গাজীপুরের উপ-নির্বাচনে জয়ী সিমিন হোসেন রিমি | বিশ্ব | DW | 01.10.2012
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

গাজীপুরের উপ-নির্বাচনে জয়ী সিমিন হোসেন রিমি

বাংলাদেশে বিরোধী দল ছাড়া গাজীপুর-৪ আসনের উপ-নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের প্রার্থী বিজয়ী হলেও ভোট পড়েছে ৫০ শতাংশের কম৷ আর তাকে সরকারি দলের জন্য সতর্ক সংকেত বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা৷

তাঁরা মনে করেন, ৫০ ভাগের চেয়ে কম ভোট পড়লে তাতে আইনগত কোন সমস্যা নেই৷ তবে নৈতিক জায়গা থেকে প্রশ্ন তোলা যায়৷

গাজীপুরের কাপাশিয়া আসনে মোট ভোটার ২ লাখ ১১ হাজার ৪৭৭ জন৷ রোববারে উপ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী সিমিন হোসেন রিমি জয়ী হয়েছেন৷ কিন্তু সব মিলিয়ে ভোট পড়েছে ১ লাখেরও কম৷ যা মোট ভোটের ৫০ শাতাংশেরও কম ৷ দুপুরে ভোট কেন্দ্রগুলোতে ভোটারের উপস্থিতি থাকলেও সকালে ও বিকেলে বিভিন্ন কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি ছিল হাতে গোনা৷ নির্বাচন বিশ্লেষক এবং সুজন-এর প্রধান ড. বদিউল আলম মজুমদার ডয়চে ভেলেকে বলেন, ভোটারদের এত কম উপস্থিতি খুবই খারাপ খবর৷ বাংলাদেশের জাতীয় নির্বাচনে শতকরা ৯০ ভাগেরও বেশি ভোটার উপস্থিত হন৷ কাপাশিয়ায় তার বিপরীত চিত্র তাই তাঁকে হতাশ করেছে৷ তিনি বলেন, এতে নির্বাচনের বৈধতা নিয়ে কোন আইনগত সমস্যা নেই৷ তবে নৈতিক দিক দিয়ে প্রশ্ন তোলাই যায়৷

এদিকে, এই নির্বাচনে অংশ নেয়নি প্রধান বিরোধী দল বিএনপি৷ বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগির দাবী করেছেন কাপাশিয়ার নির্বাচন ঐ এলাকার মানুষ প্রত্যাখ্যান করেছেন৷ তারা নির্বাচন কমিশনকে প্রত্যাখ্যান করেছেন৷

তবে আওয়ামী লীগ নেতা তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, ভোট কম পড়লেও ভোটাররা শান্তিপূর্ণভাবে ভোট দিয়েছেন৷ আর বৃষ্টির কারণে ভোটার উপস্থিতি কম হয়েছে৷

জয়ী সিমিন হোসেন রিমির নিকটতম স্বতন্ত্রপ্রার্থী আফসার উদ্দিন খান একে প্রহসনের নির্বাচন বলে প্রত্যাখ্যান করেছেন৷ তবে সিমিন হোসেন রিমি নির্বাচনকে সুষ্ঠু এবং নিরপেক্ষ বলেছেন৷ এই নির্বাচন নিয়ে অবশ্য সন্তুষ্ট নির্বাচন কমিশন৷

প্রতিবেদন: হারুন উর রশীদ স্বপন, ঢাকা

সম্পাদনা: হোসাইন আব্দুল হাই

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন