খালেদার জামিনের শুনানি হলো না, হট্টগোল হলো | বিশ্ব | DW | 05.12.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

খালেদার জামিনের শুনানি হলো না, হট্টগোল হলো

মেডিকেল প্রতিবেদন জমা না পড়ায় জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার জামিনের শুনানি এক সপ্তাহ পিছিয়ে দেয়ায় আপিল আদালতেই বিক্ষোভ করেন বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা৷

জিয়া দাতব্য ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের শুনানি এক সপ্তাহ পিছিয়ে দেওয়ার পর  বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা প্রায় তিন ঘণ্টা আপিল বিভাগের এজলাস কক্ষে অবস্থান নিয়ে তুমুল হট্টগোল করেন৷

ডয়চে ভেলের কন্টেন্ট পার্টনার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম জানায়, খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরিস্থিতির মেডিকেল প্রতিবেদন না আসায় বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ এ মামলার শুনানি এক সপ্তাহ পিছিয়ে দেয়৷

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে ছয় বিচারকের আপিল বেঞ্চে আগামী ১১ ডিসেম্বরের মধ্যে মেডিকেল প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দেন এবং ১২ ডিসেম্বর  পরবর্তী শুনানির  তারিখ ধার্য করেন৷

এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে শুনানির দিন এগিয়ে আনার দাবিতে বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা এজলাস কক্ষেই ‘উই ওয়ান্ট জাস্টিস', ‘বেইল ফর খালেদা জিয়া' বলে স্লোগান দিতে শুরু করেন৷

কয়েকবার চেষ্টার পরও তাদের শান্ত করা সম্ভব না হওয়ায় বিচারকরা এজলাস থেকে নেমে যান৷

প্রায় সোয়া ১ ঘণ্টা পর তারা ফিরে এলেও বিশৃঙ্খার কারণে দুপুর পর্যন্ত আর কোনো মামলার কার্যক্রম শুরু করা যায়নি৷

প্রধান বিচারপতি এ পরিস্থিতিকে ‘নজিরবিহীন' বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেন৷

দুর্নীতির দুই মামলায় ১৭ বছরের দণ্ড নিয়ে দেড় বছরের বেশি সময় ধরে কারাবন্দি আছেন খালেদা৷ জিয়া দাতব্য ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় জামিন পেলে তার মুক্তির পথ খুলবে৷

গত ২৮ নভেম্বর খালেদার জামিন বিষয়ে সিদ্ধান্ত হওয়ার কথা থাকলেও সেদিন তার সর্বশেষ শারীরিক অবস্থা জানতে মেডিকেল বোর্ডের প্রতিবেদন চায় সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ৷

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের ওই মেডিকেল বোর্ডের প্রতিবেদন বৃহস্পতিবার আদালতে যাওয়ার কথা ছিল৷

কিন্তু বৃহস্পতিবার সকালে আপিল বিভাগে শুনানির শুরুতেই বাংলাদেশের অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, ‘‘বঙ্গবন্ধু মেডিকেলের ভিসি আমাকে ইনফর্ম করেছেন, খালেদা জিয়ার কিছু টেস্ট হয়েছে, কিছু টেস্ট বাকি আছে৷ এর জন্য সময়ের প্রয়োজন৷’’

এসএনএল/এসিবি (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন