ক্যান্সার রোগীর শেষ ইচ্ছা পূরণ | বিশ্ব | DW | 26.10.2017
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ভাইরাল ভিডিও

ক্যান্সার রোগীর শেষ ইচ্ছা পূরণ

মৃত্যুপথযাত্রীর শেষ ইচ্ছা পূরণ করা নিঃসন্দেহে মহৎ প্রাণের লক্ষণ৷ সেই কাজটিই যদি একজন নার্স বা ‘সেবিকা’ করেন, তাহলে বোধহয় ‘সেবিকা’ পেশাটির যথার্থ প্রয়োগই হয়৷ সম্প্রতি ভাইরাল হওয়া এক ভিডিওতে এমন এক নার্সের দেখা পাওয়া গেছে৷

default

প্রতীকী ছবি

এ নিয়ে স্থানীয় টেলিভিশনে রিপোর্টও হয়েছে৷

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের টেনিসি রাজ্যের একটি মেডিক্যাল সেন্টারে মার্গারেট স্মিথ নামে ৬৩ বছর বয়সি এক ক্যান্সার রোগী ভর্তি হন৷ প্রায় এক বছর ধরে লিভার ক্যান্সারে আক্রান্ত মার্গারেটের অবস্থা এতটাই খারাপ ছিল যে, ডাক্তার তার লিভার  ট্রান্সপ্ল্যান্ট অপারেশনও করতে পারছিলেন না৷

সেই মেডিক্যাল সেন্টারে অলিভিয়া ন্যুফেল্ডার নামে এক নার্স স্মিথের দেখাশুনা করতেন৷ অল্প সময়ে তাঁকে খুব আপন করে নিয়েছিলেন এই নার্স৷ শুধু তাই নয়, মার্গারেটের এক বন্ধুর কাছ থেকে জেনে নিয়ে তাঁকে  হাসপাতালের বিছানায় প্রিয় গানও শুনিয়েছেন অলিভিয়া৷ 

নিজের শেষকৃত্যে ‘ড্যান্সিং ইন দ্য স্কাই' শিরোনামের একটি গান যেন বাজানো হয়, মার্গারেট এমন ইচ্ছার কথা জানিয়েছিলেন তাঁর ঘনিষ্ঠ এক বন্ধুকে৷ আর এটিই ছিল তাঁর শেষ ইচ্ছা৷ অলিভিয়া তাঁকে সেই গানটিই গেয়ে শোনান৷ গান গাওয়ার সময় তিনি মার্গারেটের হাত ধরে ছিলেন৷ এক পর্যায়ে আপ্লুত হয়ে তাঁকে নিজের চোখও মুছতে দেখা যায়৷

পরে এক সাক্ষাৎকারেও আপ্লুত হয়ে পড়ার কথা স্বীকার করেছেন নার্স অলিভিয়া৷ জানিয়েছেন, মানবিক কাজ করতে গিয়ে সত্যিই কীভাবে যেন মানুষের সাথে তাঁর আত্মার সম্পর্ক গড়ে ওঠে৷

গানের ভিডিওটি ধারণ করেন মার্গারেটের সেই ঘনিষ্ঠ বন্ধু৷ বুধবার পোস্ট করার পর মাত্র একদিনেই ২০ লাখেরও বেশিবার ভিডিওটি দেখা হয়েছে৷

তবে দুঃখজনক হলেও সত্যি, শেষ পর্যন্ত মৃত্যুর কাছে হার মানতে হয় মার্গারেটকে৷ ভীষণ অসুস্থ হয়ে পড়ায় তাঁকে অন্য এক ক্লিনিকে নিয়ে যাওয়া হয়৷ সেখানেই তাঁর মৃত্যু হয়৷  

এএম/এসিবি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন