1. কন্টেন্টে যান
  2. মূল মেন্যুতে যান
  3. আরো ডয়চে ভেলে সাইটে যান
Kenia Nairobi | William Ruto gewinnt Präsidentschaftswahl
ছবি: TONY KARUMBA/AFP/Getty Images
সমাজকেনিয়া

কেনিয়া : গোলযোগ সত্ত্বেও রুটোকে জয়ী ঘোষণা

১৬ আগস্ট ২০২২

বিরোধী সমর্থকদের প্রবল অসন্তোষ সত্ত্বেও কেনিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে সাবেক ডেপুটি প্রেসিডেন্ট উইলিয়াম রুটোকে জয়ী ঘোষণা করা হয়েছে৷ প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে আবার হেরে গেছেন দীর্ঘদিনের বিরোধী নেতা রাইলা ওডিঙ্গা৷

https://www.dw.com/bn/%E0%A6%95%E0%A7%87%E0%A6%A8%E0%A6%BF%E0%A7%9F%E0%A6%BE-%E0%A6%AD%E0%A7%87%E0%A6%BE%E0%A6%9F%E0%A6%97%E0%A6%A3%E0%A6%A8%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%B8%E0%A6%AE%E0%A7%9F-%E0%A6%97%E0%A7%87%E0%A6%BE%E0%A6%B2%E0%A6%AF%E0%A7%87%E0%A6%BE%E0%A6%97-%E0%A6%B8%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%AC%E0%A7%87%E0%A6%93-%E0%A6%B0%E0%A7%81%E0%A6%9F%E0%A7%87%E0%A6%BE%E0%A6%95%E0%A7%87-%E0%A6%9C%E0%A7%9F%E0%A7%80-%E0%A6%98%E0%A7%87%E0%A6%BE%E0%A6%B7%E0%A6%A3%E0%A6%BE/a-62823587

তবে নির্বাচন পরিচালনাকারী কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তারা সর্বসম্মতিক্রমে রুটোকে বিজয়ী ঘোষণা করেননি৷ বরং ঘোষণার একটু আগে ইনডিপেন্টেন্ট ইলেক্টোরাল অ্যান্ড বাউন্ডারিস কমিশন (আইবিসি)-র ভাইস চেয়ারপার্সন জুলিয়ানা চেরেরা বলেন, ‘‘যে ঘোষণা দেয়া হবে তার দায় আমরা নিতে পারবো না৷'' তার মতে, প্রক্রিয়াটা ছিল ‘অস্বচ্ছ'৷

তাকে বিজয়ী ঘোষণা করার পর রুটো বলেন, ‘‘এই নির্বাচনে কেউ হারেনি৷ জিতেছে কেনিয়ার জনগণ, কারণ আমরা এর মাধ্যমে আমাদের রাজনৈতিক উচ্চতা বাড়িয়েছি৷''

সোমবার নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার আগে থেকেই শুরু হয় গোলযোগ৷ নির্বাচন কর্মকর্তা্ এবং সাধারণ মানুষদের উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়ে জড়াতে দেখা যায়৷ এক ভিডিওতে দেখা যায়, ফলাফল ঘোষণার মঞ্চে উঠে পোডিয়াম ছুড়ে মারছেন একজন৷ কূটনীতিকদের তখন দ্রুত নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়া হয়৷

ফলাফল ঘোষণার পরের গোলযোগের এক পর্যায়ে দুই নির্বাচন কর্মকর্তা আহত হয়েছেন বলেও জানা গেছে৷

ডয়চে ভেলে প্রতিনিধি ফেলিক্স মারিঙ্গা জানান, নির্বাচন পরিচালনা কর্তৃপক্ষের অভিযোগ, ‘‘ আইইবিসি সিস্টেম হ্যাক করা হয়েছিল'' এবং এর ফলে ভোট গণনাকেন্দ্রে এক সময় ‘অপরাধচিত্র'ও দেখা গেছে৷ মারিঙ্গা আরো জানান, নির্বাচন কর্মকর্তারা একে অন্যের দিকে চেয়ার ছুঁড়ে মারছেন- ভোট গণনাকে্ন্দ্রে এমন ‘কুৎসিত দৃশ্যও' দেখা গেছে৷

৯ আগস্ট অনুষ্ঠিত নির্বাচনে রুটো এবং তার প্রতিদ্বন্দ্বী ওডিঙ্গার মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয়৷

কেনিয়ার বহুল প্রচারিত দৈনিক  ডেইলি নেশন এক প্রতিবেদনে জানিয়েছিল, শতকরা ৮০ ভাগ আসনের ফলাফলে রুটো এগিয়ে আছেন৷ তবে দুই প্রার্থীর ভোটের ব্যবধান ছিল মাত্র ৩%৷ রুটো তখন পর্যন্ত পেয়েছিলেন ৫১% ভোট আর ওডিঙ্গা পেয়েছিলেন ৪৮% ভোট৷

এদিকে ফলাফল ঘোষণার পর ওডিঙ্গার শহর কিসুমুতে ব্যাপক বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে৷ ওডিঙ্গার বিক্ষুব্ধ সমর্থকদের নিয়ন্ত্রণে আনতে কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়ে পুলিশ৷ কেনিয়ার পশ্চিমাঞ্চলীয় শহরটি থেকে ডিডাব্লিউর প্রতিনিধি মারিয়ের ম্যুলার জানান, ওডিঙ্গা জিতবেন ধরে নিয়ে জয় উদযাপনের সমস্ত আয়োজন শেষ করে রেখেছিলেন সমর্থকরা৷ পরাজয়ের খবর তাই মানতে পারছেন না তারা৷

কেনিয়ার সংবিধান অনুযায়ী, ভোট গ্রহণের সাত দিনের মধ্যে নির্বাচন পরিচালনা কর্তৃপক্ষ আইইবিসি-কে ফলাফল ঘোষণা করতে হয়৷ সেই হিসেবে মঙ্গলবার ছিল ফলাফল ঘোষণার শেষ দিন৷ তার একদিন আগেই  ডেপুটি প্রেসিডেন্ট উইলিয়াম রুটোকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়৷

২০১৩ সাল থেকে বিদায়ী প্রেসিডেন্ট উহুরু কেনিয়াট্টার ডেপুটির দায়িত্ব পালন করে আসছেন ৫৫ বছর বয়সি রুটো৷ অন্যদিকে ৭৭ বছর বয়সি ওডিঙ্গা ১৯৯৭, ২০০৭, ২০১৩ এবং ২০১৭ সালের পর এই নিয়ে পঞ্চমবারের মতো প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অংশ নিলেন৷

গত সপ্তাহে কেনিয়ার ১৮৮২ টি আসনে সংসদ নির্বাচন এবং সারা দেশে স্থানীয় সরকার নির্বাচনও অনুষ্ঠিত হয়৷ ৬৫ ভাগ ভোটার ভোট দিয়েছেন সেই নির্বাচনে৷ ২০১৭ সালের নির্বাচনে ৮০% নিবন্ধিত ভোটার ভোট দিয়েছিলেন৷

এসিবি/ কেএম (রয়টার্স)

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

Saudi-Arabien | Bundeskanzler Olaf Scholz und Mohammed bin Salma

জ্বালানির খোঁজে উপসাগরীয় দেশগুলোতে জার্মান চ্যান্সেলর

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

প্রথম পাতায় যান