গাজার সব গোপন সুড়ঙ্গ ধ্বংস করার ঘোষণা দিলো ইসরায়েল | বিশ্ব | DW | 15.01.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ইসরায়েল-ফিলিস্তিন

গাজার সব গোপন সুড়ঙ্গ ধ্বংস করার ঘোষণা দিলো ইসরায়েল

গাজার যেসব গোপন সুড়ঙ্গ থেকে ইসরায়েলের উপর আক্রমণ চালানো হয়ে থাকে, সেগুলিকে ধ্বংস করা ইসরায়েলের নিরাপত্তা নীতির ‘অত্যাবশ্যক উপাদান' বলে ঘোষণা করেছেন ইসরায়েলি প্রতিরক্ষামন্ত্রী৷

সুড়ঙ্গগুলি দিয়ে প্রধানত গাজা স্ট্রিপে পণ্য সরবরাহ করা হয়ে থাকে৷ তবে অনেক সময় আবার ইসরায়েলি রাজ্যাঞ্চলের উপর আক্রমণও চালানো হয়৷ ইসরায়েলি প্রতিরক্ষামন্ত্রী আভিগডর লিবারমান সুড়ঙ্গগুলিকে ধ্বংস করা নিরাপত্তা নীতির ‘অত্যাবশ্যক উপাদান' বলে অভিহিত করেছেন৷

লিবারমান রবিবার বলেন, ‘‘২০১৮ সালের মধ্যে আমরা হামাসের সব আক্রমণের সুড়ঙ্গ নির্মূল করব... হয়তো তার আগেই তা করতে পারব, কিন্তু লক্ষ্য হবে, এ বছর শেষ হওয়ার আগে সব ক'টি (সুড়ঙ্গ) ধ্বংস করা'' ৷

ভিডিও দেখুন 01:15
এখন লাইভ
01:15 মিনিট

আফ্রিকান অভিবাসীদের ফেরত পাঠাতে ইসরায়েলের উদ্যোগ

‘‘আক্রণাত্মক সুড়ঙ্গগুলির জাল বিনষ্ট করা হামাসের কৌশলগত ক্ষমতা ক্রমাগত হ্রাস করার নীতির একটি অত্যাবশ্যক উপাদান,'' বলে লিবারমান ঘোষণা করেন৷

ইসরায়েলি প্রতিরক্ষা বাহিনী (আইডিএফ) রবিবার জানায় যে, ইসরায়েলের উপর আক্রমণের জন্য হামাসের খোঁড়া একটি আন্তঃ-সীমান্ত সুড়ঙ্গ আইডিএফ-এর অভিযানে ধ্বংস হয়েছে৷ আইডিএফ মুখপাত্র জোনাথান কনরিকাস জানান যে, শনিবার ইসরায়েলি বিমানবাহিনী ‘সন্ত্রাস সুড়ঙ্গ'-টির গাজা প্রান্তের উপর আক্রমণ চালায়৷

‘ইসরায়েলের সার্বভৌমত্ব লঙ্ঘণ'

টুইটে আইডিএফ লিখেছে, এই সুড়ঙ্গগুলি নির্মাণ ও ব্যবহারের জন্য আইডিএফ হামাসকেই দায়ী মনে করে৷

সুড়ঙ্গ নির্মাণকে ‘‘গুরুতরতরভাবে ইসরায়েলের সার্বভৌমত্ব লঙ্ঘণ''-এর সঙ্গে তুলনা করে আইডিএফ বিবৃতিতে আরো বলেছে, ‘‘হামাস এর পরিণামের জন্য দায়ী'' এবং হামাস ‘‘বারংবার গাজার নাগরিকদের বিপদ ডেকে আনছে৷''

গাজা থেকে মিশর ও ইসরায়েলের দিকে যেসব সুড়ঙ্গ নির্মাণ করা হয়েছে, তার অধিকাংশ গাজা স্ট্রিপে চোরাচালানের জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে, যার পটভূমিতে রয়েছে গাজা স্ট্রিপের উপর ইসরায়েলের অবরোধ৷ অপরদিকে ফিলিস্তিনি জঙ্গি গোষ্ঠীগুলি একাধিকবার এই সব সুড়ঙ্গ থেকে ইসরায়েলের উপর আক্রমণ চালিয়েছে, বিশেষ করে ২০১৪ সালের সংঘাতে৷

উত্তেজনা বাড়ছে

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গতমাসে একতরফাভাবে সিদ্ধান্তে নেন যে, জেরুসালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হবে৷ তারপর থেকে ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ ও ইসরায়েলের মধ্যে উত্তেজনা লক্ষণীয়ভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে৷

জার্মানি, ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও জাতিসংঘের তরফ থেকে ট্রাম্পের সিদ্ধান্তের সমালোচনা করে বলা হয় যে, এই সিদ্ধান্তের ফলে ইসরায়েলি ও ফিলিস্তিনিদের মধ্যে বহু দশকব্যাপী সংঘাতের রাজনৈতিক সমাধানের সম্ভাবনা দূরাহত হচ্ছে৷

কিন্তু ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য ইওয়াভ গালান্ট বলেছেন যে, ইসরায়েল ‘‘হামাসের সঙ্গে মুখোমুখি দ্বন্দ্ব কামনা করে না৷''

হামাস বর্তমানে গাজা স্ট্রিপ নিয়ন্ত্রণ করে৷ তারা ফিলিস্তিনি রাজ্যাঞ্চল থেকে উগ্রপন্থি জঙ্গি গোষ্ঠীগুলির কার্যকলাপ বরদাস্ত করে থাকে বলে ইতিপূর্বেও অভিযোগ শোনা গেছে৷

এসি/এসিবি (রয়টার্স, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

বিজ্ঞাপন