অতীতের বিকৃত ধর্মীয় নৈতিকতার জন্য তরুণ মা ও শিশুরা যে মূল্য দিয়েছে, আমাদের সে সত্যের মুখোমুখি হতে হবে ৷” প্রধানমন্ত্রী এই ঘটনার জন্য বুধবার আনুষ্ঠানিকভাবে সংসদে ক্ষমা চেয়েছেন৷

আইরিশ ক্যাথলিক চার্চের প্রধান আর্চবিশপ ইমন মার্টিনও মঙ্গলবার ক্ষমা চেয়েছেন চার্চ পরিচালিত দীর্ঘদিনের মানসিক যন্ত্রণা নিয়ে বেঁচে থাকা সদস্যদের কাছে৷

তদন্ত কমিশন ১৯২২ থেকে ১৯৯৯ সালের মধ্যে গির্জা পরিচালিত ১৮টি আশ্রয়কেন্দ্রে অবিবাহিত মায়েদের সন্তানদের মত্যুর কারণ খতিয়ে দেখেছে৷ সেখানে তরুণ মায়েদের অনেকেই ধর্ষণের কারণে গর্ভবতী হয়৷

এনএস/কেএম (ডিপিএ, এএফপি, রয়টার্স, এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন