করোনা সংক্রমণ বেড়ে চলায় জার্মানিতে আরো কড়াকড়ি | বিশ্ব | DW | 30.09.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

জার্মানি

করোনা সংক্রমণ বেড়ে চলায় জার্মানিতে আরো কড়াকড়ি

জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল মঙ্গলবার দেশে করোনা মহামারি সম্পর্কে দুশ্চিন্তা প্রকাশ করে আরো কড়া বিধিনিয়ম ঘোষণা করেছেন৷ নতুন ফর্মুলার ভিত্তিতে আঞ্চলিক পর্যায়ে সেই সব পদক্ষেপ নেওয়া হবে৷

করোনা সংকটের মাঝেও এখনো পর্যন্ত পরিস্থিতি মোটামুটি ভালোভাবেই সামলাতে পেরেছে জার্মানি৷ কিছু বিধিনিয়ম সত্ত্বেও জনজীবন মোটামুটি স্বাভাবিক ছন্দে চলছে৷ স্বাস্থ্য পরিষেবার অবকাঠামোর উপর কোনো বাড়তি চাপ দেখা যাচ্ছে না৷ কিন্তু সংক্রমণের হার বেড়ে চলায় সরকার বার বার গভীর দুশ্চিন্তা প্রকাশ করছে৷ এমন প্রেক্ষাপটে মঙ্গলবার রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে আলোচনার পর চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল সংকট সামলাতে নতুন কিছু পদক্ষেপের ঘোষণা করলেন৷

জার্মানির সব প্রান্তে করোনা সংক্রমণের হার এক না হওয়ায় সরাসরি কোনো সাধারণ বিধিনিয়ম সম্পর্কে ঐকমত্যে পৌঁছতে পারছিলেন না রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরা৷ অবশেষে মঙ্গলবার একটা রফা হয়েছে৷ সেই বোঝাপড়ার আওতায় এবার থেকে গোটা দেশজুড়ে নির্দিষ্ট ফর্মুলার ভিত্তিতে একই পদক্ষেপ নেওয়া হবে৷ অর্থাৎ ঢালাও লকডাউনের বদলে স্থানীয় পর্যায়ে অবস্থা অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে৷

কোনো অঞ্চলে প্রতি এক লাখ মানুষের মধ্যে কতজন নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন, তার উপর নির্ভর করে বিধিনিয়ম স্থির করা হচ্ছে৷ সংখ্যাটা ৩৫-এর বেশি হলে হলে বদ্ধ ঘরের মধ্যে ৫০ জনের বেশি মানুষের সমাবেশ নিষিদ্ধ করা হচ্ছে৷ সে ক্ষেত্রে ব্যক্তিগত বা পারিবারিক স্তরে কোনো উৎসব-অনুষ্ঠানে ২৫ জনের বেশি মানুষের সমাবেশ এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিয়েছে সরকার৷ আক্রান্তদের সংখ্যা ৫০ পেরিয়ে গেলে সমাবেশের ঊর্দ্ধসীমা ২৫ রাখা হবে এবং বাসভবনে ১০ জনের বেশি মানুষ যাতে একত্র না হন, সেই পরামর্শ দেওয়া হবে৷ প্রশাসনের পক্ষে কারো বাসভবনে প্রবেশ করে মানুষ গোনা সম্ভব নয় বলে সাধারণ মানুষের উদ্দেশ্য সেই পরামর্শ মেনে চলার আবেদন করেন ম্যার্কেল৷ তবে আগে থেকে কর্তৃপক্ষের কাছে কোনো অনুষ্ঠান নথিভুক্ত করলে এবং কড়া স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার অঙ্গীকার করলে এই নিয়মের ব্যতিক্রম করা হবে৷

ম্যার্কেল এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রী ইয়েন্স স্পান বার বার মনে করিয়ে দিচ্ছেন, যে বর্তমান পরিস্থিতিতে দেশের মানুষের আচরণের উপর করোনা মহামারির গতিপ্রকৃতি অনেকটাই নির্ভর করবে৷ তাঁরা বলছেন, এখনো কোনো ওষুধ বা টিকা না থাকায় করোনা ভাইরাস মারাত্মক ক্ষতি করতে পারে৷ তাই বিধিনিয়ম শিথিল করার সময় আসে নি৷ স্বাভাবিক জীবনের ছন্দে বিঘ্ন সত্ত্বেও বৃহত্তর স্বার্থে সবাইকে সে সব মেনে চলতে হবে৷

পরিস্থিতি সামলাতে একাধিক রাজ্য নিয়ম ভাঙলে বড় অঙ্কের জরিমানা স্থির করছে৷ বার্লিনে একটি জায়গায় নাচের পার্টি আয়োজন করায় রাজ্য সরকার আয়োজকদের ৫,০০০ ইউরো জরিমানা করেছে৷ উত্তরে শ্লেসভিক হলস্টাইন রাজ্যে রেস্তোরাঁয় খেতে গেলে ভুল নাম-ঠিকানা লিখলে ১,০০০ ইউরো জরিমানা করা হচ্ছে৷ অন্য রাজ্যে সেই অঙ্ক অবশ্য ৫০ ইউরোয় সীমিত রাখা হয়েছে৷

এসবি/এসিবি (ডিপিএ, রয়টার্স)

১৫ সেপ্টেম্বরের ছবিঘরটি দেখুন...

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন