গণতন্ত্র ধরে রাখতে পদত্যাগ, বললেন ম্যার্কেল | বিশ্ব | DW | 31.12.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

জার্মানি

গণতন্ত্র ধরে রাখতে পদত্যাগ, বললেন ম্যার্কেল

জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল বলেছেন, পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে গণতন্ত্র বিকশিত হয়৷ সম্প্রতি তিনি দলীয় প্রধানের দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়ান৷ তাঁর এই সিদ্ধান্তে দলে গণতন্ত্র আরো সুসংহত হবে বলে মনে করেন তিনি৷

নববর্ষ উপলক্ষ্যে জাতির উদ্দেশ্যে দেয়া এক ভাষণে তিনি এ মন্তব্য করেন৷ ম্যার্কেল বলেন, জার্মানির নিজ স্বার্থেই পরিবেশ, অভিবাসন ও সন্ত্রাসবাদ সমাধানে কাজ করতে হবে৷ জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সমন্বিত প্রচেষ্টার মাধ্যমে এ বিষয়গুলোর সমাধান করতে হবে বলে মনে করেন তিনি৷

২০১৯ সাল থেকে পরবর্তী দু'বছরের জন্য জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য হতে যাচ্ছে জার্মানি৷ এই সময় জার্মানির সম্ভাব্য ভূমিকা নিয়েও কথা বলেন তিনি৷ ম্যার্কেল বলেন, নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য হিসেবে জার্মানির ভূমিকা হবে জোড়ালো এবং সুনির্দিষ্ট৷ ‘‘বিশ্বব্যাপী চলমান সমস্যাগুলো সমাধানে আমরা বৈশ্বিক সমাধানে আগ্রহী'' এবং এ লক্ষ্যে জার্মানি কাজ করে যাবে বলে তিনি জানান৷

বিশ্ব রাজনীতিতে জার্মানির অবস্থান উল্লেখ করতে গিয়ে ম্যার্কেল বলেন, বিশ্বব্যাপী মানবাধিকার প্রতিষ্ঠা, উন্নয়নসহ অন্যান্য ক্ষেত্রে জার্মানি কাজ করে যাচ্ছে৷ ইউরোপীয় ইউনিয়নকে আরো শক্তিশালী ও কার্যকর করতে জার্মানি তার চেষ্টা অব্যাহত রাখবে বলে মন্তব্য করেন তিনি৷ 

 ম্যার্কেল বলেন, সবার জন্য সমান সুবিধা নিশ্চিত করাই তাঁর সরকারের প্রথম লক্ষ্য৷‘‘জার্মান সরকার দেশের প্রত্যেক নাগরিকের জন্য শিক্ষা, বাসস্থান এবং স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে চায়৷ এ সকল সুবিধা সমানভাবে নিশ্চিত করার জন্য একটি গ্রহণযোগ্য সমাধান বের করতে চায় সরকার,'' বলেন জার্মান চ্যান্সেলর৷

তবে দেশটির বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে তাঁর আশঙ্কার কথা জানিয়ে ম্যার্কেল বলেন, ‘‘আমরা যদি আমাদের মূল্যবোধের চর্চা করি ও আমাদের সামাজিক ও রাজনৈতিক বিশ্বাসকে বাস্তবায়নের চেষ্টা করি তাহলে নিশ্চয় নতুন এবং ভালো কিছুই আমরা করতে পারব৷''

মার্সেল ফুর্সটেনাউ/আরআর

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন