কাবুলে সামরিক হাসপাতালে বিস্ফোরণ, মৃত বহু | বিশ্ব | DW | 03.11.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

আফগানিস্তান

কাবুলে সামরিক হাসপাতালে বিস্ফোরণ, মৃত বহু

কাবুলে সামরিক হাসপাতালে সন্ত্রাসী হামলায় অন্ততপক্ষে ২৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। স্থানীয় আইএস শাখা এর দায় স্বীকার করেছে।

কাবুলে হাসপাতালে হামলার দায় স্বীকার করেছে স্থানীয় আইএস সংগঠন।

কাবুলে হাসপাতালে হামলার দায় স্বীকার করেছে স্থানীয় আইএস সংগঠন।

বিস্ফোরণের পর আইএস সন্ত্রাসীরা গুলি চালাতে থাকে। তালেবান মুখপাত্র জানিয়েছেন, ১৫ মিনিটের মধ্যে সব আইএস সন্ত্রাসীকে মারা সম্ভব হয়। সন্ত্রাসীরা হাসপাতালের ভিতরে ঢুকতে পারেনি। সশস্ত্র তালেবান যোদ্ধাদের হেলিকপ্টার করে হাসপাতালে নিয়ে এসে নামিয়ে দেয়া হয়। তারাই আইএস সন্ত্রাসীদের মোকাবিলা করে।

তালেবান আফগানিস্তান দখল করার পর থেকে সেখানে আইএস সন্ত্রাসীরা সক্রিয়। তারা একের পর এক আক্রমণ শানাচ্ছে। হাসাপাতালে মোট ছয়জন আইএস আক্রমণকারী ছিল।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জানিয়েছেন, সাধারণ মানুষের পাশাপাশি তালেবান যোদ্ধাও মারা গেছেন। বাসিন্দাদের শেয়ার করা ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, হাসপাতালের সামনে থেকে ধোঁয়ার কুণ্ডলী উঠছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, দুইটি হেলিকপ্টার ঘটনাস্থলে যায়।

এর আগেও ২০১১ ও ২০১৭ সালে ওই হাসপাতাল আক্রান্ত হয়েছিল। ২০১১ সালে তালেবান আত্মঘাতী দলের এক সদস্য হাসপাতালে ঢুকে বিস্ফোরণ ঘটায়। ২০১৭ সালে চিকিৎসাকর্মীর পোশাক পরে এক সন্ত্রাসী ভিতরে ঢুকে গুলি চালাতে থাকে। সেবার ৩০ জনের মৃত্যু হয়েছিল। 

তালেবান ও আইএস হলো কট্টরপন্থি সুন্নি সংগঠন, কিন্ত ইসলামিক আইনের ব্যাখ্যা নিয়ে দুই সংগঠনের মতভেদ আছে। তারা একে অপরকে শত্রু বলে মনে করে।

জিএইচ/এসজি (রয়টার্স, এপি, এএফপি)