গড়ে নয় ঘণ্টায় একজনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর | বিশ্ব | DW | 12.04.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

গড়ে নয় ঘণ্টায় একজনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর

২০১৭ সালে সারা বিশ্বে মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের যে তথ্য পেয়েছে তার ভিত্তিতে এই তথ্য জানিয়েছে মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল৷ চীনে মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের হিসেব এখানে ধরা হয়নি৷

বৃহস্পতিবার ‘মৃত্যুদণ্ডের রায় ও কার্যকর ২০১৭’ নামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে অ্যামনেস্টি৷ এতে বলা হয়, ২০১৭ সালে বাংলাদেশে মৃত্যুদণ্ডের রায় দেয়ার সংখ্যা আগের বছরের তুলনায় বেড়েছে৷ গতবছর কমপক্ষে ২৭৩ জনের বিরুদ্ধে এই রায় দেয়া হয়৷ ২০১৬ সালে সংখ্যাটি ছিল কমপক্ষে ২৪৫৷ ঐ বছর ১০ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছিল৷ আর ২০১৭ সালে কার্যকরের সংখ্যা ছয়৷

সব মিলিয়ে ২০১৭ সালের শেষ পর্যন্ত  বাংলাদেশে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামির সংখ্যা ছিল ১,৪৬৫ জন৷

অ্যামনেস্টি বলছে, গতবছর আগের বছরের তুলনায় মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের হার চার শতাংশ কমেছে৷ ২০১৭ সালে মোট ৯৯৩ জনের রায় কার্যকরা করা হয়৷ ২০১৬ সালে সংখ্যাটি ছিল ১,০৩২৷

সবচেয়ে বেশি রায় কার্যকরের ঘটনা ঘটেছে ইরানে৷ সে দেশে কমপক্ষে ৫০৭ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়৷ এর মধ্যে ৩১ জনেরটি কার্যকর করা হয় প্রকাশ্যে৷

তালিকায় ইরানের পর আছে সৌদি আরব, ইরাক আর পাকিস্তান৷

অবশ্য অ্যামনেস্টি বলছে, মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের পরিমাণ সবচেয়ে বেশি আসলে চীনে৷ সংখ্যাটি হাজার পেরিয়ে যাবে৷ কিন্তু ‘গোপনীয়’ আখ্যা দিয়ে এ সংক্রান্ত তথ্য প্রকাশ করে না চীন সরকার৷

প্রতিবেদনটি প্রকাশ করতে গিয়ে সাব-সাহারা আফ্রিকা অঞ্চলের কয়েকটি দেশের কথা উল্লেখ করে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছে অ্যামনেস্টি৷ তারা বলছে, গতবছর গিনি সব ধরনের অপরাধের জন্য মৃত্যুদণ্ডের রায় দেয়া বাতিল করেছে৷ কেনিয়া হত্যার অভিযোগে মৃত্যুদণ্ড দেয়ার বাধ্যবাধকতার বিষয়টি উঠিয়ে নিয়েছে৷ বুর্কিনা ফাসো তাদের খসড়া সংবিধানে মৃত্যুদণ্ড উঠিয়ে দেয়ার বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত করার বিষয়টিকে স্বাগত জানিয়েছে অ্যামনেস্টি৷ আর চাদে এখন থেকে শুধু সন্ত্রাসবাদ সংক্রান্ত অপরাধের জন্য মৃত্যুদণ্ড দেয়া হবে৷

ভিডিও দেখুন 01:49
এখন লাইভ
01:49 মিনিট

Amnesty: Number of executions declining worldwide

অ্যামনেস্টির মহাসচিব সলিল শেঠি বলেছেন, ‘‘সাব-সাহারা আফ্রিকা অঞ্চলে এমন অগ্রগতি মৃত্যুদণ্ড বাতিল বিষয়ে অ্যামনেস্টির যে মূল লক্ষ্য সেই অবস্থানকে আরও শক্ত করবে৷ এছাড়া ঐ অঞ্চলের নেতৃত্বের কারণে অমানবিক, বর্বর এই শাস্তি বিলুপ্তির লক্ষ্য পূরণে আশার সঞ্চার হয়েছে৷’’

এখন পর্যন্ত সাব-সাহারা আফ্রিকা অঞ্চলের ২০টি দেশ সব ধরনের অপরাধের ক্ষেত্রে মৃত্যুদণ্ড বাতিল করেছে৷ গত বছর শুধু সোমালিয়া আর দক্ষিণ সুদান মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে৷ ২০১৬ সালে সংখ্যাটি ছিল পাঁচ৷

জেডএইচ/এসিবি (এএফপি, অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন