কাশ্মীর পরিস্থিতি দিন দিন খারাপ হচ্ছে | বিশ্ব | DW | 19.09.2010
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

কাশ্মীর পরিস্থিতি দিন দিন খারাপ হচ্ছে

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের পরিস্থিতি দিন দিন খারাপ হচ্ছে৷ গত জুনে শুরু হওয়া সাম্প্রতিক বিক্ষোভে নিহতের সংখ্যা ইতিমধ্যে শতাধিক৷ পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে ভারতের সরকার সেখানে একটি প্রতিনিধিদল পাঠাচ্ছে৷

default

কাশ্মীরের সাম্প্রতিক পরিস্থিতি

কবে শুরু সাম্প্রতিক এই আন্দোলন

শুরুটা গত জুনের ১১ তারিখে৷ মানে বিশ্বকাপ যেদিন শুরু হলো সেদিন৷ সেসময় পুলিশের টিয়ারশেলে ১৭ বছরের এক বিক্ষোভকারী মারা যায়৷ এরপর থেকেই প্রায় প্রতিদিনই বিক্ষোভ হচ্ছে কাশ্মীরে৷ শুরুতে তরুণ বয়সি ছেলে ও পুরুষেরা বিক্ষোভ করলেও ইদানিং নারী ও শিশুদেরও দেখা যাচ্ছে বিক্ষোভে যোগ দিতে৷ বিক্ষোভের সময় মাঝে মাঝে নিরাপত্তা

Kaschmir Kashmir Indien Polizei Protest Demonstration Muslime Steine

পুলিশকে লক্ষ্য করে পাথর নিক্ষেপ

কর্মীদের লক্ষ্য করে পাথর নিক্ষেপ করা হয়৷ আর নিরাপত্তা কর্মীরা মাঝে মাঝেই আন্দোলনকারীদের লক্ষ্য করে গুলি করে৷ এভাবে গুলিতে এখন পর্যন্ত প্রায় ১০২ জন মারা গেছে৷ যাদের বেশিরভাগই তরুণ৷ এর মধ্যে গতকাল মারা গেছে তিনজন৷ অবশ্য নিরাপত্তা বাহিনীর দাবি, নিজেদের রক্ষা করতেই তাঁরা গুলির আশ্রয় নিয়ে থাকেন৷

ভারত ও বিশ্বের প্রতিক্রিয়া

ভারতের জন্য দিন দিন মাথা ব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে কাশ্মীর৷ কেন্দ্রীয় সরকার বিষয়টাকে ইদানিং বেশ গুরুত্বের সঙ্গেই দেখছে বলে মনে হচ্ছে৷ এজন্য আগামীকালই সরকারের একটা প্রতিনিধি দল যাচ্ছে সেখানে৷ সব রাজনৈতিক দলের সদস্যই থাকছেন ৩৫ জনের এই দলে৷ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পি চিদাম্বরম এই দলের নেতৃত্ব দেবেন৷ কাশ্মীরের রাজনৈতিক নেতা থেকে শুরু করে বিচ্ছিন্নতাবাদী, বিক্ষোভকারী ও সাধারণ জনগণের সঙ্গে কথা বলবেন দলের সদস্যরা৷ এরপর সেটার উপর ভিত্তি করে সরকারকে একটা প্রতিবেদন দেবেন তাঁরা৷ যেটার প্রেক্ষিতে সরকার পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করবে৷ অ্যামনেষ্টি ইন্টারন্যাশনালের এক বিবৃতিতে বিক্ষোভকারীদের গুলি না করতে ভারত সরকারকে অনুরোধ জানিয়েছে৷

কাশ্মীরের জনগণের দাবি

এ বিষয়ে সম্প্রতি একটা জরিপ হয়েছে৷ ‘সানডে হিন্দুস্তান টাইমস' সংবাদপত্রের জন্য ‘টিম সিভোটার' করেছে এই জরিপটি৷ তাতে দেখা গেছে, ভারত শাসিত কাশ্মীরে বসবাসকারী জনগোষ্ঠীর দুই-তৃতীয়াংশই স্বাধীনতা চান৷ আর প্রতি দশজনের মধ্যে একজনেরও কম মানুষ চান পাকিস্তানের সঙ্গে এক হতে৷

প্রতিবেদন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: হোসাইন আব্দুল হাই

সংশ্লিষ্ট বিষয়