ক্রিকেট থেকে ফুটবল? | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 10.04.2011
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

ক্রিকেট থেকে ফুটবল?

ক্রিকেট বস্তুটি যে কি, তা অধিকাংশ জার্মানের জানা নেই৷ এই পরিস্থিতিতে ভারতের ক্রিকেট বিশ্বকাপ জয় জার্মান সংবাদমাধ্যমে যে পরিমাণ কভারেজ পেয়েছে, সেটা রীতিমতো বিস্ময়কর৷

default

স্যুদডয়েচে সাইটুং কিংবা ফ্রাংকফুর্টার আলগেমাইনে সাইটুং'এর মতো মুখ্য জাতীয় দৈনিকগুলিতে সুদীর্ঘ প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে৷ তবে প্রতিবেদনগুলিতে খেলার বিবরণের চেয়ে ম্যাচের সময় এবং ম্যাচ শেষ হওয়ার পর ১০০ কোটি মানুষের প্রথমে রুদ্ধশ্বাস প্রতীক্ষা এবং পরে বাঁধভাঙা আনন্দের অনুভূতিগুলিই ফুটে উঠেছে৷ স্যুদডয়েচে সাইটুং লিখেছে, খেলা চলার সময়:

দিল্লি-মুম্বই'এর মতো মহানগরীগুলির সাধারণত যানজটে ভরা রাস্তাগুলিও জনশূ্ন্য৷ এবং শুধু এখানেই নয়... দক্ষিণের কেরালা রাজ্যে বহু জেলে মাছ ধরতে যায়নি৷ রিকশা চালকরা যাত্রী না তুলে কোনো নিখরচার টেলিভিশনের সামনে গিয়ে জুটেছে৷

আর খেলা জেতার পরে আনন্দের জোয়ার? পত্রিকাটি লিখছে:

সেমিফাইনালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সাফল্যের পর গোটা জাতি যেন একটা ঘোরে ছিল৷ এবার তাদের মানসিক অবস্থা বর্ণনা করার জন্য নতুন সব শব্দসমষ্টি উদ্ভাবন করতে হবে৷

ফ্রাংকফুর্টার আলগেমাইনে সাইটুং কিন্তু সবশেষে স্মরণ করিয়ে দিয়েছে:

আগামীতে ক্রিকেট নির্দ্বিধায় ভারতের পয়লা নম্বর স্পোর্ট থাকবে৷ কিন্তু বর্তমানে তরুণ ভারতীয়রা ক্রমেই আরো বেশি করে যে একমাত্র আন্তর্জাতিক খেলাটির দিকে ঝুঁকছে, তার নাম ফুটবল৷ সেক্ষেত্রে সমস্যা হল, ভারতীয় ফুটবল সবে পেশাদারিত্বের সূচনায়৷ ফুটবলে এশিয়ায় একটি শক্তি হয়ে উঠতে ভারতের নিঃসন্দেহে দশ বছর কি তার বেশি সময় লাগবে৷... ওদিকে মুম্বই'এর যে শিবাজী পার্কে কিশোর তেন্ডুলকর এককালে ব্যাট হাতে করতে শেখেন, সেখানে আজ শিশুরা ফুটবল খেলে... ইউরোপের বড় ক্লাবগুলোর জার্সি গায়ে চড়িয়ে মেসি, ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডো কি রুনি'র স্বপ্ন দেখে৷

গ্রন্থনা: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন