1. কন্টেন্টে যান
  2. মূল মেন্যুতে যান
  3. আরো ডয়চে ভেলে সাইটে যান
অনুব্রত মণ্ডল
ছবি: Subrata Goswami

গরুপাচার কাণ্ড: গ্রেপ্তার অনুব্রত

১১ আগস্ট ২০২২

বৃহস্পতিবার সকালে বোলপুরে অনুব্রত মণ্ডলের বাড়ি যায় সিবিআই। ১১টায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

https://www.dw.com/bn/%E0%A6%97%E0%A6%B0%E0%A7%81%E0%A6%AA%E0%A6%BE%E0%A6%9A%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%95%E0%A6%BE%E0%A6%A3%E0%A7%8D%E0%A6%A1-%E0%A6%97%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A7%87%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%85%E0%A6%A8%E0%A7%81%E0%A6%AC%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%A4/a-62775831

সিবিআইয়ের হাতে গ্রেপ্তার বীরভূমে তৃণমূলের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা নাগাদ অনুব্রতকে আটক করে গাড়িতে তোলে সিবিআই। এর কিছুক্ষণের মধ্যেই তাকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে সিবিআই সূত্রে খবর।

বুধবার মধ্যরাতে বোলপুরে গিয়ে পৌঁছেছে সিবিআইয়ের একটি বিরাট টিম। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মোট পাঁচটি গাড়ি নিয়ে তারা বোলপুরে পৌঁছায়। তিনটি গাড়ি গেছে কলকাতায় সিবিআই দপ্তর নিজাম প্যালেস থেকে। দুইটি গাড়ি গেছে আসানসোলের সিবিআই দপ্তর থেকে। বোলপুরে কেন্দ্রীয় সরকারের অতিথিশালায় তারা ওঠেন।বৃহস্পতিবার সকালে তারা অনুব্রতের বাড়িতে যান। কিন্তু অনুব্রতের বাড়িতে বাধার মুখে পড়তে হয় সিবিআই অফিসারদের। অনুব্রত কথা বলতে অস্বীকার করেন। প্রায় দেড়ঘণ্টা কথা বলার পর শেষ পর্যন্ত তাকে গ্রেপ্তার করার সিদ্ধান্ত নেয় সিবিআই।

গরুপাচার কাণ্ডে একাধিকবার বীরভূমের তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলকে তলব করেছিল সিবিআই। কিন্তু অনুব্রত মাত্র একবারই সিবিআইয়ের মুখোমুখি হয়েছেন। প্রতিবারই অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে তিনি জিজ্ঞাসাবাদ এড়িয়ে গেছেন। বুধবার তিনি সিবিআইকে জানিয়েছিলেন, অসুস্থতার কারণে চিকিৎসকরা তাকে বিশ্রামে থাকতে বলেছেন। সে কারণেই তিনি হাজিরা দিতে পারছেন না।

আসাম-বাংলাদেশ সীমান্তে গরু চুরির কাহিনি

বুধবার সিবিআই দপ্তরে অনুব্রত যে চিঠি পাঠিয়েছেন, তাতে বলা হয়েছে, সিবিআই অফিসার সুশান্ত ভট্টাচার্যের আচরণে তিনি মর্মাহত। সুশান্ত বার বার তাকে তলব করছেন। অথচ অনুব্রতের অসুস্থতার কথা তিনি জানেন। চিঠিতে বলা হয়েছে, সোমবার বোলপুর থেকে গাড়ি করে কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য গেছিলেন অনুব্রত। চিকিৎসকরা তার রিপোর্টে লেখেন, বার্ধক্যজনিত কিছু অসুস্থতায় ভুগছেন তিনি। তবে সে কারণে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করার প্রয়োজন নেই। এসএসকেএম থেকে বোলপুর ফিরে তিনি ফের অসুস্থ হয়ে পড়েন। বোলপুরের চিকিৎসকরা তখন তাকে সম্পূর্ণ বিশ্রামে থাকার নির্দেশ দেন। সেই রিপোর্ট সিবিআইকে দিয়েছেন অনুব্রত।

সিবিআইয়ের এক অফিসারের বক্তব্য, বোলপুরের চিকিৎসকদেরও জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে। অনুব্রতের শারীরিক পরিস্থিতি নিয়ে তাদের জেরা করা হতে পারে।

গরুপাচার কাণ্ডে অনুব্রতের বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে। তার দেহরক্ষীকে ইতিমধ্যেই গ্রেপ্তার করেছে সিবিআই। তার কাছ থেকে বিপুল সম্পত্তির হদিশ মিলেছে বলে সিবিআইয়ের দাবি। সেই সূত্রেই অনুব্রতকে বার বার তলব করা হচ্ছে। অনুব্রত অবশ্য জানিয়েছেন, তিনি সম্পূর্ণ নির্দোষ। সিবিআইকে সে কথা জানিয়েছেন তিনি।

এসজি/জিএইচ (পিটিআই)

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

Bangladesch Gewalt unter Studentengruppen

মাঠে লাঠি, কথায় লাঠি কোন দিকে যাচ্ছে রাজনীতি

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

প্রথম পাতায় যান