করোনায় প্লেয়ার আক্রান্ত, আইপিএল স্থগিত | বিশ্ব | DW | 04.05.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ভারত

করোনায় প্লেয়ার আক্রান্ত, আইপিএল স্থগিত

চারজন প্লেয়ার, বোলিং কোচ, দুই জন গ্রাউন্ড স্টাফ করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর আইপিএল স্থগিত রাখা হলো।

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

আইপিএল আপাতত স্থগিত। ভারতের অতি জনপ্রিয় এই ক্রিকেট টুর্নামেন্টে অন্ততপক্ষে চারজন প্লেয়ার, একজন বোলিং কোচ ও দুই জন গ্রাউন্ড স্টাফ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তারপরেই চারটি টিমকে নিভৃতবাসে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে ঘোষণা করা হয়েছে, আইপিএল স্থগিত রাখা  হলো। ক্রিকেট বোর্ডের সহ সভাপতি রাজীব শুক্ল আইপিএল স্থগিত রাখার কথা জানিয়েছেন। এবার আইপিএলের ২০টি ম্যাচ হয়েছিল। ৩১টি ম্যাচ বাকি ছিল।

প্রথমে কলকাতার দুই ক্রিকেটার বরুণ চক্রবর্তী ও সন্দীপ ওয়ারিয়র করোনায় আক্রান্ত হন। কেকেআরের পরের খেলা ছিল বেঙ্গালুরুর বিরুদ্ধে। বিরাট কোহলিরা খেলতে চাননি। বোর্ডও ম্যাচ বাতিল করে দেয়। কেকেআরের সব প্লেয়ারকে নিভৃতবাসে পাঠানো হয়।  এরপর করোনায় আক্রান্ত হন চেন্নাইয়ের কোচ বালাজি। টিমের দুই জন গ্রাউন্ড স্টাফও আক্রান্ত। মঙ্গলবার হায়দরাবাদের দুই ক্রিকেটার অমিত মিশ্র ও ঋদ্ধিমান সাহার করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর আসে।

এরপর বোর্ড আর কোনো ঝুঁকি নেয়নি। আইপিএল স্থগিত করে দেয়া হয়। মঙ্গলবার সকালেও তারা সব ম্যাচ মুম্বইতে খেলিয়ে আইপিএল চালিয়ে যাওয়ার কথা ভাবছিল।

কেকেআরের তরফে বেঙ্কি মাইসোর জানিয়েছেন, ''বরুণ ও সন্দীপ দুজনেই সুস্থ হয়ে উঠছেন। দলের চিকিৎসকরা তাদের দেখছেন। সন্দীপের জ্বর ছেড়ে গেছে। বরুণের উপসর্গ আছে।'' কলকাতা শেষ ম্যাচ খেলেছিল দিল্লির বিরুদ্ধে। তাই দিল্লির প্লেয়ারদেরও নিভৃতবাসে রাখা হয়েছে।

সানরাইজার্স হায়দরাবাদ এবং চেন্নাইয়ের প্লেয়ারদেরও নিভৃতবাসে রাখা হয়েছে।

চেন্নাই টিমের তিনজন করোনায় আক্রান্ত। বোলিং কোচ বালাজির করোনা হয়েছে। বাসের ক্লিনারের করোনা ধরা পড়েছে। তাছাড়া একজন গ্রাউন্ড স্টাফেরও করোনা হয়েছে।

ভারতে করনার দ্বিতীয় ঢেউ প্রবল হওয়ার পরই আইপিএল বাতিলের দাবি উঠেছিল। কিন্তু বোর্ডের যুক্তি ছিল, জৈব সুরক্ষা বলয়ের মধ্যে আইপিএল হচ্ছে। এভাবেই এর আগে ইংল্যান্ডের সঙ্গে ম্যাচগুলিও হয়েছিল। ফলে কোনো অসুবিধা হবে না। আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিল ম্যাচগুলিকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে নিয়ে যাওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিল। তাতেও বোর্ড সায় দেয়নি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত প্লেয়াররা আক্রান্ত হওয়ায় বোর্ড তা স্থগিত করে দিল।

জিএইচ/এসজি(পিটিআই, এএনআই)

 

সংশ্লিষ্ট বিষয়