ক্যান্সার কেড়ে নিল ক্রিকেটার মোশাররফ রুবেলের জীবন | বিশ্ব | DW | 19.04.2022

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ক্রিকেট

ক্যান্সার কেড়ে নিল ক্রিকেটার মোশাররফ রুবেলের জীবন

বাংলাদেশের প্রথম ওয়ানডেতে খেলা সাবেক পেসার সামিউর রহমান পৃথিবীর মায়া ছেড়ে চলে গেলেন আজ সকালে ৷ আর বিকেলে ক্যান্সারের সঙ্গে তিন বছর তুমুল লড়াইয়ের পর চিরনিদ্রায় মোশাররফ হোসেন রুবেল৷

ক্রিকেটার মোশারফ হোসেন রুবেল

ক্রিকেটার মোশারফ হোসেন রুবেল

হুট করে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে মঙ্গলবার বিকেলে ঢাকার একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় মোশাররফকে৷ সেখানে চিকিৎসকেরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন৷ সাবেক এই বাঁহাতি স্পিনারের বয়স হয়েছিল ৪০ বছর৷

বাংলাদেশের হয়ে ৫টি ওয়ানডে খেলা মোশাররফ ঘরোয়া ক্রিকেটে ছিলেন দারুণ সফল৷  সবশেষ মাঠে নামেন তিনি ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারিতে বিপিএলে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের হয়ে৷ বিপিএল চলাকালে তিনি কিছুটা অসুস্থ হয়ে পড়েন৷ টুর্নামেন্ট শেষে অল্প সময়ের মধ্যে কয়েক দফা জ্ঞান হারালে পরীক্ষা করানো হয় নানারকম৷ তাতেই ধরা পড়ে, তার মস্তিষ্কে বাসা বেঁধেছে টিউমার৷ দ্রুতই তাকে সিঙ্গাপুরে নিয়ে যাওয়া হয়৷ সেখানে অস্ত্রোপচারও সফল হয়৷

প্রায় এক বছর ধরে চিকিৎসার পর মোটামুটি সুস্থ হয়ে ওঠেন রুবেল৷ টুকটাক মাঠে আসাও শুরু করেন সেসময়৷ আবার প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে ফেরার আশাও করেন কিন্তু কোভিডের কারণে বন্ধ হয়ে যায় সব ধরনের খেলাধুলা৷ ওই বছরের নভেম্বরে আবার অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি৷ পরীক্ষায় ধরা পড়ে, টিউমার ফিরে এসেছে আবার৷

এরপর দেশে ও বিদেশে তার চিকিৎসা চলতে থাকে৷ কেমোথেরাপি দেওয়া হয় দফায় দফায়৷ গত কয়েক মাস ধরেই একদমই ছিলেন শয্যাশায়ী৷ গত মাসে অবস্থা গুরুতর হলে হাসপাতালে নেওয়া হয় তাকে৷ সেখানে বেশ কিছুদিন নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে রাখার পর অবস্থার একটু উন্নতি হয়৷

গত ১০ এপ্রিল ফেসবুকে একটি পোস্টে নিজের জন্য দোয়া চান মোশাররফ রুবেল৷ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সেটিই তার শেষ উপস্থিতি৷ দিন তিনেক আগে তার স্ত্রী চৈতি ফারহানা ফেসবুকে জানান, বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে মোশাররফকে৷ কিন্তু আচমকা শরীর খারাপ করার পর এবার পাড়ি দিলেন ওপারে৷

২০০৮ সালে বাংলাদেশের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক মোশাররফের৷ দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে তিন ওয়ানডেতে এক উইকেট নেওয়ার পর বাদ পড়েন৷ দীর্ঘ বিরতির পর ২০১৬ সালে ফিরে আফগানিস্তানের বিপক্ষে একটি ওয়ানডে খেলে ৩ উইকেট নিয়ে অবদান রাখেন দলের জয়ে৷ কদিন পর আরেকটি ওয়ানডে খেলেন ইংল্যান্ডের বিপক্ষে৷ সেটিতে উইকেটশূন্য থাকার পর জায়গা হারান দলে, আর ফেরা হয়নি৷

ঘরোয়া ক্রিকেটের শীর্ষ পর্যায়ে তার ক্যারিয়ার প্রায় দুই দশকের৷ প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ১১২ ম্যাচ খেলে ৩৯২ উইকেট তার৷ সেরা বোলিং ১০৫ রানে ৯ উইকেট৷ ব্যাট হাতেও তিনি ছিলেন যথেষ্ট কার্যকর৷ ২টি সেঞ্চুরি ও ১৬ ফিফটিতে রান করেছেন ৩ হাজার ৩০৫৷

লিস্ট ‘এ' ক্রিকেটে ১০৪ ম্যাচে তার উইকেট ১২০টি, ৮ ফিফটিতে রান দেড় হাজারের বেশি৷ টি-টোয়েন্টিতে ৫৬ ম্যাচে উইকেট ৬০টি৷

ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার পর তার লড়াইয়ে নানাভাবে পাশে থেকেছে ক্রিকেট বোর্ড, বর্তমান-সাবেক ক্রিকেটাররা এবং ক্রিকেট সংশ্লিষ্ট অনেক মানুষ ও সংগঠন৷ কঠিন এই লড়াইয়ে নিরন্তর সঙ্গী ছিলেন তার স্ত্রী৷ কিন্তু সবার প্রচেষ্টা আর ভালোবাসাকে ছিন্ন করে চরম নিয়তি মেনে নিতে হলো রুবেলকে৷

এনএস/কেএম (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়