কলকাতায় বাউল-ফকির উৎসব | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 10.01.2012
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

সমাজ সংস্কৃতি

কলকাতায় বাউল-ফকির উৎসব

সপ্তম বছরে পা দিল কলকাতার বাউল-ফকির উৎসব৷ পশ্চিমবঙ্গ-সহ ভারতের নানা অঞ্চল থেকে এবং বাংলাদেশ থেকেও বাউল ও ফকির গানের সাধক-শিল্পীরা অংশ নিয়েছিলেন দু’দিনের এই উৎসবে৷

Baul.jpg These photos are taken by me & i permit to use Maskwaith Ahsan and his associates. With Regards Harun Ur Rashid Swapan

ফাইল ছবি

আখড়ায় বসে আছেন বর্ধমানের কেতুগ্রাম থেকে আসা ফকির গানের শিল্পী হেরাসা খাতিম৷ কথা বলতে বলতেই হাতে ধরা বিচিত্র তারযন্ত্র সারিন্দা বেজে উঠলো৷ অভিনব এই বাদ্যযন্ত্রটি তিনি পেয়েছেন তাঁর বাবার কাছ থেকে৷ বস্তুত দক্ষিণ কলকাতার উপকণ্ঠে যাদবপুর এলাকায় দুদিনের বাউল-ফকির উৎসবে যাঁদের সঙ্গে দেখা হল, তাঁরা প্রায় প্রত্যেকেই বংশ পরম্পরায় শিল্পী৷ এই গানই তাঁদের পেশা, নেশাও বটে৷ শহুরে লোক কতটা তার কদর করবে, প্রথমদিকে সে সন্দেহ ওঁদের ছিল বই কী৷

Herasha Khatim playing the Sarinda in Baul Fakir Festival in Kolkat (India) on 08.01.2012; Copyright: DW/Sirsho Bandopadhyay

কলকাতার বাউল উৎসবে সারিন্দা বাজাচ্ছেন হেরাসা খাতিম

বীরভূম জেলা থেকে আসেন শিল্পী নূর মহম্মদ ফকির৷ তাঁর মতো গ্রাম-গঞ্জের আপাত অখ্যাত শিল্পীদের আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দেওয়ার পাশাপাশি আরও একটা জরুরি কাজ করছে কলকাতার এই উৎসব৷ নেহাতই দরিদ্র এই শিল্পীদের জীবনে অন্তত কিছুটা স্বচ্ছলতার ব্যবস্থা করছে৷ বললেন বাউল গানের বিখ্যাত শিল্পী গৌর খ্যাপা৷ তবে স্বচ্ছলতার সঙ্গে সঙ্গেই সহজ সরল বাউল গানে লাগছে জনপ্রিয়, চটুল সংস্কৃতির ছোঁয়াচ৷ বদলে যাচ্ছে গান৷ বললেন বাংলাদেশের সিলেট থেকে আসা বাউল শিল্পী রণেন চক্রবর্তী৷

কিন্তু ওঁরা নাছোড়৷ শত প্রলোভন বা প্ররোচনাতেও নিজেদের গানে ওঁরা নাগরিক লালসা আর কৃত্রিমতার কলঙ্কদাগ লাগতে দেবেন না৷ কার্যত হলও তাই৷ দুদিনের জন্যে হলেও ব্যস্ত কলকাতা, কেজো কলকাতার একটি ছোট্ট অঞ্চল হয়ে উঠল সহজিয়া জীবনদর্শনের আখড়া, সদ্ভাবনার মিলনমেলা৷

প্রতিবেদন: শীর্ষ বন্দ্যোপাধ্যায়

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

নির্বাচিত প্রতিবেদন