‘খুনীদের বিচার না হলে তাদের সংখ্যা বেড়ে যাবে′ | পাঠক ভাবনা | DW | 03.05.2017
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

মতামত

‘খুনীদের বিচার না হলে তাদের সংখ্যা বেড়ে যাবে'

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল এক প্রতিবেদনে দাবি করেছে যে, সরকার ব্লগার হত্যাকারীদের গ্রেপ্তারের বদলে উল্টো ব্লগারদেরই লেখালেখির জন্য দায়ী করছে৷ তবে ডয়চে ভেলের ফেসবুক পাতায় পাঠকদের মধ্যে এ নিয়ে মতবিরোধ রয়েছে৷

‘‘ভিন্নমতাবলম্বীদের রক্ষায় বাংলাদেশ সরকার ‘ব্যর্থ' তা ১০০ ভাগই আমি মনে করি৷ গত বছর পহেলা বৈশাখে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য শুনে আমি লজ্জা পেয়েছিলাম৷ উনার মতো বিজ্ঞ লোক যদি ব্লগারের ব্লগ না পড়ে, বিশ্লেষণ না করে ঢালাও অভিযোগ করে, তবে আমাদের মতো মুর্খ হুজুগে বাংগালিরা কি করতে পারি তা আর বলার নাই৷ '' এই মন্তব্য ডয়চে ভেলের ফেসবুক বন্ধু শিশির কুমার দাসের৷

আর সরকারের প্রতি পাঠক হুমায়ূন কবিরের পরামর্শ,‘‘ কেউ যদি অন্যায়ভাবে কিছু  লেখে, তাকে শাসন করুন৷'' হুমায়ূন কবিরের আশঙ্কা, খুনীদের বিচার না হলে খুনীর সংখ্যা বেড়ে যাবে৷ তাঁর প্রশ্ন- সরকার কি এতই দুর্বল খুনীদের কাছে?

তবে ব্লগারদের কার্যকলাপ নিয়ে তেমন সন্তুষ্ট নন পাঠক রাজিউল ইসলাম রাকিব৷ তিনি লিখেছেন, ‘‘গণতন্ত্রের নাম করে ব্লগাররা গণতন্ত্রের ১২টা বাজাইয়া দিচ্ছে৷''

আর শেখ মনির বলছেন, ‘‘বাকস্বাধীনতার নামে তো কেউ কারো ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করতে পারেনা৷'' তাঁর মতে ব্লগাররা তা-ই করছেন৷ 

আর ফারুক মোহাম্মদ আবদুল্লাহ'র ধারণা ব্লগারদের দু'একটা কাজ ছাড়া নাকি সবই ইসলামবিরোধী৷

অন্যদিকে ডয়চে ভেলের পাঠক  জোবায়ের মনে করেন, কিছু ভিন্নমতাবলম্বী মানুষ ইউরোপের বিভিন্ন দেশে পাড়ি দেয়ার জন্য বাংলাদেশের স্বার্থকে জলাঞ্জলি দিয়ে নির্বোধের মতো বাকস্বাধীনতার নামে ধর্মীয় উস্কানিমুলক বক্তব্য দিয়ে সাম্প্রদায়িকতা ছড়াচ্ছে৷

আর মোহাম্মদ নাহিয়ান বলছেন, ‘‘ব্লগারদের মূল সমস্যা হচ্ছে, তারা সবসময় ইসলাম ধর্ম নিয়ে ঠাট্টা, কটুক্তি করে, তারা নাকি অন্য ধর্ম নিয়ে কথা বলে না৷'' নাহিয়ানের প্রশ্ন,  ব্লগাররা কেন  শুধু ইসলাম ধর্ম নিয়ে  সমালোচনা করে?

 পাঠক খোকনেরও প্রায় একই মত৷ তিনি লিখেছেন, ‘‘ভিন্নমত কি শুধু ইসলামের বিরুদ্ধেই হয়? অন্য ধর্মের বিরুদ্ধে হয়না কেন ধর্ম নিয়ে ঠাট্রা?''

মারুফ হাসানের বক্তব্য, ‘‘ব্লগাররা যদি  ভালো কিছু লিখতে পারে, তাহলে তারা এমন কিছু লিখুক যার মাধ্যমে দেশের উন্নয়ন হবে৷''

তবে পাঠক আরিফ হোসেন খান কিন্তু অ্যামনেস্টির দেয়া তথ্যটিকে তেমন গুরুত্ব দিতে চান না ৷ 

সংকলন:  নুরুননাহার সাত্তার

সম্পাদনা: আশীষ চক্রবর্ত্তী

 

নির্বাচিত প্রতিবেদন