করোনা ভাইরাস: ইয়েমেনে যুদ্ধবিরতি ঘোষণা | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 09.04.2020

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ইয়েমেন

করোনা ভাইরাস: ইয়েমেনে যুদ্ধবিরতি ঘোষণা

বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধে গৃহযুদ্ধ কবলিত ইয়েমেনে দুই সপ্তাহের যুদ্ধবিরতি ঘোষণা করেছে সৌদি আরব নেতৃত্বাধীন জোট৷

বুধবারের ওই ঘোষণায় বৃহস্পতিবার থেকেই যুদ্ধবিরতি কার্যকর হওয়ার কথা বলা হয়েছে৷

এই ঘোষণা সৌদি জোট সমর্থিত ইয়েমেন সরকার ও হুতি বিদ্রোহীদের মধ্যে সরাসরি শান্তি আলোচনার পথ তৈরি করবে বলেও আশা করা হচ্ছে৷ গত পাঁচ বছরের বেশি সময় ধরে ইয়েমেনে গৃহযুদ্ধ চলছে৷ হুতি বিদ্রোহীদের সমর্থন দিচ্ছে ইরান৷

সৌদি জোটের মুখপাত্র তুর্কি আল-মালিকী বলেন, ‘‘আশা করি হুতিরা আমাদের এই প্রস্তাব গ্রহণ করবে৷ আমরা কোভিড-১৯ মহামারীর বিরুদ্ধে যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছি৷’’

তবে হুতি বিদ্রোহী বা ইয়েমেন সরকারের পক্ষ থেকে তাৎক্ষণিকভাবে এ বিষয়ে কোনো প্রতিক্রিয়া জানানো হয়নি৷

প্রথম সরাসরি শান্তি আলোচনা

বিশ্বজুড়ে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়া শুরুর পর গত ২৩ মার্চ জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস পৃথিবী জুড়ে যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানান৷

ওই আহ্বানে সাড়া দিয়ে ইয়েমেনের জনগণকে করোনা সংক্রমণ থেকে রক্ষা করতে সৌদি আরব নেতৃত্বাধীন জোট এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানান মালিকী৷ বলেন, হুতি বিদ্রোহীরা তাদের এ প্রস্তাবে যদি ‘ইতিবাচক' সাড়া দেয় তবে যুদ্ধবিরতির মেয়াদ আরো বাড়ানো হবে৷

জাতিসংঘ ইয়েমেনে গৃহযুদ্ধের অবসানের যে চেষ্টা করছে যুদ্ধবিরতি ঘোষণার মাধ্যমে তারা সেটার প্রতি সমর্থন জানাতে চান বলেও জানান মালিকী৷

‘‘এটা যুদ্ধরত সব পক্ষের জন্য আলোচনা, উদ্যোগ এবং ইয়েমেনে স্থায়ী যুদ্ধবিরতির জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের পথের শুরু হতে পারে৷ যাতে ইয়েমেন সংকটের একটি পূর্ণ রাজনৈতিক সমাধান করা যায়৷’’

২০১৫ সালের ‍মার্চে ইয়েমেনে গৃহযুদ্ধ শুরু হয়৷ তারপর উভয় পক্ষের এটাই প্রথম সরাসরি আলোচনার প্রস্তাব৷ যুদ্ধ সেখানে এক লাখের বেশি মানুষের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে৷ লাখ লাখ মানুষ গৃহহীন হয়ে মানবেতর জীবন কাটাচ্ছেন৷ ইয়েমেনের যুদ্ধকে সবচেয়ে বড় মানবিক বিপর্যয় বলে ঘোষণা করেছে জাতিসংঘ৷

জাতিসংঘের হস্তক্ষেপ

সৌদি জোটের যুদ্ধবিরতির এ ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়েছেন জাতিসংঘের মহাসচিব গুতেরেস৷ তিনি বলেন, ‘‘এই ঘোষণা দেশটিতে শান্তি ফেরানোর উদ্যোগকে আরো এগিয়ে দেবে৷ একই সঙ্গে কোভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে লড়াইয়ের সক্ষমতা বাড়াবে৷’’

গত ১০ দিনে ইয়েমেনে যুদ্ধে ২৭০ জন নিহত হন৷

সৌদি আরবের অর্থ সহায়তা

ইয়েমেনের জন্য জাতিসংঘের ত্রাণ তহবিলে ৫০ কোটি মার্কিন ডলার দান করার ঘোষণা দিয়েছে সৌদি আরব৷ যার মধ্যে আড়াই কোটি মার্কিন ডলার ব্যয় হবে করোনা মোকাবেলায়৷

এসএনএল/কেএম(এপি, রয়টার্স, এএফপি)

গত বছরের এপ্রিলের ছবিঘর দেখুন...

নির্বাচিত প্রতিবেদন