ক্রিকেটারদের ধর্মঘটে ষড়যন্ত্র দেখছেন বিসিবি প্রধান | বিশ্ব | DW | 22.10.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

ক্রিকেটারদের ধর্মঘটে ষড়যন্ত্র দেখছেন বিসিবি প্রধান

এগারো দফা দাবি তুলে দেশের ক্রিকেটারদের ডাকা ধর্মঘটের পেছনে ষড়যন্ত্র দেখছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)-র সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন৷ দাবিগুলো বিসিবিকে জানালে মেনে নেয়া হতো বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি৷

মিরপুর অ্যাকাডেমি মাঠে গত সোমবার সংবাদ সম্মেলন করে ধর্মঘটের ডাক দেন সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিমসহ অন্য ক্রিকেটাররা৷ এর প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে বোর্ডের অবস্থান তুলে ধরেন পাপন৷

তিনি বলেন, ‘‘যেসব দাবি খেলোয়াড়রা সংবাদমাধ্যমের সামনে তুলেছে, তার মধ্যে এমন কিছু নেই যা বিসিবির সামনে তুললে পূরণ হতো না৷ এরপরও ক্রিকেটাররা কেন তাদের দাবি-দাওয়া বিসিবিকে না বলে সাংবাদমাধ্যমে বললো, সেটা বোধগম্য নয়৷''

তিনটি টি-টোয়েন্টি ও দুটি টেস্ট খেলতে ভারত সফরে যাওয়ার কথা রয়েছে বাংলাদেশ জাতীয় দলের৷ এমন সময় খেলোয়াড়দের এ কর্মসূচিকে ওই সফরটি ভেস্তে দেওয়ার ষড়যন্ত্র বলেও মনে করেন বিসিবি সভাপতি৷

ক্রিকেটারদের ধর্মঘট নিয়ে বিসিবিতে বোর্ড পরিচালকদের সঙ্গে এক জরুরি সভার পর সংবাদ সম্মেলেনে আসেন তিনি৷

ক্রিকেটারদের ১১ দফা দাবির অনেকগুলোই পূরণ করা হয়েছে বা হওয়ার প্রক্রিয়ায় রয়েছে দাবি করে বোর্ড প্রধান বলেন, ‘‘দাবি ওরা জানাতেই পারে, খুবই ন্যাচারাল৷ কিন্তু সেটির জন্য তারা স্ট্রাইকে গেছে, এটা এক্সট্রিমলি শকিং৷ আমার বিশ্বাসই হচ্ছে না, আমাদের খেলোয়াড়দের কাছ থেকে এমন কিছু হতে পারে৷’’

‘‘ওদের সঙ্গে আমার ব্যক্তিগত সম্পর্ক আছে৷ আমার চেয়ে বেশি মনে হয় না কেউ যোগাযোগ রাখে৷ ব্যক্তিগত সম্পর্ক থেকে শুরু করে সবকিছুতে কথা হয়৷ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছেও ওদের অ্যাকসেস আছে৷ বলার কিছু থাকলে ওরা বলতে পারত৷‘‘

নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘‘ওরা তো চাইলেই পাবে, আসেনি কেন? আমাদের কাছে চাচ্ছে না কেন? ফোন ধরছে না৷ সবকিছুর পেছনে কারণ আছে৷ আমাদের কাছে না গিয়ে মিডিয়ায় বলেছে, সেটির পেছনে বিশেষ কারণ আছে৷ আমাদের সুযোগ না দিয়ে মিডিয়ায় গিয়েছে, এটি বিশেষ একটি পরিকল্পনার অংশ৷’’

‘‘পরিকল্পিতভাবে করা হচ্ছে৷ একজন লোকই আছেন, যিনি বারবার এসব করছেন৷ বাংলাদেশের ক্রিকেটকে অস্থিতিশীল করার চক্রান্ত চলছে৷ এই ষড়যন্ত্রের কথা সরকার থেকে শুরু করে সবাই জানে৷ সব ক্রিকেটার এটির সঙ্গে জেনে-শুনে জড়িয়েছেন বলে মনে হয় না৷ ১-২ জন জানতে পারে। এই মুহূর্তে বের করা দরকার, কারা এই কাজ করছে৷ কিছুদিনের সময় চাচ্ছি আপনাদের কাছে, সব বের করে ফেলব৷’’

বিসিবি প্রধানের ভাষ্য, ‘‘খেলোয়াড়রা না খেললে খেলবে না৷ আমাদের কিছু করার নেই৷ ওরা ক্যাম্পে গেলে ভালো, না গেলে যাবে না৷ ক্রিকেটারদের ব্যবহার করা হচ্ছে৷ তারা নিজেরাও জানে না৷ দু’একজন জানতে পারে৷ আমার দুয়ার ওদের জন্য খোলা৷ ওরা যদি আমার কাছে আসে, অবশ্যই কথা হবে৷ আমি তো কথা বলতেই চাই৷ আমি আশা করি ক্যাম্প চলবে, ভারত সফর হবে৷’’

এসআই/এসিবি (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন