গাজা সফরে মিশরের প্রধানমন্ত্রী, হামলা চলছে | বিশ্ব | DW | 16.11.2012

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

গাজা সফরে মিশরের প্রধানমন্ত্রী, হামলা চলছে

ইসরায়েলের সেনাবাহিনীর সঙ্গে হামাসের হামলা পাল্টা হামলার মধ্যেই শুক্রবার গাজা সফর করলেন মিশরের প্রধানমন্ত্রী হিশাম কান্দিল৷ তাঁর সফরের সময় তিন ঘণ্টা যুদ্ধ বিরতির কথা থাকলেও বাস্তবে উভয়পক্ষের মধ্যে হামলা অব্যাহত রয়েছে৷

শুক্রবার গাজায় ইসরায়েলের আক্রমণে প্রাণ হারিয়েছে এক ফিলিস্তিনি তরুণ৷ নিহতের এই সংখ্যাটি হিসাব করলে গত তিনদিনে সেখানে ফিলিস্তিনি নিহতের সংখ্যা বিশ৷ জার্মান বার্তাসংস্থা ডিপিএ জানাচ্ছে এই হিসাব৷ অন্যদিকে, হামাসের রকেট হামলায় নিহত হয়েছে তিন ইসরায়েলি নাগরিক৷ শুক্রবার হামাসের আরো একটি রকেট তেল আভিভ’এর সমুদ্র উপকূলে বিধ্বস্ত হয়েছে৷

ইসরায়েলি সেনাবাহিনী এবং হামাসের মধ্যকার এই হামলা, পাল্টা হামলার ঘটনায় আবারো উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে মধ্যপ্রাচ্য৷ শুক্রবার পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে গাজা সফর করেন মিশরের প্রধানমন্ত্রী হিশাম কান্দিল৷ তাঁর এই সফরের প্রাক্কালে ইসরায়েল তিন ঘণ্টার জন্য গোলাগুলি বন্ধ রাখতে সম্মত হয়৷

Israel Angriffe auf Gaza

গাজা থেকে রকেট হামলা প্রতিরোধ করতে ইসরায়েল ইন্টারসেপ্টার রকেট ব্যবহার করছে



তবে বাস্তবতা ভিন্ন, শুক্রবার হামাসের ছোঁড়া বেশ কয়েকটি রকেট ইসরায়েলের দক্ষিণাঞ্চলে আঘাত হেনেছে৷ উত্তরে ইসরায়েলি বিমান বাহিনী গাজার দক্ষিণে একটি বাড়ি লক্ষ্য করে বিমান হামলা চালায়৷ হামাসের বরাতে বার্তাসংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, বাড়িটি এক হামাস কমান্ডারের৷ ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু'র এক মুখপাত্র টুইটারে এই বিষয়ে জানান, ‘‘হামাস মিশরের প্রধানমন্ত্রীর গাজা সফরের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করেনি এবং ইসরায়েল তাঁর সফরের সময় সাময়িক যে যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয়েছিল তা ভঙ্গ করেছে৷’’

গাজায় মিশরের প্রধানমন্ত্রী হিশাম কান্দিল গণমাধ্যমকে জানান, শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে আমরা একটি যুদ্ধবিরতি কার্যকর করার চেষ্টা করছি৷ তিনি বলেন, ‘‘যে বিয়োগান্ত ঘটনা আমি এখনো দেখেছি তা এড়িয়ে যাওয়ার কোন উপায় নেই৷ আগ্রাসন অবশ্যই বন্ধ করতে হবে৷’’

এদিকে ইউরোপীয় ইউনিয়ন ইসরায়েলে হামাসের রকেট হামলার নিন্দা জানিয়েছে এবং একই সঙ্গে ‘সমানুপাতিক' প্রতিক্রিয়া জানাতে ইসরায়েলের নেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে৷ ইইউ'র পররাষ্ট্র নীতি বিষয়ক প্রধান ক্যাথরিন অ্যাশটন এই বিষয়ে বলেন, ‘‘হামাস এবং গাজার অন্যান্য চক্রান্তকারী গোষ্ঠীর রকেট হামলা বর্তমান সঙ্কট সৃষ্টি করেছে এবং এধরনের হামলা যেকোন সরকারের কাছেই সম্পূর্ণ অগ্রহণযোগ্য৷ এটি অবশ্যই বন্ধ করতে হবে৷'' মিশরের প্রধানমন্ত্রীর গাজা সফর বর্তমান পরিস্থিতি শান্ত করতে সহায়ক হবে বলেও আশা প্রকাশ করেন অ্যাশটন৷

এছাড়া গাজায় কোন ধরনের সেনা অভিযানের বিষয়ে ইসরায়েলকে সতর্ক করে দিয়েছে যুক্তরাজ্য৷ সেদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী উইলিয়াম হেগ এই বিষয়ে বলেন, ‘‘ইসরায়েলের মনে রাখতে হবে এর আগে তারা যখন গাজায় সেনা অভিযান পরিচালনা করেছে তখন আন্তর্জাতিক সমর্থন এবং সহানুভূতি হারিয়েছে৷’’ বর্তমান সঙ্কট নিরসনে উভয় পক্ষের দায়িত্ব রয়েছে বলেই মনে করেন হেগ৷

এআই/এসবি (ডিপিএ, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন