কাশ্মীর নিয়ে ভারত-চীন কথার লড়াই | বিশ্ব | DW | 24.03.2022

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ভারত

কাশ্মীর নিয়ে ভারত-চীন কথার লড়াই

পাকিস্তানে গিয়ে কাশ্মীর নিয়ে মন্তব্য করেছেন চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। পাল্টা তোপ ভারতের।

সম্প্রতি পাকিস্তান সফরে গেছেন চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। সেখান থেকে আগামী দুই দিনের মধ্যে তিনি ভারতেও আসতে পারেন। এই পরিস্থিতিতে ফের কাশ্মীর নিয়ে দুই দেশের কথার লড়াই শুরু হলো।

পাকিস্তানে অর্গানাইজেশন অফ ইসলামিক কোঅপারেশনের বৈঠকে প্রধান বক্তা ছিলেন চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই। সেখানে তিনি বলেন, 'কাশ্মীর নিয়ে ইসলামিক দেশের বন্ধুদের আশঙ্কার কথা আমরা শুনতে পাচ্ছি।' এরই পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার বিবৃতি জারি করেছে ভারত।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচী জানিয়েছেন, কাশ্মীর অখণ্ড ভারতের অংশ। তা নিয়ে আলোচনাও ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। অন্য কোনো দেশের এ বিষয়ে কথা বলার বা আলোচনা করার সুযোগ নেই। অধিকারও নেই। পাকিস্তানে চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী যেভাবে কাশ্মীরের প্রসঙ্গ উত্থাপন করেছেন, তার তীব্র বিরোধিতা করেছে ভারত।

লাদাখে ভারত-চীন সংঘাতের পর এখনো পর্যন্ত ভারতের কোনো প্রতিনিধি চীনে অথবা চীনের কোনো প্রতিনিধি ভারতে আসেননি। সম্প্রতি আলোচনা হচ্ছিল, চীনের পরাষ্ট্রমন্ত্রী ঝটিতি ভারত সফরে আসতে পারেন। আগামী দুই দিনের মধ্যেই সেই সফরের সম্ভাবনা তৈরি হয়েছিল। কিন্তু সাম্প্রতিক বাক-যুদ্ধের পর আদৌ তা সম্ভব হবে কি না, তা নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন কূটনীতিকরা।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে এদিন অরিন্দম বলেছেন, এর আগেও একাধিকবার কাশ্মীর নিয়ে অনৈতিক আলোচনা করেছে চীন। এ বিষয়ে চীন সবসময়ই পাকিস্তানের পাশে থাকে বলে অভিযোগ করেছেন ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র। বস্তুত, কিছুদিন আগে কাশ্মীর নিয়ে যোথ বিবৃতিও পেশ করেছিল পাকিস্তান এবং চীন। ভারত এই পুরো বিষয়টিই ভালো চোখে দেখছে না বলে বুধবার আরো একবার স্পষ্ট করে দেওয়া হয়েছে।

এসজি/জিএইচ (পিটিআই, এএনআই)