কয়লা বিদ্যুৎ বন্ধের দাবিতে বনে বিক্ষোভ | বিশ্ব | DW | 04.11.2017
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি

কয়লা বিদ্যুৎ বন্ধের দাবিতে বনে বিক্ষোভ

কয়লাভিত্তিক জ্বালানি উৎপাদন বন্ধের দাবিতে জার্মানির বন শহরে এগারো হাজারের বেশি মানুষ এক প্রতিবাদ সমাবেশে অংশ নিয়েছেন৷ আন্তর্জাতিক জলবায়ু সম্মেলন কপ২৩-এর দু’দিন আগে এই সমাবেশ আলোড়ন সৃষ্টি করেছে৷

জার্মানির প্রাক্তন রাজধানী বনে শনিবার জীবাশ্ম জ্বালানীর ব্যবহার বন্ধের দাবিতে কয়েকহাজার মানুষ প্রতিবাদ ব়্যালিতে অংশ নিয়েছেন৷ এ সময় তাদের হাতে ছিল ‘‘বিপ্লব, দূষণ নয়,''‘‘ট্রাম্প: জলবায়ু গণহত্যাকারী'' লেখাসহ নানা ব্যানার৷ জার্মান সরকারের বিদ্যুৎ উৎপাদনে  কয়লার উপর নির্ভরশীলতারও সমালোচনা করেন প্রতিবাদকারীরা৷

বনে কয়লাবিরোধী সমাবেশে ১০০-র মতো পরিবেশ এবং উন্নয়নসংস্থা এবং ২৫,০০০ বিক্ষোভকারী অংশ নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন সমাবেশের আয়োজকরা৷ তবে পুলিশ জানিয়েছে, সমাবেশে অংশগ্রহণকারীর সংখ্যা ছিল ১১,০০০-এর বেশি৷

জার্মানির আসন্ন জোট সরকারের সম্ভাব্য শরিক দল গ্রিন পার্টির উল্লেখযোগ্য উপস্থিতি ছিল শনিবারের সমাবেশে৷ সেখানে উপস্থিত ছিলেন দলটির বাংলাদেশি জার্মান রাজনীতিবিদ সাহাবুদ্দিন মিয়া৷ তিনি বলেন, ‘‘ভবিষ্যত জোট সরকারের অংশ হওয়ার ক্ষেত্রে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র বন্ধের দিকে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে গ্রিন পার্টি৷ আমরা চাই জার্মানির ত্রিশটি কয়লাবিদ্যুৎকেন্দ্র পুরোপুরি বন্ধ করে দেয়া হোক৷''

ফ্রেন্ডস অব দ্য আর্থের জার্মান সংস্করণ বুন্ড-এর চেয়ারম্যান হুবার্ট ভাইগার বিক্ষোভকারীদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘‘প্যারিসে ২০১৫ সালে জলবায়ু উদ্ধারে যে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে, সেই লক্ষ্যমাত্রায় জার্মানির যা হিস্যা রয়েছে তা বাস্তবায়নে দেশটিতে ১৫০ বছর ধরে চলা শিল্পায়নের উদ্দেশ্যে কয়লা উত্তোলন বন্ধ করতে হবে৷''

বনে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য প্রদানকালে জার্মানির কোলন এবং লাওসিৎস এলাকায় বিশাল উন্মুক্ত কয়লাখনি থেকে কয়লা উত্তোলন অনতিবিলম্বে বন্ধের দাবি জানান ভাইগার৷ জার্মানি এখনো বিশ্বের প্রথম ১৫টি কয়লা উৎপাদনকারী দেশের মধ্যে রয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘‘প্যারিসে সম্মত হওয়া জলবায়ু লক্ষ্যমাত্রা পূরণে কেন্দ্রীয় সরকারকে যথাযথ উদ্যোগ নিতে হবে৷''

এদিকে, বনের এই প্রতিবাদ সমাবেশের প্রতি সমর্থন জানাতে জার্মানির কোলন শহর থেকে এক হাজারের মতো প্রতিবাদকারী ত্রিশ কিলোমিটারের মতো পথ সাইকেল চালিয়ে বনে হাজির হন৷ এই প্রতিবাদকারীরা মূলত গাড়ির বদলে সাইকেল চালিয়ে পরিবেশ রক্ষার দিকে মনোযোগী হতে সাধারণ মানুষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে৷

উল্লেখ্য, সোমবার থেকে বন শহরে শুরু হচ্ছে আন্তর্জাতিক জলবায়ু সম্মেলন কপ২৩৷ বিশ্বের ১৯৭টি দেশের ২৩,০০০-এর মতো সরকারি এবং বেসরকারি প্রতিনিধিরা দুই সপ্তাহের এই সম্মেলনে অংশ নেবেন৷ এতে বিশ্বের উষ্ণতা বৃদ্ধি এক দশমিক পাঁচ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে রাখতে সম্পাদিত প্যারিস চুক্তি বাস্তবায়নের উপায় নিয়ে আলোচনা করা হবে৷ 

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়