‘খাদ্যে ভেজালের মতো মানুষও এখন ভেজাল′ | আলাপ | DW | 03.06.2016
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

আলাপ

‘খাদ্যে ভেজালের মতো মানুষও এখন ভেজাল'

‘সরকারের উচিত খাদ্য নিরাপত্তায় কঠোর পদক্ষেপ নেয়া৷ শুধু আইন করলেই হবে না, আইনের শক্তিশালী প্রয়োগ ঘটাতে হবে-' খাদ্যে ভেজাল সম্পর্কে ডয়চে ভেলের ফেসবুক পাতায় অনেক পাঠক এরকম নানা মন্তব্য করেছেন৷

খাদ্যে ভেজাল সম্পর্কে প্রকাশিত প্রতিবেদনগুলো পড়ে ডয়চে ভেলের ফেসবুকে পাঠক সালেক মোহাম্মদ, রূপম আহমেদ এবং নজমুল শাহ'র কাছে তথ্যগুলো খুবই ভালো লেগেছে৷ খাদ্যে ভেজাল সম্পর্কে পাঠকদের সচেতন করার জন্য তাঁরা তিনজনই ডয়চে ভেলেকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়েছেন৷

অর্জুন বৈদ্য বলেছেন, খাদ্যে রাজনীতির ভেজাল নয়, বাংলাদেশের রাজনীতিবিদদের চরিত্রের মধ্যে ভেজাল আছে৷ তাই নাকি এখন মানুষও ভেজাল হয়ে গেছে৷ আর সে কারণে মানুষ এসবে এতটাই অভ্যস্ত হয়ে গেছে যে ভেজালই নাকি এখন খাটি মনে হয়৷

আতিকুর লেটুও কিন্তু অর্জুন বৈদ্যের সাথে একমত৷ তাঁর মতেও সবকিছুর মতো দেশের মানুষও এখন ভেজাল৷

পাঠক তনমন, অর্জুন বৈদ্যও আতিকুর লেটুর সাথে একমত প্রকাশ করে লিখেছেন, ‘‘একথা শতকরা একশোভাগই সত্য৷''

‘‘সরকারের উচিত খাদ্য নিরাপত্তায় আরও কঠোর পদক্ষেপ নেয়া৷ শুধু আইন করে রেখে দিলেই হবে না, আইনের শক্তিশালী প্রয়োগ ঘটাতে হবে৷ তবে হ্যাঁ, সরকারের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের ছেলে-মেয়ে বা পরিবারবর্গের কেউ যদি আমাদের সাধারণ মানুষদের মতো ঐসব ভেজাল খাবার খেতো আর অসুখ হতো তবে কবেই দেখতেন আইনের সুপ্রয়োগ! আফসোস আমাদের!'' - খাদ্যে ভেজাল সম্পর্কে ডয়চে ভেলের ফেসবুক পাতায় এই মন্তব্য করেছেন বন্ধু রূপম আহমেদ৷

আর অন্যদিকে ‘কেমন অসহায়ের মতো' ছদ্মনামে একজন পাঠক লিখেছেন, ‘‘জেনে না জেনে তাই সব খেতে হবে, কিছুই করার নাই৷''

সংকলন: নুরুননাহার সাত্তার

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন