1. কন্টেন্টে যান
  2. মূল মেন্যুতে যান
  3. আরো ডয়চে ভেলে সাইটে যান
Symbolbild Patient Krebs Krebspatient jung
ছবি: Colourbox

ক্যানসার মোকাবিলায় সুনির্দিষ্ট টিকা

৫ এপ্রিল ২০২১

সবার জন্য ঢালাও ওষুধ বা চিকিৎসার বদলে রোগীর শারীরিক অবস্থা অনুযায়ী নির্দিষ্ট সমাধানসূত্র ক্যানসারের মতো রোগ সারাতে বিশাল ভূমিকা রাখতে পারে৷ টিউমার দমন করতে এমন টিকা তৈরির কাজে অগ্রগতি ঘটছে৷

https://p.dw.com/p/3racZ

নির্দিষ্ট ব্যক্তির শরীরে নির্দিষ্ট টিউমারের জন্য আলাদা করে টিকা – তাও আবার দ্রুত, কার্যকর এবং পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াবিহীন৷ ক্যানসার মোকাবিলায় মেসেঞ্জার আরএনএ প্রযুক্তি এমনই প্রতিশ্রুতি বয়ে আনছে৷

হামবুর্গ শহরের এক হাসপাতালের টিউমার সেন্টার সেই প্রযুক্তির জন্য অপেক্ষা করছে৷ ডিয়র্ক আর্নল্ড ও তার সহকর্মীরা কয়েক মাসের মধ্যেই সেই লক্ষ্যে এক ক্লিনিকাল স্টাডি শুরু করবেন৷ ইউরোপের অন্য কয়েকটি কেন্দ্রেও সেই পরীক্ষা চালানো হবে৷ প্রো. আর্নল্ড বলেন, ‘‘প্রতিপক্ষ, অর্থাৎ টিউমারের বিরুদ্ধে নিজস্ব ক্ষমতা কাজে লাগিয়ে লড়াই করার জন্য ইমিউন সিস্টেমকে প্রস্তুত করে তোলা আধুনিক প্রচেষ্টার মধ্যে পড়ে৷''

সমস্যা হলো, আক্রান্ত টিউমার বহু বছর ধরে মানুষের ইমিউন সিস্টেমকে ফাঁকি দিতে পারে৷ ছদ্মবেশ ধারণ করে শরীরের নিজস্ব প্রতিরোধ ক্ষমতার সামনে সেটি নিজেকে শত্রু হিসেবে চিনতে দেয় না৷ অথবা সেই প্রতিরোধ শক্তি এতই দুর্বল যে ক্যানসার কোষগুলিকে দমিয়ে রাখার ক্ষমতা নেই৷ ফলে টিউমার বিনা বাধায় বেড়ে উঠতে পারে৷

অপারেশনের মাধ্যমে টিউমার এবং মেটাস্টেসেস অপসারণ করা সম্ভব৷ কিন্তু নতুন করে টিউমারের মাথাচাড়া দেবার ঝুঁকি এড়াতে আরো কিছু পদক্ষেপের প্রয়োজন রয়েছে৷ এই ঝুঁকি ব্যাখ্যা করে অধ্যাপক ডিয়র্ক আর্নল্ড বলেন, ‘‘এমনকি বিশ্বের সেরা সার্জেনের ক্ষমতাও এ ক্ষেত্রে সীমিত৷ শরীরের কোনো এক অংশে টিউমার কোষ লুকিয়ে থাকলে, বংশবৃদ্ধি না করলে সেটি সহজে শনাক্ত করা যায় না৷ রোগের বায়োলজিও তিনি বদলাতে পারেন না৷ বায়োলজির অর্থ, ঘুমন্ত টিউমার কোষ অনেক সময় ধরে টিকে থাকতে পারে৷ তারপর ঘুম থেকে উঠে সেটি বংশবৃদ্ধি করতে পারে৷''

নতুন মেসেঞ্জার আরএনএ টিকার মাধ্যমে নিজস্ব ইমিউন সিস্টেমকে এতটা শক্তিশালী করে তোলার চেষ্টা চলছে, যাতে সেটি নিজস্ব ক্ষমতায় টিউমারের মোকাবিলা করতে পারে৷ প্রচলিত টিকার মতো এ ক্ষেত্রে শত্রুর মৃত অংশবিশেষ শরীরে প্রবেশ করানো হয় না৷ তার বদলে টিউমারের নির্দিষ্ট প্রোটিনের কাঠামো ইঞ্জেকশনের মাধ্যমে পেশির কোষের মধ্যে চালান করা হয়৷

সেই কাঠামোর নির্দেশাবলী অনুযায়ী শরীর নিজস্ব ক্ষমতা কাজে লাগিয়ে টিউমারের বিল্ডিং ব্লক তৈরি করে৷ শরীরের ইমিউন সিস্টেম তখন সেটিকে বহিরাগত হিসেবে শনাক্ত করে অ্যান্টিবডির জন্ম দেয়৷ প্রতিপক্ষকে চিনে নিয়ে সংগ্রামের প্রস্তুতি শুরু হয়ে যায়৷ জার্মান ক্যানসার গবেষণা কেন্দ্রের নিল্স হালামা বলেন, ‘‘এ ক্ষেত্রে উৎপাদন প্রক্রিয়া বদলে দেওয়া হয়৷ ল্যাব অথবা জটিল প্রযুক্তির মাধ্যমে নয়, গোটা প্রক্রিয়া বরং রোগীর শরীরের মধ্যে স্থানান্তরিত করে সেখানেই উৎপাদন করা হয়৷ ফলে শরীর সেটি ভালোভাবে গ্রহণ করতে পারে এবং ইমিউন সিস্টেমও সেটি একইভাবে চিনতে পারে৷''

সেইসঙ্গে গবেষকরা আশা করছেন যে, টিকার মাধ্যমে ইমিউন সিস্টেম আগে থেকেই রক্তে টিউমার কোষ চিহ্নিত করতে পারবে৷ ফলে অন্য কোথাও মেটাস্টেসেস তৈরির সময়ই থাকবে না৷ প্রোফেসর আর্নল্ড বলেন, ‘‘নিজস্ব ইমিউন সিস্টেমের মাধ্যমে টিউমারের অতি কম পরিমাণ অবশিষ্ট অংশ হয় নিয়ন্ত্রণে রাখা কিংবা ধ্বংস করাই হলো লক্ষ্য৷ এভাবে নিরাময়ের সম্ভাবনা অনেক বেড়ে যাবে৷''

জার্মানির মাইনৎস শহরের বায়োনটেক কোম্পানি মেসেঞ্জার আরএনএ টিকা তৈরির কাজ করছে৷ সেই কোম্পানির কোভিড-১৯ টিকাও একই প্রযুক্তির ভিত্তিতে তৈরি হয়েছে৷

জার্মানির ট্যুবিঙেন শহরের কিয়োরভ্যাক এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মডার্না কোম্পানিও মেসেঞ্জার আরএনএ প্রযুক্তি কাজে লাগাচ্ছে৷ করোনা ভাইরাস ও ক্যানসার মোকাবিলার ক্ষেত্রে এই প্রযুক্তি যথেষ্ট কার্যকর হতে পারে৷ টিউমার রোগীদের জন্য ভবিষ্যতে আলাদা করে দ্রুত টিকা তৈরি করাই এই উদ্যোগের লক্ষ্য৷ নিল্স হালামা মনে করেন, ‘‘এটা সত্যি এক মাইলফলক৷ কারণ আমরা মাস অথবা বছর নয়, কয়েক সপ্তাহের মধ্যে টিকা তৈরির কথা বলছি৷ ফলে তাৎপর্য এবং সম্ভাব্য কার্যকারিতার বিচারে সম্পূর্ণ নতুন এক ক্ষেত্র খুলে যাচ্ছে৷''

কয়েক বছরের মধ্যে এই উদ্যোগের সুফল পাওয়ার কথা৷ ক্যানসারের বিরুদ্ধে সংগ্রামের ক্ষেত্রে নতুন এই প্রযুক্তি জোরালো হাতিয়ার হয়ে উঠবে বলে গোটা বিশ্বের টিউমার বিশেষজ্ঞরা আশা করছেন৷

বির্গিট আউগুস্টিন/এসবি

স্কিপ নেক্সট সেকশন এই বিষয়ে আরো তথ্য
স্কিপ নেক্সট সেকশন সম্পর্কিত বিষয়

সম্পর্কিত বিষয়

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

এমবাপের জোড়া গোলে অনায়াস জয় ফ্রান্সের

এমবাপের জোড়া গোলে কোয়ার্টার ফাইনালে ফ্রান্স

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

প্রথম পাতায় যান