কাশ্মীরে জেলাস্তরের ভোটে এগিয়ে গুপকর জোট | বিশ্ব | DW | 22.12.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ভারত

কাশ্মীরে জেলাস্তরের ভোটে এগিয়ে গুপকর জোট

জম্মু ও কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বিলোপের পর প্রথম নির্বাচন। জেলা পর্যায়ে। তাতে বিপুলভাবে এগিয়ে বিজেপি-বিরোধী জোট।

কাশ্মীর। ৩৭০ ধারা বিলোপের পর প্রথম জেলা পর্যায়ের নির্বাচনের ফল প্রকাশিত হলো।

কাশ্মীর। ৩৭০ ধারা বিলোপের পর প্রথম জেলা পর্যায়ের নির্বাচনের ফল প্রকাশিত হলো।

ফারুক আবদুল্লার নেতৃত্বে গুপকর অ্যালায়েন্স জম্মু ও কাশ্মীরের জেলা উন্নয়ন পর্ষদের নির্বাচনে বিপুল জয় পেতে চলেছে। গুপকর এগিয়ে ৮৮টি আসনে, কংগ্রেস ২২টিতে, বিজেপি এগিয়ে ৫৪ আসনে। জেকেএপি ১১টিতে এবং নির্দল এবং অন্যান্য এগিয়ে ৫৫ আসনে।

৩৭০ ধারা বিলোপ এবং জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্যকে ভেঙে দিয়ে দুইটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করার পর এই প্রথম নির্বাচন হলো। জেলা উন্নয়ন পর্ষদের। ২০টি জেলায় ২৮০টি আসন। আট পর্বে ভোটগ্রহণ হয়েছে। তারই ফল বেরোচ্ছে মঙ্গলবার।

ভোটের আগে কংগ্রেস গুপকর জোটের সঙ্গেই ছিল। কিন্তু তারপর বিজেপি বলতে থাকে কংগ্রেস জাতীয়তাবিরোধী গুপকর গ্যাংয়ের সঙ্গে হাত মিলিয়েছে। তখন কংগ্রেস তলায় তলায় সহযোগিতা বজায় রাখলেও প্রকাশ্যে গুপকরের সঙ্গে জোটে যায়নি। ভোটে গুপকর ও কংগ্রেস মিলে অর্ধেকের বেশি আসনে জিতেছে।

বিজেপি প্রার্থীরা মূলত জিতছেন জম্মুতে। এখানে তাঁরা ৪৪টি আসনে এগিয়ে। কাশ্মীর উপত্যকায় অল্প কিছু আসনে বিজেপি এগিয়ে। যেমন শ্রীনগর। ১৪টি আসনের মধ্যে নির্দল এগিয়ে সাতটি আসনে। তিনটিতে জেকেএপি, গুপকর তিনটিতে এবং একটিতে বিজেপি এগিয়ে।

কাশ্মীরে এই প্রথমবার ন্যাশনাল কনফারেন্স ও পিডিপি জোট বেঁধে নির্বাচনে লড়ছে। তাদের সঙ্গে সামিল কিছু ছোট দল এবং বামেরা। তাদেরই গুপকর জোট বলা হচ্ছে। এই দলগুলি ৩৭০ ধারা বিলোপের তীব্র বিরোধী। প্রথমবার জোট বেঁধে ন্যাশনাল কনফারেন্স ও পিডিপি সফল বলা চলে। তারা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করায় পঞ্চায়েতের মতো বিজেপি উপত্যকায় জিততে পারছে না। ৩৭০ ধারা বিলোপ ও পূর্ণ রাজ্য থেকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করায় কাশ্মীরের মানুষের মনোভাব স্পষ্ট হয়ে যাচ্ছে এই ফলাফলে।

জিএইচ/এসজি(পিটিআই, এএনআই)

সংশ্লিষ্ট বিষয়