‘কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নয়’ | বিশ্ব | DW | 30.11.2012
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

‘কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নয়’

পোশাক কারখানায় অগ্নিকাণ্ডে প্রাণহানি প্রসঙ্গে বিজিএমইএ প্রেসিডেন্ট সফিউল ইসলাম বলেছেন, ‘কেউই আইনের ঊর্ধ্বে নয় এবং আইনকে প্রতিপালন করা আমাদের কর্তব্য’৷ তাজরিন কারখানায় অগ্নিকাণ্ডে জড়িতদের শাস্তির বিষয়ে একথা বলেন তিনি৷

ঢাকার অদূরে আশুলিয়ায় অবস্থিত তাজরিন ফ্যাশনস লিমিটেডের পোশাক কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের সূচনা হয় শনিবার রাতে৷ পরদিন জানা যায়, অগ্নিকাণ্ডে প্রাণ হারিয়েছে কমপক্ষে ১১০ ব্যক্তি৷ বাংলাদেশের পোশাক উৎপাদন এবং রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠানগুলোর সংগঠন বিজিএমইএ'র প্রেসিডেন্ট সফিউল ইসলাম এই অগ্নিকাণ্ডের বিষয়ে মঙ্গলবার বলেন, ‘‘বিষয়টি এখন তদন্তাধীন৷ এই বিষয়ে তিনটি কমিটি হয়েছে৷ তদন্ত থেকে বেরিয়ে আসবে কি কারণে এই অগ্নিকাণ্ড হয়েছে৷''

বলাবাহুল্য, বাংলাদেশে পোশাক কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা এবারই প্রথম নয়৷ গত কয়েক বছরে বেশ কয়েকবার এরকম অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে, ঘটেছে প্রাণহানি৷ সফিউল ইসলাম জানান, ১৯৯৭ সালে চৌধুরী নিটিংয়ে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় অনেক প্রাণহানির পর এই বিষয়ে সতর্ক হয় বিজিএমইএ এবং বিশেষ সেল গঠন করে অগ্নিকাণ্ড প্রতিরোধে জনসচেতনতা গড়ে তোলার কার্যক্রম শুরু করে৷

তবে বিজিএমইএ'র এসব কর্মকাণ্ড রুখতে পারেনি তাজরিনের আগুন৷ বরং কারখানাটিতে আগুন লাগার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ঝরে গেছে ১১০টি তাজা প্রাণ৷ অভিযোগ উঠেছে, কারখানাটি তিনতলা পর্যন্ত করার সরকারি অনুমতি ছিল, অথচ করা হয়েছে নয়তলা৷ তাছাড়া সেটিতে সঠিক ‘ফায়ার এক্সিট' কিংবা ‘জরুরি নির্গমন পথ' থাকলে প্রাণহানির ঘটনা আরো কম হতো বলে জানিয়েছেন শ্রমমন্ত্রী রাজিউদ্দিন আহমেদ৷ কারখানা নির্মাণের ক্ষেত্রে এসব অনিয়মের দিকে বিজিএমইএ নজর রাখছে কিনা জানতে চাইলে সফিউল ইসলাম বললেন ভিন্ন কথা৷ তাঁর দাবি, ‘‘ওখানে (তাজরিন কারখানা) তিনটি সিঁড়ি আছে৷ আমরা দেখবো সেই সিঁড়িগুলো ব্লকড ছিল কিনা৷ সেই সিঁড়ির সামনে কোন মালপত্র ছিলো কিনা৷''

সুনির্দিষ্টভাবে ‘ফায়ার এক্সিট'-এর বিষয়ে জানতে চাইলে সফিউল ইসলাম বলেন, ‘‘কারখানাটিতে তিনটি সিঁড়ি ছিল, নাহলে সেটি লাইসেন্স পেত না৷''

প্রসঙ্গত, পোশাক কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের এই ঘটনায় আন্তর্জাতিকভাবেও সমালোচনার ঝড় উঠেছে৷ বিশেষ করে যেসব ব্র্যান্ড এই কারখানায় উৎপাদিত পোশাকের ক্রেতা তাদেরকেও সমালোচনার মুখে পড়তে হচ্ছে৷ বিশ্বব্যাপী সুপরিচিত ব্র্যান্ড ওয়ালমার্ট মঙ্গলবার বাংলাদেশি পণ্য সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সম্পর্কোচ্ছেদের ঘোষণা দিয়েছে৷ ডয়চে ভেলেকে দেওয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে এই বিষয়ে সফিউল ইসলাম বলেন, ‘‘অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা কোনভাবেই একটি দেশের জন্য বা শিল্পের জন্য সুনাম বয়ে আনবে না৷ এধরনের ঘটনায় ভাবমূর্তি ক্ষতিগ্রস্ত হয়, তাতে কোন রকম সন্দেহ আমাদের নেই৷''

এক্ষেত্রে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের কয়েকটি ঘটনা উল্লেখ করে বিজিএমইএ প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘‘এই ধরনের দুর্ঘটনা কয়েকদিন আগে পাকিস্তানেও হয়েছে, কলকাতাতে হয়েছে৷ আজকে জার্মানিতে হয়েছে৷ বিষয়টি হচ্ছে এই ব্যাপারটি আমরা কতটা গুরুত্বের সঙ্গে নিচ্ছি৷ এবং কতটা গুরুত্বের সঙ্গে আগামীতে নিজেদেরকে তৈরি করছি৷''

তাজরিন কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের শাস্তি প্রদানের বিষয়ে সফিউল ইসলাম বলেন, ‘‘কেউই আইনের ঊর্ধ্বে নয় এবং আইনকে প্রতিপালন করা আমাদের কর্তব্য''৷ তবে এটি নাশকতা কিংবা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড কিনা সেটাও তদন্তে দেখা হচ্ছে বলে জানান এই ব্যবসায়ী৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন