কোপেনহাগেনে শপিং মলে গুলি, মৃত তিন | বিশ্ব | DW | 04.07.2022

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ডেনমার্ক

কোপেনহাগেনে শপিং মলে গুলি, মৃত তিন

পুলিশ একজন অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে। সন্ত্রাসবাদী ঘটনা কিনা, তা পুলিশ খতিয়ে দেখছে।

গুলিচালনার পর পুলিশ একজনকে গ্রেপ্তার করেছে।

গুলিচালনার পর পুলিশ একজনকে গ্রেপ্তার করেছে।

কোপেনহাগেন এয়ারপোর্টের কাছে ফিল্ডস শপিং মলে গুলিচালনার ঘটনা ঘটে। পুলিশ জানিয়েছে, তিনজন মারা গেছেন, তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক এবং আহত বহু। সন্ধ্যা সাড়ে পাঁচটা নাগাদ এক বন্দুকধারী নির্বিচারে গুলি চালাতে থাকে। পুলিশ পরে তাকে গ্রেপ্তার করেছে।

অভিযুক্ত ডেনমার্কেরই নাগরিক। তার বয়স ২২ বছর। তার হাতে একটা বড় বন্দুক ছিল। পুলিশ জানিয়েছে, ওই ব্যক্তির সম্ভবত আর কোনো সঙ্গী ছিল না। পুলিশ প্রধান বলেছেন, সন্ত্রাসবাদের বিষয়টি তারা উড়িয়ে দিচ্ছেন না।

কোনো একটি বিশেষ জায়গায় নয়, বন্দুকধারী শপিং মলের বিভিন্ন জায়গায় গিয়ে গুলি চালায়।

স্থানীয় মিডিয়ায় প্রকাশ করা ছবিতে দেখা যাচ্ছে, মলে প্রচুর পুলিশ রয়েছে এবং মানুষ সেখান থেকে ছুটে বের হচ্ছে। পুলিশ জানিয়েছে, রোববার সন্ধ্যায় ওখানে প্রচুর পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। শহরের অন্য জায়গাতেও প্রচুর পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ওই বন্দুকধারীর আর কোনো সঙ্গী ছিল কি না, তা খোঁজ করে দেখা হচ্ছে।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বক্তব্য

সংবাদপত্র বেরলিঙ্গস্কে মলের প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গে কথা বলেছে। তারা জানিয়েছে, গুলি চলতে শুরু করার পরই মানুষ দ্রুত মল থেকে বের হতে চান। মলে একটি দোকানের কর্মী জোহানসেন বলেছেন, তিনি পরপর বেশ কয়েক রাউন্ড গুলির শব্দ শোনেন। তিনি তখন দোকানে কাউন্টারের পিছনে ছিলেন। তিনি দেখতে পান, মানুষ দৌড়ে পালাতে চাইছে।

গুলির পর মল থেকে মানুষ দৌড়ে পালাতে থাকেন।

গুলির পর মল থেকে মানুষ দৌড়ে পালাতে থাকেন।

আরেক প্রত্যক্ষদর্শী লেভান্ডভস্কি জানিয়েছেন, মানুষ প্রথমে ভেবেছিল, কোনো চোর ঢুকে পড়েছে। তারপরই তিনি গুলির শব্দ পান। তিনি তখন কাউন্টারের পিছনে চলে যান। বন্দুকধারী মানুষকে লক্ষ্য করে গুলি চালাচ্ছিল।

এই মলের কাছেই রয়্যাল এরিনা। সেখানে রক স্টার হ্যারি স্টাইলসের অনুষ্ঠান কয়েক ঘণ্টা পরেই শুরু হওয়ার কথা ছিল। পরে সেই অনুষ্ঠান বাতিল করা হয়।

পরে রক স্টার টুইট করে বলেছেন, ''এই ঘটনায় মৃতদের পরিবারকে সহানুভূতি জানাচ্ছি। তাদের সবার জন্য প্রার্থনা করছি। আমি শোকস্তব্ধ।''

এছাড়াও একটি সাইকেল রেসিং ইভেন্টও বাতিল করা হয়।

সপ্তাখানেক আগেই নরওয়েতে একটি বার-এ বন্দুকধারীর গুলিতে দুইজন মারা গেছেন, ২১ জন আহত হয়েছিলেন। এবার ডেনমার্কে এই ঘটনা ঘটলো।

জিএইচ/এসজি(এএফপি, রয়টার্স, ডিপিএ)